নিতাই বাবু

আমি শ্রী নিতাই চন্দ্র পাল (নিতাই বাবু)। জন্ম: ৮ জুন, ১৯৬৩ ইং ৷ জন্মস্থান নোয়াখালীর বজরা রেলস্টেশনের পশ্চিমে, মাহাতাবপুর গ্রামে ৷ স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দশ বছর বয়সে ১৯৭২ সালে আমরা সপরিবারে নোয়াখালীর বাড়ি ছেড়ে চলে আসি, নারায়ণগঞ্জ বন্দর থানাধীন লক্ষণখোলা সংলগ্ন আদর্শ কটন মিলে। এখানে ১৯৭২ সাল থেকে ১৯৮৪ ইং সাল পর্যন্ত স্থায়ীভাবে বসবাস করি ৷ এই আদর্শ কটন মিলস এ আমার বড়দা চাকরি করতেন। আর আমার বাবা স্বর্গীয় শচিন্দ্র চন্দ্র পাল চাকরি করতেন, শীতলক্ষ্যা নদীর পশ্চিম পাড় দি চিত্তরঞ্জন কটন মিলে ৷ একসময় আদর্শ কটন মিলস্ বন্ধ হয়ে গেলে, শীতলক্ষ্যা নদীর পধচিমপাড় নগর খাঁনপুর এসে বসবাস শুরু করি। এরপর ১৯৯১ ইং সাল থেকে অদ্যাবধি সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন গোদনাইল এলাকায় বসবাস করে আসছি।

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ২ বছর ৯ মাস ১৯ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ৮৬টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ১৮০৬টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ১৮৫২টি
বছরের শুরুতেই অনেক নতুন নতুন ক্যালেন্ডার বাজারে বিক্রি হয়। নানান রঙের, নানান কোম্পানির। নানান ব্যাংকের, নানান ইন্স্যুরেন্সের ক্যালেন্ডার। ইংরেজি ক্যালেন্ডারে জানুয়ারি, ফেব্রুয়ারি, মার্চ মাসের পরও কাকগুলো মাস গত হয়ে যখন নভেম্বরের শেষে ডিসেম্বরের আগমন ঘটে, তখনই বাংলাদেশের বাঙালিদের মনে বাজতে থাকে মহান বিজয় দিবসের গান। আর ক’দিন পরেই ১৬ই ডিসেম্বর আমাদের মহান বিজয় দিবস। ১৯৭১ [ বিস্তারিত ]
প্রতি বছর ডিসেম্বর মাস আসলেই আমার নিজের দেখা ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দে মুক্তিযুদ্ধের সময়কার কিছু স্মৃতিকথা মনে পড়ে যায়। মনে পড়ে ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের মার্চ মাসে যখন মুক্তিযুদ্ধ শুরু হয়। আমি তখন ৮ বছরের এক নাবালক শিশু। বাবা আর আমার বড়দা চাকরি করতেন নারায়ণগঞ্জ, বাবা চাকরি করতেন নারায়ণগঞ্জ বর্তমান সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন গোদনাইল চিত্তরঞ্জন কটন মিলে। আর বড়দা চাকরি [ বিস্তারিত ]

মেয়ে তুমি

নিতাই বাবু ৯ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার, ০১:৩৬:২৬পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩৯ মন্তব্য
তুমি সাজো মেয়ে, তুমি সাজো ঘরনি, তুমি সাজো মা, তুমি সাজো রমণী। তুমি সাজো খালা, তুমি সাজো পিসি, তুমি সাজো ফুফু, তুমি সাজো মাসী। তুমি সাজো দিদি, তুমি সাজো দাদী, তুমি সাজো ভাবী, তুমি সাজো বৌদি। তুমি সাজো দিদা, তুমি সাজো নানী, তুমি সাজো বউ, তুমি সাজো রাণী। তুমি সাকো প্রেমিকা, তুমি সাজো পুত্রবধূ, তুমি [ বিস্তারিত ]

ফিরাইয়া দে

নিতাই বাবু ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ১১:৩৫:১৮পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩০ মন্তব্য
যেসুম গেরামের বন্ধুগো লগে উড়াইছি ঘুড়ি, খেলছিলাম ফুটবল, গোল্লাছুট, কানামাছি। আইস্বা খেইল্লা দিনগুলা কাডাই দিছি! যেসুম হগলতে মিল্লা সাদাকালা টেলিভিশন দেখতে যাইয়া মাইষের আতে খাইছি কত মাইরগুতা। ইশকুলে খাইছি মাস্টারের বেতের গুতা! যেসুম চারআনা দিয়া বুটভাজা, বাদাম, লেবনচুষ, আইসক্রিম, মালাই খাইছি মনে অনন্দ লইয়া। হারা দুপুর কাডাই দিছি নদীতে হাতরাইয়া। যেসুম বড়দা’র কান্দে চইড়া মেলায় [ বিস্তারিত ]
শিশুদের জন্য “হাতে খড়ি” উৎসব আগে গ্রাম শহরের সবখানে প্রচলিত থাকলেও, বর্তমানে এর বিন্দুবিসর্গ বলতে নেই বা কারোর চোখেও পড়ে না। আক্ষরিক অর্থে হাতে খড়ি হচ্ছে, লেখাপড়ার সাথে শিশুর প্রথম পরিচয়। শিশু জন্মের তিন থেকে চারবছরের মাথায় এই উৎসবটি পালন করা হতো। তা বেশি প্রচলন দেখা যেত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে। জন্মের পর থেকে জীবনে যতোগুলো [ বিস্তারিত ]

