শামীম চৌধুরী

প্রকৃতিকে ভালোবাসি। প্রকৃতির সাথে থাকতে ভালো লাগে। প্রকৃতির সব বণ্যপ্রাণী ও পাখি যেন আমার নিজ সন্তান। শখের ছবিয়াল হয়ে ওদের পিছু ছুটে বেড়াই। তাই-
আমি এই সুন্দর প্রকৃতিকে ভালোবাসি
তুমিও ভালোবাসো।

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ২ বছর ৩ মাস ১৪ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ১৪৯টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ২৭৫২টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ৩২৯৮টি

পরিবেশ রাখে দূষণমুক্ত।

শামীম চৌধুরী ১২ মে ২০২১, বুধবার, ০৮:৫৩:৩৮অপরাহ্ন পরিবেশ ১২ মন্তব্য
উপকূল বা সৈকতের পাখি খোঁজার নেশায় নিঝুমদ্বীপের দমার চরে নৌকায় ঘুরছি। হরেক প্রজাতির সৈকতের পাখির দেখা পেলাম। মূলত এবারের সফর ছিলো Indian skimmer বা পানিকাটা পাখির ছবি তোলার জন্য। দমার চরে পাখির ছবি তুলে বিরবিরিয়া চরের দিকে ছুটলাম। তখন নদীতে ভাটা চলছে। ভাটায় পানি কমায় নদীটি একটি সরু খালে পরিণত হয়েছে। এরই মধ্যে কয়েক প্রজাতির [ বিস্তারিত ]

“একবার না পারিলে দেখো শতবার”।

শামীম চৌধুরী ২৭ এপ্রিল ২০২১, মঙ্গলবার, ০৫:২৬:৩৫অপরাহ্ন পরিবেশ ১০ মন্তব্য
ছোট বেলায় কোন এক বইয়ে পড়েছিলাম, একটি পিঁপড়া তার দেহের ওজনের চেয় বেশী ওজনের খাদ্যবস্তু নিয়ে উপরের দিকে উঠার চেষ্টা করছে। যতবার সে উঠার চেষ্টা করছে ততবারই পড়ে যাচ্ছে। এভাবে উঠতে উঠতে শতবারের মাথায় সে সফল হয়েছিলো। গল্পের শেষাংশে লেখা ছিলো- “একবার না পারিলে দেখো শতবার”।   গত বছরের নভেম্বর মাস থেকে এ বছরের মার্চ [ বিস্তারিত ]
দয়া করে আমার লেখাটি কেউ হালকা ভাবে নিয়ে রসাত্মক মন্তব্য করবেন না। আপনাদের গঠনমূলক মন্তব্য যে কাউকে সংশোধন হবার সুযোগ করে দিতে পারে। আমরা দাম্পত্য জীবন শুরু করার পরই সন্তানের আশা করি। নিজের স্ত্রীর কোলে সন্তান আসার পর নিজেদের বাবা-মা হওয়ার পরিপূর্ণ স্বাদ গ্রহন করি। আমাদের আদরের সন্তানের লালন-পালন থেকে শুরু করে নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত [ বিস্তারিত ]

