চাদর

জিসান শা ইকরাম ২৫ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ০৬:৩৫:১৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৪২ মন্তব্য

পাখিঃ কেমন আছো জেস?
জেসঃ খুব ভালো আছি,
পাখিঃ সত্যি? 🙂
জেসঃ হ্যা সত্যি।  এতদিন কোথায় ছিলে?
পাখিঃ ছিলাম তো তোমার আশে পাশেই, ডাকোনি তাই আসিনি।
জেসঃ আজও তো ডাকিনি, তারপরেও এলে যে?
পাখিঃ আজ মনে মনে খুঁজেছ আমায়, আমি তো তোমার মন পড়তে জানি।
জেসঃ হু, তা তো জানবেই, মস্ত বড় পণ্ডিত হইছ তুমি।
পাখিঃ কি করো?
জেসঃ শ্রাবণ মাসের মত বৃষ্টি, জানালা খুলে বৃষ্টি দেখি।
পাখিঃ একটা কবিতা লেখো বৃষ্টিকে নিয়ে।
জেসঃ আমি কবিতা লিখতে পারিনা।
পাখিঃ প্লিজ জেস, কিছু একটা বলো।
জেসঃ আচ্ছা বলছি ‘ যাও পাখি বলো তারে, সে যেন ভুলে না মোরে ‘
পাখিঃ ধুর, এটা কি তোমার নাকি, এটি তো সবাই জানে।
জেসঃ কিছু একটা লিখতেই হবে?
পাখিঃ হ্যা বৃষ্টি ধারা নিয়ে কিছু লেখো।
জেসঃ আচ্ছা তাহলে কিছু একটা লেখি,

আমাদের জন্য
ভালোবাসার গ্রাম বানাচ্ছি সেই কবে থেকে
জলের মাঝে
অসীম আকাশের ছায়ায়।

স্বপ্নের গাছগুলো এখন
বড় হয়ে গিয়েছে অনেকটাই,
তারপরেও গাছের বৃদ্ধির জন্য
বৃষ্টির জল ঢালো প্রতিটি গাছের গোড়ায়।

শিকড় বেয়ে জল উঠে যায়
গাছের ধমনী হয়ে প্রতিটি পাতায়
অদৃশ্য কালির লেখায় দেখা যায়
প্রতি পাতায় বৃষ্টি ধারা আর ফাগুনের নাম।

সোনালী ফসলের আশায়
লাঙ্গল- ফলায় ওলট পালট হয় ভুমি
ক্লান্ত ফাগুনের মুখ মুছে দাও আচলে পরম মমতায়
অফুরান মমতা কোথা থেকে বয়ে আনো বৃষ্টি!!

উৎসর্গঃ যিনি আমাকে এই দোয়েলের ছবিটা দিয়েছেন।

৩২০জন ৩২০জন
40 Shares

৪২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