বাংলাদেশ এখন রোল মডেল

আরজু মুক্তা ১৯ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০৫:৩০:৩২অপরাহ্ন এদেশ ৩২ মন্তব্য

বাংলাদেশকে শোষণ করে যারা বড় হতে চেয়েছিলো। যারা আমাদেরকে শৃঙ্খলিত করে নিজেরা মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে চেয়েছিলো। যারা আমাদের বুদ্ধিজীবিদের হত্যা করে পঙ্গু করতে চেয়েছিলো। সেই পাকিস্তান এখন বাংলাদেশ হতে চায়! তারা ভুলে গিয়েছিলো বাঘের পেট থেকে বাঘের বাচ্চাই বের হয়।

“The Nation ” পত্রিকার একটি কলাম পাকিস্তানকে চিন্তায় ফেলে  দেয়। শিরোনাম ছিলো”The Bangladesh Model! ” এমনকি পাকিস্তানের বিভিন্ন গণমাধ্যমে টকশোতে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দু হয় বাংলাদেশ। দাবি ওঠে, পাকিস্তানকে বাংলাদেশের মতো বানানোর। কারন হলো: পাকিস্তান প্রধান ১০সূচকের সবগুলোতেই পিছিয়ে।

সূচক              বাংলাদেশ         পাকিস্তান

জিডিপি           ৮.১৫%              ৫.২০%

বেকার হার      ৬.০০%               ১৩.২৫%

ঋণ                  ২৭.৯০%             ৭২.৫০%

গড় আয়ু           ৭৩.৪                    ৬৮.১

শিশুমৃত্যু ( হাজারে) ৩১.৭।            ৫২.১

বিশেষজ্ঞরা উদাহরণ হিসেবে, যে কয়টি দেশের নাম আনেন ; তার প্রধান আসনে বাংলাদেশ। একই ধর্ম, চিন্তাভাবনা এবং জীবনাচরণে মিল থেকেও পাকিস্তান অনেক পিছনে। শুধু জনসংখ্যা নিয়ণ্ত্রণ নয়। অর্থনীতি, মানবিক উন্নয়ন সূচক, সামাজিক উন্নয়ন, নারীর ক্ষমতায়ন ইত্যাদি সবক্ষেত্রে বাংলাদেশ অগ্রগতি লাভ করেছে। মেয়েদের স্কুলে পড়ার হার, সক্ষম দম্পতির জন্ম নিয়ণ্ত্রণ ব্যবস্থা গ্রহণের হার ইত্যাদি সামাজিক সূচকে ভারতকে পিছনে ফেলেছে বাংলাদেশ।

পাকিস্তানের অনেকেই বলছে, যে দেশটা আমাদের সাথে ছিলো; যাদের সাথে আমরা এতো অন্যায় করেছি। তারা এতোটাই ভালো করছে। এখন সাধারণ লোকদের সাথে আলাপ করলেই দেখা যাবে, যুদ্ধের সময় বাংলাদেশের সাথে তারা যে আচরণ করেছিলো তা নিষ্ঠুরতম ছিলো। অথচ যুদ্ধের পর পর এক বিবৃতিতে পাকিস্তান বলেছিলো,” বাংলাদেশ কখনো মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারবেনা এবং ফিরে আসবে পাকিস্তানের কাছে। হায়রে, “Pakistan proposes but Allah disposes.” তবে, পাকিস্তানের একটি অংশ মনে করে। ঐ পরাজয় পাকিস্তানের জন্য একটা শিক্ষা।

আজ বাংলাদেশ তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে নিজেদের বের করে আনতে সক্ষম হয়েছে। বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রা রিজার্ভ এর পরিমাণ পাকিস্তানের থেকে চারগুণ বেশি। এই প্রবৃদ্ধির বেশিরভাগই রপ্তানি নির্ভর যা ২০১৮ তে এসে দাঁড়িয়েছে বছরে সাড়ে তিন হাজার মার্কিন ডলারেরও বেশি। পাকিস্তানের আর এক গণমাধ্যম ট্রিবিউন সরাসরি সম্পাদকীয়তে প্রকাশ করেছে, তুলনামূলক সম্পদশালী পাকিস্তানকে পেছনে ফেলে যেভাবে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে তা আরও বিস্ময়কর। বাংলাদেশে বিভিন্ন সংস্কৃতি এবং উদারমনা পরিবেশ বিরাজমান। যা পাকিস্তান এর জন্য শিক্ষণীয়। স্বাস্থ্যখাত ও টিকাদান কর্মসূচির ফলে বাংলাদেশে শিশুমৃত্যু হার অনেক কম। মানুষের গড় আয়ুও বেশি। আই এল ও এর সাম্প্রতিক তথ্যানুসারে পাকিস্তানের চেয়ে বাংলাদেশের নারীরা কাজে অনেকাংশে এগিয়ে।

সর্বশেষ,  পাকিস্তানকে পিছনে ফেলে জিডিপির আকারের ভিত্তিতে বৃহৎ অর্থনীতি দেশের তালিকায় ৪১ তম অবস্থানে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। ২০২৩ সাল নাগাদ শীর্ষ অর্থনীতির দেশগুলোর তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৩৬ তম হবে। (সুত্র:World Economic Table)

পাকিস্তানীরা আজ অবাক তাকিয়ে আছে আর আমরা বলছি,

” জ্বলে পুড়ে মরে ছারখার

তবু মাথা নোয়াবার নয়!”

৪১৯জন ২৩০জন
105 Shares

৩২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