বিভাগ: গল্প

দেহ

রুমন আশরাফ ২২ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ০১:১৬:০৩অপরাহ্ন গল্প ৭ মন্তব্য
“উফ আর কতক্ষণ, পা তো ব্যথা করছে। এবার একটু থামো”। হাঁপাতে হাঁপাতে কথাগুলো বলল রেশমা। রফিক এমন ভাব দেখাল যেন রেশমার কথাগুলো সে শুনতেই পায়নি। এদিকে রফিকও বেশ হাঁপিয়ে উঠেছে। বড় বড় নিঃশ্বাস ফেলছে। কপালে ঘাম জমছে আর মাঝে মাঝে বৃদ্ধা আঙ্গুল দিয়ে ঘামগুলো ফেলছে। নাহ এখন থামা যাবে না। আরও খানিকটা সময় চালিয়ে যেতে [ বিস্তারিত ]

হিমুর হাতে ভূতের বাক্স

নৃ মাসুদ রানা ২২ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ১১:৪৯:১৫পূর্বাহ্ন গল্প ১১ মন্তব্য
দরজার বাইরে হিমুর জুতো দেখে পরপর তিনবার কলিং বেল বাজালাম। কিন্তু ভেতর থেকে কোন সাড়াশব্দ পাচ্ছিলাম না। দরজাটাও ভিতর থেকে লক করা। মনের মধ্যে তখন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সূত্রপাতের ছোঁয়ার টেপাটেপিতে বুক ধড়ফড় করছিলো। চিন্তার ভিড়ে কপালের মোড়ে অযথাই ঘাম এসে ঠেলাঠেলি করছিলো। আর বুকের ভেতরটা হাহাকারের দাবানলে পুড়ে ঠোঁটের চৌকাঠ অবধি শুকিয়ে যাচ্ছিলো নিমেষেই। হিমুকে [ বিস্তারিত ]

হিমুর হাতে কাফনের কাপড়

নৃ মাসুদ রানা ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১১:৪৮:৫৩পূর্বাহ্ন গল্প ১৭ মন্তব্য
খুবই ভোরে হিমুর ফোন বেজে উঠলো। আচমকাই ঘুম ভেঙে গেলো আমার। তখনও বিছানায় বিভোর হয়ে ঘুমাচ্ছে হিমু। হিমুকে ডাকবো ডাকবো করছি ইতিমধ্যেই রিংটোন বন্ধ হয়ে গেলো। আমি আবার ঘুমানোর দাওয়াতে যাবো যাবো করছি ঠিক তখনই আবার হিমুর ফোন বেজে উঠলো। এবার হিমুকে না ডেকে সরাসরি আমি নিজেই ফোন রিসিভ করলাম। আমি পুরোপুরি শুকনো পাতার মতো [ বিস্তারিত ]

হিমুর হাতে নীল রুমাল

নৃ মাসুদ রানা ২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, ১১:৩৫:১৬পূর্বাহ্ন গল্প ২০ মন্তব্য
ঘুমাতে পারছি না কোনমতে। একটু পরপর জেগে উঠছি। একরকম বিস্ময়কর নেশার পেশায় জড়িত হয়নি কোনদিন। কিন্তু আজ হঠাৎ করে কেন যে দীর্ঘ রাতটাকে পাহারা দিতে বসেছি তারও কোন সুনির্দিষ্ট কারণ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। শুনেছি প্রেমে ছ্যাঁকা খেলে প্রেমিকদের ঘুম আসে না। প্রেমিকেরা সারারাত বাতি জ্বালিয়ে বিড়ির ধোঁয়া আর ছাইপাঁশে রাত্রিযাপন করে। কিন্তু আমিতো সবেমাত্র প্রেমের [ বিস্তারিত ]

হিমুর হাতে চিরকুট

নৃ মাসুদ রানা ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ১১:২৬:২২পূর্বাহ্ন গল্প ২২ মন্তব্য
হিমু চিরকুট লিখছে… প্রিয় প্রিয়তমেষু রুপা, তোমার অতশত রূপ দেখে আমি বিমুগ্ধ। তোমার গাঢ় লাল লিপস্টিকের ভিড়ের নেশায় মত্ত। কি যে রূপের সুধা! কি যে ঠোঁটের উষ্ণতার রস, আহা! দেখে দেখে বুকের ভেতরটায় তৃষ্ণার চড় ভেসে উঠেছে। আর সে তৃষ্ণায় জব্দ হয়ে ডুবে ভাসি রোজরোজ। তোমার ফর্সা দু গালের নরম মাংসপেশিতে আমার ঠোঁটের উষ্ণ আবরণ [ বিস্তারিত ]

