‘ দম্পতিরা যেদিন তাঁদের প্রেমোপাখ্যান ভুলে যাবে
যখন কেউ কাউকে কাছে আসার গল্প শুনাবে না
আমরা সেদিন ভালোবাসাহীন মরুভূমিতে যাবো।

খুনসুটিতে ভরা ঘুমোপাখ্যান খুলে পড়বো
মন মাতানো চোখ ধাঁধানো আলোতে
শান্তি সমৃদ্ধি উরুতে মাথা রেখে-
স্ব স্ব মুখ নিঃসৃত বাক্যদানে ব্যাকরণে ডুবে যাবো। ‘ নাজমুল হুদ।

‘ অপ্সরীর ঘুমোপাখ্যান ‘  শিরোনামের কবিতা দিয়ে প্রথম পদার্পণ করেছিলেন ব্লগার নাজমুল হুদা। বয়সে তরুন এ ব্লগার প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাসী এবং জীবনবোধ সম্পন্ন যুবক।

তাঁর ফেসবুক প্রোফাইলে কিছুটা ঝলক রেখেছেন-‘ আমার পরাবাস্তব বোধের আয়নায় আমি; এক দুগ্ধজাত শিশু
আপনি গেঁথে নেন আপনার মগজে।’ মারাত্মক! সত্যবাদীতায় তাঁর কুন্ঠা , ভয়, দ্বিধা, লাজ কোনোটাই তেমন কাজ করেনা।

নাজমুল তাঁর লেখনীতে প্রচণ্ড মুন্সিয়ানার ছাপ রেখে চলেছেন শুরু থেকেই। যা থেকে বোঝা যায় ভীষণ পড়ুয়া মানুষ তিনি। তাঁর বিচরন এ যাবৎ শুধু মাত্র কবিতা কেন্দ্রিক।   সন্মান তৃতীয় বর্ষে পড়াশুনা নিয়ে খুবই ব্যস্ত থাকেন বলে ব্লগে নিয়মিত সময় দিতে পারেন না।

কোনো এক পোষ্ট মন্তব্যে আমাকে বড় আপু বলে সম্বোধন করায় আমি অবাক হয়েছিলাম।  বলেছিলাম, ‘আমার সব ছোটো ভাই বোনরা কিন্তু আমাকে বড় আপু বলে ডাকে! আপনি জানলেন কি করে?’ সেদিন থেকে নাজমুল আমাকে বড় আপু বলেই ডেকে আসছে।

পরাবাস্তববাদী মানুষেরা সাধারনত জীবন দেখে ভিন্ন চোখে। পলিটিক্যাল ভিউ যেখানে নাজমুলের ‘জাগরনের ইচ্ছা’ সেখানে বলতেই পারি আশাবাদী মানুষের কাতারে তাঁর অবস্থান। এবং তিনি এমনও ভাবেন’ বয়স যাই হোক, চিন্তাটা যেন আশি বছরের যুবকের মত হয়’।  তাঁর চিন্তাধারা অত্যন্ত সুস্পষ্ট। তিনি জানেন জীবনের লক্ষ কি হওয়া উচিত।

এমন চিন্তাধারা যুবককে স্যালুট জানাই আমার পক্ষ থেকে। আত্মবিশ্বাস নিয়ে এগিয়ে যান সাফল্যের সোপানে। আজ তিনি ‘ সম্পর্ক  ‘ শিরোনামের কবিতা পোষ্ট দিয়ে তাঁর শততম পোষ্টের মাইল ফলক ছুঁয়েছেন । নাজমুল হুদাকে অভিনন্দন তাঁর সততম পোষ্টের জন্য।

নাজমুল হুদার ব্লগ প্রফাইল:
নিবন্ধন করেছেনঃ ১ বছর ৩ মাস ১১ দিন।
মন্তব্য করেছেনঃ ১০০২টি।
মন্তব্য পেয়েছেনঃ ১৬০৪টি।
মন্তব্য করার সংখ্যা দেখে বোঝা যায় তিনি ব্লগে সময় খুব কম দেন। আশা করবো একটু এদিকটা খেয়াল রাখবেন অন্যান্য ব্লগারদের ও আপনার সুচিন্তিত মতামত তাঁদের পোষ্টে পেতে চায় বা চাই।।

নাজমুল হুদার সাফল্যময় জীবনের জন্য অনেক অনেক শুভ কামনা রইলো।

৩৩৭জন ৬১জন
0 Shares

৫৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য