দ্বিচারিণী !

সুপায়ন বড়ুয়া ৩ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ০১:০৪:৫৬অপরাহ্ন কবিতা ২৩ মন্তব্য

সকাল বেলার সূর্যটাকে মিষ্টি মধুর লাগে
রাতের আঁধার কাটিয়ে দিয়ে আশার আলো জাগে
অগ্নি পিণ্ডে নিজেই জ্বলে উষ্ণতা দেয় আগে
আরাম প্রিয় শরীরটাকে জাগায় অনুরাগে।

বিশ্বটাকে আপন ভাবে সূর্য পাশে বলে
আলোর ভুবন ভরিয়ে তোলে সূর্য আছে বলে।
কালো মেঘ বিষিয়ে তোলে সময় সুযোগ পেলে
সেই আঁধারটা ও কেটে যায় সূর্য তুমি এলে।

দ্বিপ্রহরে সূর্য তুমি মাথার উপর আসো
রোদ বৃষ্টির ঝর্ণা ধারায় ভাসিয়ে দিয়ে বসো।
দৃষ্টি নন্দন পৃথিবীটাকে উজাড় করে ভাসে
তোমার মতন আর কেউ নেই রূপ লাবণ্যে হাসে।

সুখ স্বপ্নে বিভোর হয়ে তোমার কাছে আসে
সব কিছু তাই বিলিয়ে দেয় নিত্য অবশেষে।
তোমার বুকে উষ্ণতাকে আপন করে নেয়
সুখ সাগরে ভাসিয়ে গিয়ে স্বপ্ন জ্বালে ভাসে।

বিকেল বেলা সূর্য তুমি যখন হেলিয়ে পড়ো
সৌর্য্য বীর্য প্রতাপ তোমার ক্ষয়িষ্ণুতে হারো।
আঁধার যখন ঘনিয়ে আসে সূর্য ডুবার আগে
সবকিছু তুমি হারিয়ে বসো দ্বিচারিণী রাগে।

স্নিগ্ধ শীতল মিষ্টি আলোয় নতুন শরীর জাগে
মন পবনে নতুন আশায় রূপ পাল্টায় আগে।
সন্ধ্যা হলে চাঁদ মামা মুচকি হেসে উঠে
আলো আঁধারের নতুন খেলায় তিনি মেতে উঠে।

বিবস্ত্র বসনা দ্বিচারিণী চন্দ্র স্নানে ভাসে
নতুন স্বাধে নিবিড় খেলায় তৃপ্তির হাসি হাসে।
রাত গভীরে চাঁদের আলো মেঘ আড়ালে ডুবে
তুষার পাতে দ্বিচারিণী হিম সাগরে ভাসে।

ছবি নেট থেকে।

৩৩২জন ৩৮জন
0 Shares

২৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য