বিরহের চিঠি

আকাশনীলা ১৯ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০৬:১৮:৫১অপরাহ্ন চিঠি ৪১ মন্তব্য

প্রিয় রুদ্রনীল,
তুমি কি ভালো আছো রুদ্রনীল অন্যের আকাশে? ভালোই আছো নিশ্চয়ই। আমি চাই জানো তো তুমি খুব খুব ভালো থাকো। তুষারের মতো শুভ্র আর পুষ্পের মতো রাঙা বউ হয়েছে তোমার। সে নিশ্চয়ই খুব ভালোবাসে তোমাকে, পরমঈশ্বর মানে! তুমি ভালো আছো শুনলে খুব ভালো লাগে আমার।
আমার কথা ছাড়ো, আমি এক রকম অসুখের সুখে বেঁচে আছি। এখন আমার জীবন প্রদীপ একগাদা মেডিসিনের উপর জ্বলছে। একবেলা মেডিসিন নিতে ভুলে গেলে নিভু নিভু করে সে প্রদীপ।

তুমি জানো রুদ্রনীল আজ আমি হার্টের রোগী! ডাক্তার বলেছে আমাকে টেনশন ফ্রী থাকতে হবে। যে কোনো মুহূর্তে যা খুশি হয়ে যেতে পারে। তুমি বলো না রুদ্র আমি কি ইচ্ছে করে টেনশন করি? আমি যে তোমাকে ভুলতে পারি না। তোমাকে ভেবে আমার নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে আসে। অনেক বার ভেবেছি ভুলে যাবো তোমায় কিন্তু পারিনি। আমার কি দোষ বলো, ভালোবাসার যে এতো দহন সে কি আমি জানতাম?

আমার বর্তমান প্রায়শই বলে তোমার কথা। বলে আমি তোমার সাথে থাকলে ভালো থাকতাম। তাহলে নাকি আমার এই অসুখটা করতো না আর তাকে এতো এতো টাকা খরচ করতে হতো না আমার চিকিৎসা। সে কখনো খোটা দেয়নি তোমাকে নিয়ে। আমার জন্য তার রোজগারের সব টাকা শেষ হয়ে যাচ্ছে এটা নিয়েও কিছু বলে না। সত্যিই কি রুদ্র তুমি আমার হলে এ অসুখ হতো না? কি জানি হয়তো হতো না

সতের বছর হয়ে গেছে রুদ্রনীল তবুও সেই ব্যথাটা একটুও উপশম হয়নি। সেই ব্যথার তীব্র যন্ত্রণায় ছটফট করছি প্রতি মুহূর্ত। তোমার ভাই (আমার দুলাভাই) যেদিন আমাকে তোমার থেকে দূরে সরিয়ে দেবার জন্য আমার বিয়ের ব্যবস্থা করেছিলো অন্যের সাথে সেদিন থেকে সেই যে ব্যথা শুরু হলো আর কিছুতেই গেলো না। কি হতো যদি  আমরা একে অন্যের সাথে থাকতাম?
সেদিন তুমি বলেছিলে সব ছেড়ে চলে আসতে কিন্তু আমি পারিনি । আমার পরিবারের  সম্মান নষ্ট করতে পারিনি।

তুমি ভালো আছো এটা ভেবেই একটু শান্তি পেলেও তোমাকে না পাওয়ার যন্ত্রণা সইতে পারছি না। হয়তো কেউই পারে না এ যন্ত্রণা সহ্য করতে।

ইতি
তোমার আকাশ থেকে খসে পড়া একটুখানি নীল

৬৪২জন ৪২৭জন
36 Shares

৪১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