নগরে পাকড়া খঞ্জন

শামীম চৌধুরী ২৪ মার্চ ২০২১, বুধবার, ০৫:৫০:২৭অপরাহ্ন পরিবেশ ১৩ মন্তব্য
প্রতি বছরই নিয়ম করে লাল মুনিয়ার ছবি তুলতে উত্তরা যেতাম। বরাবরই সঙ্গী ছিল বণ্যপ্রাণী গবেষক ও আলোকচিত্রী আদনান আজাদ আসিফ। ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসে আদনানের সঙ্গে উত্তরায় ছবি তুলছিলাম। এরই মধ্যে আমাদের সঙ্গে যোগ দেয় মডেল, ফটোগ্রাফার আরিফ আহম্মেদ ও বার্ড ফটোগ্রাফার চপল ভাই। ছবি তোলার ফাঁকে আমরা সবাই চা-পানের জন্য একটি টঙের দোকানে গেলাম। [ বিস্তারিত ]
ইঞ্জিনচালিত দামি ও বিলাসবহুল গাড়ির ভিড়ে রাজধানীর বাসিন্দাদের কাছে রিকশার কদর একটুও কমেনি। মধ্যবিত্তদের বাহন বলা হলেও উচ্চবিত্তরাও দামি গাড়ি ছেড়ে মাঝে-মধ্যে রিকশাকেই বেছে নেন স্বল্প দূরত্বের ভ্রমণের জন্য। আর যাত্রীদের ভ্রমণের আনন্দে নতুন মাত্রা যোগ করতে রিকশার শরীরে একসময় যুক্ত করা হতো বাহারি রঙের পেইন্টিং। শিল্পকর্মের এক ভ্রাম্যমাণ গ্যালারি হয়েই পথে-প্রান্তরে অলি-গলিতে ঘুরে বেড়াত [ বিস্তারিত ]
‘আজো কাঁদে কাননে কোয়েলিয়া, চম্পা কুঞ্জে আজি গুঞ্জে ভ্রমরা কুহরিছে পাপিয়া।’ আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম জীবদ্দশায় বহু গান লিখেছেন। তাঁর গানের কথায় মাধুর্য তুলে ধরতে বহু পাখির নাম উল্লেখ করেছেন। সেই সব পাখিদের মধ্যে পাপিয়া নামটি বহু গানে ব্যবহারও করেছেন। বহুদিন ধরেই চেষ্টায় ছিলাম কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘পাপিয়া’ পাখির ছবি তোলার জন্য। [ বিস্তারিত ]
ওয়াইল্ড ফটোগ্রাফির একটি অংশ হচ্ছে বার্ড ফটোগ্রাফি। যেমন শ্রমনির্ভর তেমনি ব্যয়বহুল। বার্ড ফটোগ্রাফারকে ছবি তোলার  জন্য দেশের এক প্রান্ত থেকে অপরপ্রান্তে ছুটে বেড়াতে হয়। যেখানেই নতুন পাখির সন্ধান পেয়েছি ছুটে গিয়েছি; একা কিংবা বন্ধুদের নিয়ে। দামি ক্যামেরা আর লেন্স না হলে পশুপাখির ছবি তোলা সম্ভব নয়। কারণ পাখি মানুষের ভাষা বোঝে না। তারা হাতের কাছে [ বিস্তারিত ]
নীলশির; হাঁস প্রজাতির এই পাখি প্রথম দেখি ২০১৭ সালে রাজশাহীর পদ্মার চরে। তখন ছবি তুলতে পারিনি। পিয়ং হাঁসের ঝাঁকে লুকিয়ে ছিল। তাও আবার অনেকটাই দূরে! ক্যামেরার ভিউ ফাইন্ডারে খুঁজতে খুঁজতে কোথায় যে হারিয়ে গেল আর খুঁজে পেলাম না। নীলশির দেখার পর থেকেই আমি অভিভূত। জানতে পারলাম টাঙ্গুয়ার হাওরে প্রতি বছর দেখা যায়। পরের বছর হাওরে [ বিস্তারিত ]
শাবাজ ট্রিটি’র জন্য বহু দিন অপেক্ষা করতে হয়েছে। পাখিটি মাঝে মাঝে রাজশাহীতে দেখা যায়। কয়েকবার সেখানে গিয়েও পাখিটির দেখা পাইনি। তবে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় বেশ দেখা যায়। গত বছর তেঁতুলিয়া যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। কিন্তু কোভিড-১৯ এর জন্য যাওয়া হয়নি। অপেক্ষায় ছিলাম যে কোনো একদিন পাখিটির দেখা পাবো। এ বছর জানুয়ারি মাসের ২৪ তারিখ হাঁস জাতীয় পাখির [ বিস্তারিত ]

হঠাৎ পেলাম নীলপরির দেখা

শামীম চৌধুরী ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২১, শুক্রবার, ০৭:৫৯:৪৬অপরাহ্ন পরিবেশ ৯ মন্তব্য
করোনার কারণে দীর্ঘ নয়মাস ফটোগ্রাফি বন্ধ ছিল। দীর্ঘদিন পর অতি প্রিয় সবুজবন সাতছড়ি থেকে আবার বার্ড ফটোগ্রাফি শুরু হলো। কয়েকদিন আগে ঢাকা থেকে খুব ভোরে রওনা হয়ে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে গিয়েছিলাম। তখনও কুয়াশার আবরণ ভেদ করে সূর্যের আলোকচ্ছটা নেমে আসেনি। একটু আগেই ফজরের নামাজ শেষে মুসল্লীরা রাস্তায় নেমেছেন। আমিও একটি সিএনজি নিয়ে হবিগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড থেকে [ বিস্তারিত ]

