সুরাইয়া নার্গিস

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ৪ মাস ৩ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ৬৭টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ৯২৩টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ১১৩৫টি
আমি তোমার জন্য এসেছি -(পর্ব-৫৩)   আসসালামু আলাইকুম ভাইজান একসাথে আজাদ, মিরা সালাম দিল। শেখর সাহেব যেন আনন্দে দিশে হারা প্রিয় বোনকে কাছে পেয়ে। ওরে তোরা কে কোথায় আছিস রে এদিকে আয় আমার বোন এসেছে। কেমন আছো ভাইজান বলেই মিরা শেখর সাহেবকে সালাম করলো। ভালো আছি বোন, কতদিন পর তোকে দেখলাম। কেমন আছেন ভাইজান বলেই [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি-(পর্ব-৫২) প্রিয়া চোখের পানি মুছে হেসে দিল পাগলি কাঁদছিস কেন রে.. তোর বিয়ে হয়েছে এটা খুশির খবর কান্না করে সুন্দর সময়টা নষ্ট করবি না। চল রোহান, ভাবি আসেন ওদের এগিয়ে দেই… ঝাঁরবাতি গুলোর আলো মিট মিট করে জ্বলছে, কান্না হাসির মাধ্যমে একটা বিয়ের সমাপ্তি হলো। ঘন্টা খানিকের মধ্যে মিতুকে নিয়ে গাড়িটা বিয়ে [ বিস্তারিত ]
“আমি তোমার জন্য এসেছি -(পর্ব-৫১)   মিতুর থেকেই সাইন নেওয়া হলো বড় মামীর কান্না যেন থামছিলো না, মিতু কবুল বলতে গিয়ে জ্ঞান হারাল কোন রকমে প্রিয়া শান্ত করে সাইন করাল। কাজী সহ ৩জন সাক্ষী ওনারা মিতুর সাইন নিয়ে চলে গেল। বেয়াই সাহেব সবকিছু একটু তাড়াতাড়ি শেষ করে দিলে ভালো হয়। আমাদের ফিরতে সুবিধা হবে, জ্বী [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি -(৫০) আরাফ ভেবে দেখল এই বিশাল বিয়ের গেইট তৈরিতে বেশ টাকা খরচ হয়েছে আরো ব্যাপার আছে। সেই হিসাবে ওদের ১০ হাজার টাকা চাওয়ার দাবীটা অমূলক না,রোহানের সাথে কথা বললো। রোহানের মত নিয়ে আরাফ প্যান্টে হাত দিয়ে টাকা বের করলো, ওকে আপামনিরা আমি খুশি হয়ে দিচ্ছি। আপনারা সম্মানের সহীত গ্রহন করে আমাকে [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি -(পর্ব-৪৯)   প্রিয়াকে বিয়ে করছিস তো, মোবাইলে ছবি নেই দেখা দেখি আমার সতীন কত সুন্দরী বলেই শীলা হেসে কুটি কুটি হলো। -শীলার কথা শোনে সজিব, আরাফ হাসতে শুরু করলো। -সত্যিই তো ওর জন্য তুই কত চেষ্টা করলি আমি সব জানি তো। -দোস্ত প্রিয়ার সাথে আমার বিয়ে হয়নি! ওর সাথে আমার যোগাযোগ [ বিস্তারিত ]

আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-৪৮)

সুরাইয়া নার্গিস ২ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০৬:৪২:১৬অপরাহ্ন উপন্যাস ১২ মন্তব্য
আমি তোমার জন্য এসেছি- (পর্ব-৪৮) স্যার মালা নিবেন না! না নিলে না করেন আমি অন্য গাড়ির সামনে যামু খাঁড়াইয়া থাকলে টেকা পামু কই। ওহ্! সরি সরি। আচ্ছা মালা জানি, কয়টা বলছিলে.? স্যার ১১ টা মালা। ওকে সব গুলো আমাকে দাও! ছেলেটার চোখে মুখে হাসি স্যার আপনি সবগুলো মালা কিনবেন। দাও, আরাফ মালাগুলো নিয়ে গাড়ির পাশের [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি- (পর্ব-৪৭) -রোহান মিতুকে রাগাতে মজা করে বললো ওকে জানু, তাহলে একটু আদর দিয়ে যাও রাতে ঘুমটা ভালো হবে। -মিতু চমকে উঠে বললো একদম না। -কেন!কেন.? কাল তো বিয়ে একটা চুমু দিলে এমন কি সমস্যা আমি বুঝি না! -সমস্যা কিছু না সোনা,তুমি ঘুমাও। -রোহান আরো পাগলামী শুরু করলো, প্লীজ! প্লীজ দাও না [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি- (পর্ব-৪৬) অন্য পাশে হিন্দি গানের তালে তালে মিউজিক এর সাথে ছোট ছেলেমেয়েদের অসাধারন নাচ চলছে। ভাইয়া এদিকে আসুন,দেখুন এদের প্রতিভা বলেই রিদম এগিয়ে গেল। আরাফ,শ্রেয়া সবাই চেয়ে দেখল দারুন নাচ, রিদম এসব দেখলে চলবে! বাসায় তো ফিরতে হবে। জ্বী ভাইয়া চলুন! মম আমি একটু মিতুর কাছে যাই পরে এসে তোমাকে কল [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি -(পর্ব ৪৫)   আরাফ শেখর সাহেবকে সালাম দিলেন, কেমন আছো বাবা.? ভালো। আমি মিতুর বাবা ওনি মিতুর মা। কেমন আছেন আন্টি.? ভালো।  আপনারা বসেন  আবিদ,শ্রেয়া,রিদম,অমি, রহিমাসহ সবাই বসলো। আঙ্কেল আপনি আমাকে তুমি করে বলবেন, আমি রোহানের বাবার বন্ধুর ছেলে কথা শেষ করার আগেই জিসান আসল। আব্বু ওনি আরাফ ভাইয়া অনেক বছর [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি -(পর্ব-৪৪) কয়েক কদম হাঁটল বৃষ্টির পানি সারা শরীরে ভিজিয়ে নিল। অনেকক্ষন দাঁড়িয়ে থাকার পরও আরাফ পিচনের দিকে দেখে জিসানের গাড়িটা দেখতে পেল না। কিছুটা চিন্তিত হয়ে বিষয়টা শ্রেয়াকে জানাল,  আচ্ছা তোমরা জিসান সাহেবের গাড়িতে থাকা মেয়েদের কাউকে একবার কল দেও তো। বাইরে বৃষ্টি হচ্ছে এদিকে জিসান সাহেবের গাড়িটা এখনো দেখতে পাচ্ছি [ বিস্তারিত ]