হিমুর হাতে রেশমি চুড়ি

নৃ মাসুদ রানা ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার, ১১:০৬:৪৯পূর্বাহ্ন গল্প ১৪ মন্তব্য
  হিমু বেশ কয়েকদিন হলো গ্রামের বাড়ি গিয়েছে। আর ধুলিমাখা শহরটার পুরোটাই আমার কাছে অতৃপ্ত লাগছে। চায়ের টোংঘর থেকে শুরু করে বিলাসী রেস্টুরেন্টের খাবার আরও বেশি অসহ্যকর লাগছে। সময়গুলো যেন ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে কাতরাচ্ছে। আর দিনের বাকি অংশটুকু সামরিক চিকিৎসা নিতে ব্যস্ত। গতরাতে হিমু কল দিয়েছিল। বললো – পরশু ঢাকায় চলে আসবে। অবশ্য তখন মনটা স্বাচ্ছন্দ্যে [ বিস্তারিত ]

আয়শার সংসার – শেষ পর্ব

মুক্তা মৃণালিনী ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ০১:৫৩:১৪অপরাহ্ন গল্প ১৯ মন্তব্য
নওশাদ সাহেব আমতা আমতা করে বললেন , ‘আয়শা আমি খুব অসুস্থ। বিশ্বাস কর তুমি যা ভাবছো এরকম কিছুই না।’ আয়শা তখনও কেঁদেই যাচ্ছেন। নওশাদ সাহেব বললেন , ‘তবে তোমাকে আজ আমি কিছু সিরিয়াস কথা বলতে চাই।’ আয়শা বললেন , কি কথা? নওশাদ সাহেব বললেন , ‘তোমার সাথে আমার লাস্ট ফিজিক্যালি রিলেশন ঠিক কবে হয়েছিল , [ বিস্তারিত ]

হিমুর হাতে হলুদ খাম

নৃ মাসুদ রানা ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ১০:৫৫:১৭পূর্বাহ্ন গল্প ১৫ মন্তব্য
হিমুর ফোন বাজছে। দু-তিনবার বেজে উঠলো। আবার বাজতে শুরু করেছে। বাথরুমের কাছে গিয়ে বললাম হিমু, তোর ফোন বাজছে। হিমু প্রতিত্তোরে বললো – রিসিভ করে কথা বল। ফোন রিসিভ করতেই ওপাশ থেকে সুশ্রী কন্ঠের আওয়াজ ভেসে আসলো। এতো সুন্দর নরম কন্ঠস্বরের নিরুত্তাপ আহবানে কিছুটা সময় স্তব্ধ বনে বন্য প্রাণীর ছবি হয়ে দাঁড়িয়ে রইলাম। কি বলবো বুঝে [ বিস্তারিত ]

জনমানস

শিপু ভাই ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ০৯:৩৭:২৮পূর্বাহ্ন গল্প ১৩ মন্তব্য
দেইল্লার বিলের আশেপাশের গ্রামগুলোর মানুষ আজ খুব উত্তেজিত কিন্তু নিশ্চুপ। মুক্তিযোদ্ধারা কছু খাঁ নামের এক রাজাকারকে নাকি ধরে এনেছে। মেরে ফেলবে বোধয়। এই অঞ্চলে তেমন কোন যুদ্ধ হয়নি। ফলে এখানকার মানুষের কাছে যুদ্ধ, রাজাকার, মুক্তিযোদ্ধা, হানাদার ইত্যাদি বিষয়গুলো খুব স্পষ্ট না। সবই তাদের শোনা কথা। একটু দূরের নদী দিয়ে দুই একবার পাক বাহিনীর লঞ্চ গিয়েছে [ বিস্তারিত ]

বাসর ঘরে কান্নার শব্দ

নিতাই বাবু ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ০১:১৭:৪৯পূর্বাহ্ন গল্প ৩০ মন্তব্য
রাত প্রায় এগারোটার কাছাকাছি। আর কিছুক্ষণ পরই ঘড়ির ঘণ্টার কাটা এগারোটার বরাবর হলেই, দেওয়াল ঘড়িতে রাত এগারোটার এলার্ম বেজে ওঠবে। অথচ নিত্য বাবুর ঘরে একটা সিগারেটও নেই। অন্যান্য দিন নিজের পকেট ছাড়াও ঘরে চার-পাঁচটা  সিগারেট সবসময় মজুদ থাকতো। কিন্তু আজ নেই। নিত্য বাবু অফিস থেকে আসতে মনের ভুলেই নিজের পকেটে আর হাত দেয়নি। তাই আজকে [ বিস্তারিত ]

