আলিফের কুনোব্যাঙ দেখা

সুরাইয়া নার্গিস ২৫ জুন ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:৩৪:৪৯পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩৫ মন্তব্য

“আলিফের কুনোব্যাঙ দেখা”

 

ছোটবেলা থেকেই খুব রাগি, জেদি ছিলাম অল্প কষ্টে অভিমান হলেই কান্না করে সারা বাসা বাসায় তুলতাম।

তা চলছো কয়েকঘন্টা

তবে একটু বেশি আদর ভালোবাসা পেলে সব রাগ পানিতে পরিণত হতো।

আমার রাগ,জেদ কমানোর জন্য আব্বু,আম্মু,দাদুমনি বিভিন্ন প্লান করতেন সব সময় যে তা কাজে লাগতো তা না।

তবে কিছু ক্ষেত্রে ওনারা সফল হতেন..

কুনোব্যাঙ জন্মের পর কখনো দেখি নাই, তবে আমি রাগলে দাদুমনি বলতেন রাজকন্যা কেঁদো না বেশি রাগ, জেদ করলে কুনোব্যাঙ এসে নিয়ে যাবে।

আমি তখন খুব ছোট বয়স ৩-৫ হবে। কুনোব্যাঙের কথা শোনলেই আমার ভয় হতো জড়োসড়ো হয়ে দাদুমনির আঁচলে লুকাতাম।

সুযোগটা ভালোই কাজে লাগাতেন তাঁরা,আমি ভাবতাম না জানি কত বড় দৈত্যদানব এই কুনোব্যাঙ আমাকে কোলে করে নিয়ে যাবে।

আমি কান্না না থামালে ধরে আঁচাড় দিবে এই ভয়ে চুপ থাকতাম।

তবে মনের গহীনে এই কুনোব্যাঙ দেখার একটা ইচ্ছা ছিলো, আল্লাহ্ হয়ত তাঁর বাদ্ধা কোন আশা অপূর্ন রাখেন না। গ্রামে

ছোটচাচ্চুর শ্বশুরবাড়ীতে বেড়াতে গেলাম, হঠাৎ বড় আপ্পি রান্না ঘর থেকে চিৎকার করে উঠল ওরে বাবা ব্যাঙ। পাশের রুম থেকে ব্যাঙ শুনে আমি হাসলাম বড় আপ্পি দুই বাচ্চার মা আর ব্যাঙ দেখে ভয় পাচ্ছো 😂। আপ্পি রাগি গলায় বললো এটা ব্যাঙ না কুনোব্যাঙ এবার আমায় ধরে কে চেঁচিয়ে সারা বাড়ি মাথায় তুলে নিলাম।

আব্বু,আম্মু বাঁচাও কুনোব্যাঙ আমাকে তুলে নিয়ে যাবে, তারপর সোফায় মাথায় বসে ভয়ে কান্না শুরু করলাম কেউ আমার কান্না থামাতে পারছিলো।

বড় আপ্পি আব্বুকে ফোন দিলে, আব্বু অনেক কষ্টে আমাকে শান্ত করলেন।

বললেন রাজকন্যা কুনোব্যাঙ কোন দৈত্যদানব না এটা এক জাতের “ব্যাঙ” এরা বেশি ভাগ সময় মাটির বা ঘরের কোণে বসবাস করে। তুমি বড় আপ্পির সাথে যাও দেখে এসো।

আমি আব্বু বিশ্বাস করি তাই পাশের রুমে কুনোব্যাঙ দেখলে গেলাম।

ওরে বাবা আমি কুনোব্যাঙ দেখে তো অবাক 😱😱

এ আমাকে কি কোলে তুলে নিবে???

সুযোগ পেলে এ তো আমার কোলে চড়ে বসবে 😂

আর কুনোব্যাঙ আমাকে আঁচাড় দিবে কি করে???

আমি তো ওরে ধরে একটা আঁচাড় দিলে মরেই যাবে।

আমি এসব বলে হাসলে শুরু করলাম, পাশে থাকা সবার হাসি যেন আর থামছিলো না 😂😂😂

২০ বছর পর কুনোব্যাঙ দেখলাম কিন্তু দাদুমনিকে বলতে পারি নাই কারন আমার দাদুমনি গত ৮ বছর আগে মারা গিয়েছেন 😭

স্মৃতি আমার কুনোব্যাঙ দেখার আনন্দ দিয়েছে অন্যদিকে দাদুমনির স্মৃতি মনে করিয়ে মন খারাপ করে দিয়েছে।

আলিফ।

ছবি ক্রেডিটঃ- আলিফ নিজে তবে খুব ভয়ে তুলছি ।

১৪৫জন ১৩জন
0 Shares

৩৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য