আলিফের কুনোব্যাঙ দেখা

সুরাইয়া নার্গিস ২৫ জুন ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:৩৪:৪৯পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩৫ মন্তব্য
“আলিফের কুনোব্যাঙ দেখা”   ছোটবেলা থেকেই খুব রাগি, জেদি ছিলাম অল্প কষ্টে অভিমান হলেই কান্না করে সারা বাসা বাসায় তুলতাম। তা চলছো কয়েকঘন্টা তবে একটু বেশি আদর ভালোবাসা পেলে সব রাগ পানিতে পরিণত হতো। আমার রাগ,জেদ কমানোর জন্য আব্বু,আম্মু,দাদুমনি বিভিন্ন প্লান করতেন সব সময় যে তা কাজে লাগতো তা না। তবে কিছু ক্ষেত্রে ওনারা সফল [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি -(পর্ব-৪৩)   রোহান দরজায় খুলতেই আরাফ,শ্রেয়া, অমি, রহিমা ভিতরে ঢুকলে..! এত্তো দেরি করলে কেন ভাইয়া! সরি, একটু ব্যস্ত ছিলাম। আরাফ ভাইয়া ওনি মিতুর বড় ভাই বলেই জিসানকে দেখাল। জিসান সোফা ছেড়ে উঠা দাঁড়াল,আরাফ দু পা এগিয়ে গেল সালাম দিয়ে জিসানের সাথে হ্যান্ডসেক করলো।   কেমন আছেন? আলহামদুলিল্লাহ্। বসুন বলে জিসান আরাফকে [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি- (পর্ব-৪২) জাপান যাবার আগে একদিন প্রিয়াদের বাসায় দেখা করতে যাই, পিচন থেকে নুপূরের আওয়াজ চোখ ফেরাতেই একটা নীল পরী দৌঁড়ে আমার চোখের আড়ালে হারিয়ে গেল। অনেকক্ষন খোঁজার পর নীল পরীর হাতে দুটো নীল কাচের চুড়িতে চোখ পড়ল। শরীরে তার ফিরোজা রংয়ের জামা, চোখে কাজল ওরে বাবা এটা তো আমাদের পিচ্চি প্রিয়া। [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-৪১) না ভাবি ওরা খাবে না, হালকা নাস্তা দিলেই চলবে। রোহান নতুন মেহমান দুপুরে না খেয়ে যাবে ব্যাপারটা কেমন দেখায় না! আরে ভাবী সমস্যা নেই ওরা সবাই আগামীকাল বিয়েতে যাবে, আজ শুধু মিতুর সাথে পরিচিত হয়ে চলে আসবে। ওকে বুঝছি, রোহান শোন মিতুর ভাইয়া বিকালে তোমাদের ওখানে যাব হলুদ এর আয়োজন [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-৪০)   ইসস সকালে একটু ঘুমাব সেই সুযোগ নেই। সকাল বেলা কোন ঝামেলা কল দিল বলেই মিতু মোবাইল কানের নিচে রেখে হ্যালো বললো। কি আমি ঝামেলা.??? মিতু তাড়াতাড়ি কান থেকে মোবাইল সরিয়ে নিল এটা তো রোহানের কন্ঠ! মোবাইলের স্কিনে চোখ পড়ল রোহান লেখা, ওহ্ রোহানের কল আমি না দেখেই রিসিভ করে [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য