দাগ থেকে যায়

শিপু ভাই ১৬ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ১১:২৪:১৭পূর্বাহ্ন গল্প ১৫ মন্তব্য
সুমন নীলাকে দেখেই পছন্দ করে ফেলে। নীলা স্থানীয় কলেজে ইন্টার সেকেন্ড ইয়ারে পড়ে। সুমন দেখতে সুদর্শন, শিক্ষিত এবং বেশ ধনী পরিবারের সন্তান। অল্প দিনেই সুমন নীলার প্রেম হয়ে যায়। সুমন বাসায় জানায় নীলার কথা। মেয়েদের ছোট্ট পরিবার, স্বচ্ছল, আর মেয়েও খুব ভাল। দিনক্ষণ ঠিক হয় সুমনের পরিবারের কয়েকজন যাবে নীলাদের বাড়ি। সুমনের মা, বড় চাচা, [ বিস্তারিত ]

হিমুর হাতে একজোড়া নুপুর

নৃ মাসুদ রানা ১৬ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ১১:১১:৪৫পূর্বাহ্ন গল্প ১৬ মন্তব্য
  ক্লাস চলছিলো। উত্তম স্যারের ক্লাস। স্যার মানুষ হিসেবেও যেমন উত্তম শিক্ষক হিসেবেও ঠিকই তেমন। সত্যি ওনার মতো যান্ত্রিক মানুষ আমি আর দেখিনি। তিনি যেমন গল্প করতে পটু তেমনি আবার জোকস বলে বলে হাসাতেও পটু। অতশত গুণ থাকা সত্বেও তিনি কিন্তু তার পেশার একটুকুও অবমূল্যায়ন করে না।  ফোন বেজে উঠলো। একসাথে ভাইব্রেশন আর রিংটোন। উপস্থিত [ বিস্তারিত ]

হেমন্ত বন্দনা- চড়ুইভাতি

আকবর হোসেন রবিন ১৫ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ০৪:৩৯:১৪অপরাহ্ন গল্প ২০ মন্তব্য
আজ খুব ভোরে ঘুম ভাঙ্গলো। সাধারণত এতো ভোরে ঘুম ভাঙ্গেনা। এক জোড়া কবুতর তাল মিলিয়ে ডাকছে খাটের তলে বসে। ঘরের পিছন দিক থেকে মোরগের ডাক ভেসে আসছে কানে। মূলত এদের ডাকে ঘুম ভেঙ্গে গেছে। মাথার উপর টিনের চাল। চাল  থেকে ফোঁটা ফোঁটা শিশির বিন্দু গড়িয়ে পড়ছে। হালকা শীত শীত লাগছে। এমন ভোরে আমার খুব ইচ্ছে [ বিস্তারিত ]

হিমুর হাতে কদম্বফুল

নৃ মাসুদ রানা ১৫ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ০৯:৩৭:৩৮পূর্বাহ্ন গল্প ১২ মন্তব্য
ঘুম থেকে তখনো উঠিনি। কিন্তু হঠাৎ আচমকা ডাকে ঘুম ভেঙে যায়। দুচোখ মিলে ধরতেই দেখি হিমু হলুদ পাঞ্জাবি পরে দাঁড়িয়ে আছে। বুকটা ধরফর করে উঠলো। অবশ্য হিমু বুঝতে পেরে কাছে এসে গায়ে হাত বুলিয়ে বললো – আমি হিমু। বোতলের পানি চোখেমুখে ছিটিয়ে দিলো। কিছুটা সময় পর স্বাভাবিক হয়েছিলাম। হিমু বললো – ১০০ টাকা হবে? আমি [ বিস্তারিত ]

হিমুর হাতে হলুদ ফুল

নৃ মাসুদ রানা ১৪ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০৯:৩৫:৫৮পূর্বাহ্ন গল্প ১৪ মন্তব্য
পুরো রুমে আতরের আত্মারা কেবলই ভেসে ভেসে খেলা করছে। নিশ্বাসে বুকের ভেতরের নাড়িভুড়ির গন্ধগুলোও নিমেষেই নিঃশেষ হয়ে গেছে। পেট ফুলে ফেঁপে কথার তালে তালে শ্বাসপ্রশ্বাস সংগ্রহশালার যে ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে তাতেও সুগন্ধি আতরের সুগন্ধ বিদ্যমান। আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে গুনগুনিয়ে গান গেয়ে গেয়ে মাথায় চিরুনি করছে। আর আড়ালে আবডালে নিজের চোখে চোখ রেখে মুচকি হাসি হাসছে। আর [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