পাখির নাম হট্টিমা

শামীম চৌধুরী ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২১, বুধবার, ০৫:৪৮:৫৯অপরাহ্ন পরিবেশ ২০ মন্তব্য
নামে কি আসে যায়! অঞ্চলভেদে কোথাও খরমা, কোথাও ছোট হাঁটুভাঙ্গা আবার কেউ কেউ তাকে চেনেন হট্টিমা নামে। অবশ্য পাখিটি বগুডি বা ছোট শিলাবাটান নামেও পরিচিত। আজ লিখছি সেই পাখি নিয়েই। বাল্যবন্ধু বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমির কর্মকর্তা আনসার উদ্দিন খান পাঠানের সঙ্গ নিয়ে প্রায় দেড় বছর পর গত ২৫ ডিসেম্বর রাজশাহীর পদ্মার চরে গিয়েছিলাম। আমাদের সঙ্গে রাজশাহী [ বিস্তারিত ]

তিন রঙের পাখি (শেষ পর্ব)

শামীম চৌধুরী ৪ ডিসেম্বর ২০২০, শুক্রবার, ০৮:০৪:৫৫অপরাহ্ন পরিবেশ ১২ মন্তব্য
আগের পর্বের লিঙ্কঃ সাদা-কোমরের পাখি (পর্ব-৫) পর্ব-৬ ঢাকার আফতাব নগরে সেই সময় ভিতরের অনেকটা এলাকা জুড়ে কাঁশবনের প্রাধান্য ছিল। ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে অনুজ ফটোগ্রাফার জাহিদের অনুরোধে প্রথম গিয়েছিলাম। তারপর আফতাব নগরে বহুবার যাওয়া হয়েছে, কিন্তু ফটোগ্রাফীর জন্য আর যাওয়া হয়নি। সেদিন আবহাওয়া অনুকুলে না থাকায় আমরা স্পটটি ঘুরে ঘুরে দেখছিলাম। তার মূলঃকারন ছিলো পাখির [ বিস্তারিত ]

সাদা-কোমরের পাখি (পর্ব-৫)

শামীম চৌধুরী ১ ডিসেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার, ০৬:১২:৩৮অপরাহ্ন পরিবেশ ১৭ মন্তব্য
আগের পর্বের লিঙ্কঃ চাঁদির মতন ঠোঁট (পর্ব-৪) পর্ব- ৫ বার্ড ফটোগ্রাফীর শুরু থেকেই দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে পাখির ছবির জন্য যেতে হয়েছে। যেখানেই নতুন পাখির তথ্য পেয়েছি সেখানেই একা বা কাউকে সঙ্গী করে ছুটে গিয়েছি। শুধুমাত্র নির্দিষ্ট একটি পাখির ছবি তোলার জন্য। সত্যিকার অর্থে ওয়াইল্ডলাইফ ফটোগ্রাফী খুবই ব্যায়বহুল একটি শিল্প। দামী ক্যামেরা ও লেন্স না হলে [ বিস্তারিত ]

চাঁদির মতন ঠোঁট (পর্ব-৪)

শামীম চৌধুরী ২৮ নভেম্বর ২০২০, শনিবার, ০৬:১৭:৫০অপরাহ্ন পরিবেশ ২৩ মন্তব্য
আগের পর্বের লিংকঃ বিপদমুক্ত হলেও দূর্লভ পাখি (পর্ব-৩) পর্ব-৪ ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের আড়ারকুল গ্রামে গিয়েছিলাম মূলতঃ দেশী বাবুই পাখির ছবি তোলার জন্য। সেই সময় বাবুই পাখির প্রজননকাল ছিলো। তাই এত বড় শিল্পীকরের বাসা সহ ছবি তোলার আগ্রহ জেগেছিলো । সময়টা ছিলো সম্ভবতঃ ২০০৯ সালের অক্টোবর মাস। আমরা আড়াকুল গ্রামে এক গৃহস্থ্যের বাড়িতে যাবো। সেখানেই তালগাছে [ বিস্তারিত ]
আগের পর্বের লিঙ্কঃ পোষা পাখি তিলা মুনিয়া (২য়-পর্ব) পর্ব-৩ উত্তরায় দিয়াবাড়িতে লালমুনিয়ার খোঁজে বের হলাম। সময়টা ছিলো ২০১৪ সালের অক্টোবর মাস। তখন লালমুনিয়ার দেখা না পেলেও যে পাখিটির দেখা পেয়েছিলাম সেটাও আমার প্রথম দেখা ও ছবি তোলা। এই পাখিটির ছবি তুলতে পারায় লালমুনিয়া না পাওয়ার কষ্টটা ভুলে যাই। কারন যে কোন বার্ড ফটোগ্রাফারের জন্য নতুন [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