আমি নি:শ্বাস নিতে চাই !

সুপায়ন বড়ুয়া ৪ জুন ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০১:৫৬:৫৩অপরাহ্ন কবিতা ২৪ মন্তব্য

জর্জ ফ্লয়েড,
তুমি যখন একটু শ্বাস নেয়ার জন্য আকুতি জানাচ্ছিলে
সারাবিশ্ব তখন থমকে দাঁড়ায়
এই নশ্বর পৃথিবীতে উন্মুক্ত বিশ্বে জন্মাবধি যে শ্বাস নেয়ার অধিকার
করোনায় বিধস্ত মানুষ যখন একটু শ্বাস নেয়ার জন্য
একটি ভ্যান্টিলেটর কিংবা আইসিওর জন্য হাসপাতালের বারান্দায় ঘুরে মরে।

কোন বর্ণবাদী পুলিশ হাঁটুর নীচে পিষ্টে তোমার শ্বাস রোধ করে।
তোমার নি:শ্বাস নেয়ার ফরিয়াদ তাঁদের কর্ণকূহুরে প্রবেশ করে না।
কারণ তারা মানুষ চিনে না
তারা বর্ণবাদে আসক্ত,
তারা তোমার মনের ছেয়ে রঙকে বাঁচার শর্ত মনে করে

জর্জ ফ্লয়েড,
তুমি একটু শ্বাস নেয়ার জন্য যখন আহত পাখির মতো ছটপট করছিলে
আমার পোষা পাখিটা ডানা ঝাপটিয়ে মরে
তোমার নিষ্পাপ দেহখানি যখন ঐ কাপুরুষের পায়ের নীচে পিষ্ট হয়
তখন আমার সদ্যজাত শিশুটি আর্তনাদ করে।
চাপা পড়ে যায় মানবতার শেষ চিন্হটুকু।

জর্জ ফ্লয়েড,
তোমার নিথর দেহখানি যখন কালো পিচঢালা পথে মিশে যায়
তপ্ত আগুনে দাউ দাউ করে জ্বলে উঠে কালো বিটুমিনের জলন্ত পাথরগুলি।
আঘাতে আঘাতে পর্যুদস্ত করে সাদা কাপড়ে ঢাকা ঐ ক্ষমতার মসনদ খানি।
গর্জে উঠে সারাদেশ ,কেঁপে উঠে ক্ষমতার তখততাউস
টেক্সাসে জ্বলে উঠা দাবানল যুক্তরাষ্ট থেকে আজ ছড়িয়ে পড়ে সারা বিশ্ব ময়।

জর্জ ফ্লয়েড,
তোমার ঘাড় আর দেহখানি যখন লাইসেন্স ধারী
সাদা পুলিশের পায়ের তলায় পিষ্ট হয়
তখন আধুনিক সভ্যতাকে ব্যঙ্গ করে
আভিজাত্য আর দাম্ভিকতাকে ভেঙে দেয় তছনছ করে
লজ্জা আর ঘৃণায় নত হয়ে যায় স্ট্যাচু অব লিবার্টি।

জর্জ ফ্লয়েড
তোমার দুচোখ যখন এ পৃথিবীর বুকে একজন মানুষ খোঁজে
তখন অন্ধ হয়ে যায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন।
তোমার নিস্পলক চোখে যখন অন্ধকার নামে
তখন দিবানিদ্রায় বিভোর থাকে এমেনেষ্টি ইন্টারন্যাশনাল।
তোমার আত্ন চিৎকারে যখন খোদার মসনদ কাঁপে
ঐ জাতিসংঘ, মানব অধিকার থোকা থোকা নাম
উট পাখির মত মুখ থুবড়ে পড়ে বালির মরু সাগরে।

আপনারা কেউ কি আছেন এই নশ্বর পৃথিবীতে
ঘৃণার প্রাচীরে গড়ে উঠা দেয়াল খানি ভেঙে
দেবেন উন্মুক্ত করে ?
আমরা আজ একটু নি:শ্বাস নিতে চাই এই খোলা প্রান্তরে।

৩৬৩জন ২৪জন
40 Shares

২৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য