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা

নিতাই বাবু ২ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার, ০৯:৪২:১৯পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩৪ মন্তব্য
আমি মুক্তিযুদ্ধ দেখেছি, স্বাধীনতাও দেখেছি জন্ম আমার ১৯৬৩ইং জুনমাসে, ১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চ সারাদেশে শুরু হয় মুক্তিযুদ্ধ তা শেষ হয়েছিল নয়মাসে। আমি তখন খুবই ছোট, ৮ বছরের অবুঝ শিশু তবুও স্পষ্ট মনে আছে, পাক-হানাদার বাহিনীর গনহত্যা, জ্বালাও পোড়াও ধর্ষণ তা ইতিহাসেও লেখা রয়েছে। তার প্রমাণ আমিও একজন, মুক্তিযুদ্ধ চলছিল যখন গিয়েছিলাম বাবার সাথে বাজারে, বেচাকেনা [ বিস্তারিত ]
আমাদের দেশে ওঝা, বৈদ্য কবিরাজ, ফকির, সাধু, সন্যাসীর অভাব নেই। আমরা যতটা ধর্মভীরু, তারচেয়ে বেশি কুসংস্কারাচ্ছন্ন ঝাড়ফুঁকে বিশ্বাসী। তাই গ্রামে, গঞ্জে, হাটে বাজারে, শহরে, বন্দরের আনাচে-কানাচে, রাস্তাঘাটে, ফুটপাতে সবখানেই এসব ওঝা, বৈদ্য আর ফকির সাধুদের আনাগোনা চোখে পড়ে। শুধু রাস্তাঘাটে আর আনাচে-কানাচেতেই নয়, এঁরা জায়গায় জাগায় স্থায়ীভাবে লালরঙের পাকড় দিয়ে তৈরি এক বিশেষ ধরনের পতাকা [ বিস্তারিত ]

বেশি বুদ্ধি কুঁকড়ি-মুকড়ি

নিতাই বাবু ২৭ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, ০৭:১২:২২অপরাহ্ন গল্প ২৫ মন্তব্য
একজন সরকারি চাকরিজীবীর সন্তান বলতে একটি ছেলেই ছিলো । একটি মেয়ের জন্য মহান সৃষ্টিকর্তার দরবারে অনেক বাসনা করেছিল, কিন্তু মেয়ে আর তাঁদের ভাগ্যে জোটেনি। বৃদ্ধ বয়সে চাকরিজীবী লোকটা মারা গেলো। মৃতব্যক্তির একমাত্র ছেলে ওয়ারিশ সূত্রে তাঁর স্থাবর অস্থাবর টাকা-পয়সা সম্পত্তির মালিক হলো। ছেলেটা তাঁদের গ্রামের বাড়ির জমিজমার দলিলপত্র বুঝে নিলো। সরকারি চাকরিজীবী লোকটা মারা যাওয়ার [ বিস্তারিত ]

বাড়ছে তো বাড়ছেই

নিতাই বাবু ২৬ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ০৯:৪৩:৩৮পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩২ মন্তব্য
আমাদের দেশে হুড়হুড় করে সবকিছুই বাড়ছে! মানুষ বাড়ছে, বসতি বাড়ছে, গ্যাসের দাম বাড়ছে, বিদ্যুতের বাম বাড়ছে, ঘুষ বাড়ছে, ঘুষখোর বাড়ছে কর্মসংস্থান বাড়ছে, বেকার বাড়ছে, বেকারত্ব বাড়ছে। রাস্তাঘাট বাড়ছে, ব্রিজ বাড়ছে, যানবাহন বাড়ছে, যানজট বাড়ছে, চাঁদাবাজি বাড়ছে, দুর্ঘটনা বাড়ছে, আহাজারি বাড়ছে, কান্না বাড়ছে, শোক বাড়ছে, দুর্দশা বাড়ছে, ক্ষোভ বাড়ছে, বিক্ষোভ বাড়ছে। স্কুল বাড়ছে, কলেজ বাড়ছে, শিক্ষার [ বিস্তারিত ]

ডাক্তার কি সত্যিই সেবক?

নিতাই বাবু ২৫ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার, ১১:৫৫:৫৯পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৭ মন্তব্য
রুগী: ডাক্তার বাবু আছেননিও দোয়ানে আম্নে? ডা: কি অইছে আম্নের, না কইলে বুঝি ক্যামনে! রুগী: কইতাছি তাত্তাড়ি কইরা আহেন এট্টু সামনে। ডা: আইছি আমি, এলা কন সমস্যাডা কোনানে? রুগী: আমার শৈলডা খালি কাঁপে, মাথাডাও ঘুরে! ডা: ওহ্ বুজ্জি বুজ্জি, আম্নেরে জ্বরে ধরছে জ্বরে! রুগী: মনে অয় জ্বরের লগে এট্টু এট্টু ঠান্ডাও আছে! ডা: তাইলে ত [ বিস্তারিত ]

বস্তি আবিস্কার

নিতাই বাবু ২৩ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ০৬:৪২:৫২অপরাহ্ন কবিতা ২৩ মন্তব্য
দিন শেষে রাত। চাঁদের সাথে তারাগুলো হাসে। পাখিরা ঘুমে থাকে বিভোর। জেগে থাকে চিরদুখী। দুখীর চোখে ঘুম নেই! ভাবে কখন হবে রাত ভোর। পুরো ঘর অন্ধকার আলোহীন। কোনও সাড়াশব্দ নেই। শব্দ শুধু ঝিঁঝিঁপোকার। গ্রাম পুলিশের হাক ডাক। শিয়ালের হুয়াক্কা হুয়া। সাথে ঘেউঘেউ পালিত কুকুরটার। অশান্ত মন, করে বনবন। রাত পোহাবে কখন। সকালে কর্মে জুটবে আহার। [ বিস্তারিত ]
সোনেলায় চলছিল হেমন্তের প্রতিযোগিতা, অনেকে লিখেছিল গল্প, কেউ কবিতা। কেউ তুলে ধরেছিল নিজের অনুভূতি, আবার কেউ লিখেছিল নবান্নের স্মৃতি। লিখতে তো আমি পারি-ই-না! তারপরও লিখেছিলাম “হেমন্ত বন্দনা– শহরে হেমন্তের গন্ধ নেই” পোস্টখানা কিন্তু নিজেরই পছন্দ হয়েছিল না। হেমন্তের শেষে প্রতিযোগিতাও শেষ, প্রতিযোগিতার রেজাল্ট এলো সর্বশেষ। একজন হয়েছে প্রথম, একজন দ্বিতীয়, প্রতিযোগিতায় আরেকজন হয়েছে তৃতীয়। এরমধ্যে [ বিস্তারিত ]

নদী দূষণ নিয়ে ভাবনা

নিতাই বাবু ২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, ০৭:৫৩:৪৯অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩২ মন্তব্য
নদীমাতৃক বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার চারদিকে থাকা শীতলক্ষ্যা, বুড়িগঙ্গা, তুরাগ, ধলেশ্বরী নদীগুলো ছিল আমাদের গর্ব।  বর্তমানে কিছু অসাধু শিল্পপতিরা আমাদের গর্ব করেছে খর্ব! –শীতলক্ষ্যা, বুড়িগঙ্গা, তুরাগ, ধলেশ্বরী এগুলো কি নদী? – না না, দেখে মনে হয় না! –তাহলে এগুলো কী? –এগুলো মনে হয় নর্দমা! পানিতে মিশ্রিত বিষাক্ত কেমিক্যালের কারণে পানি পান করা যায় না! বর্তমানে নদীগুলো [ বিস্তারিত ]

ইঁটকাঠের শহর

নিতাই বাবু ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ০৮:৫৫:৫৫পূর্বাহ্ন কবিতা ২৭ মন্তব্য
ইঁটের গাঁথুনিতে গড়া শহর তপ্ত পিচঢালা পথ, চারদিক ঘেরা বহুতল ভবন যান্ত্রিক শব্দে জনপথ! পথের ধারে ময়লার স্তুপ বাতাসে বয়ে দুর্গন্ধ, বৃষ্টিতে ভিজে দূষিত পরিবেশ শহরবাসীর দম বন্ধ! চৈত্রের কাঠফাটা রোদের তাপ পথে উড়ে ধূলিকণা দূষিত পরিবেশ দূষিত বায়ুতে শহর পরিপূর্ণ ষোলআনা। ইঁট- কাঠে গড়া শহরে আজ নদীর কান্না শুনি, কাঁদে গাছগাছালি কাঁদে পাখি শুনি [ বিস্তারিত ]

বাসর ঘরে কান্নার শব্দ

নিতাই বাবু ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ০১:১৭:৪৯পূর্বাহ্ন গল্প ৩২ মন্তব্য
রাত প্রায় এগারোটার কাছাকাছি। আর কিছুক্ষণ পরই ঘড়ির ঘণ্টার কাটা এগারোটার বরাবর হলেই, দেওয়াল ঘড়িতে রাত এগারোটার এলার্ম বেজে ওঠবে। অথচ নিত্য বাবুর ঘরে একটা সিগারেটও নেই। অন্যান্য দিন নিজের পকেট ছাড়াও ঘরে চার-পাঁচটা  সিগারেট সবসময় মজুদ থাকতো। কিন্তু আজ নেই। নিত্য বাবু অফিস থেকে আসতে মনের ভুলেই নিজের পকেটে আর হাত দেয়নি। তাই আজকে [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য