সুরাইয়া নার্গিস

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ৪ মাস ১ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ৬৬টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ৯১২টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ১১১৮টি
আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-৩৮) বড় ভাইয়া তুমি ক্লান্ত যাও ফ্রেশ হয়ে আসো। -হ্যাঁ যাবো বাবা মারা যাবার পর তুমি সেই যে জাপান গেলে তারপর আজ ৬বছর পর দেশে ফিরলে। তোমাকে কত বছর পর দেখলাম বলেই চোখ মুছল আরমান। আরাফের চোখেও পানি সরি ভাইয়া বলেই আরমানের কাঁধে হাত রাখলো। ভাইয়া কি ছেলে মানুষি করছো। তোমার [ বিস্তারিত ]
“আমি তোমার জন্য এসেছি” (পর্ব-৩৭) -ওয়াও দারুন ব্যাপার তো! তাড়াতাড়ি বলো। সেই চিঠিতে কি লিখা ছিলো.? -মিতু সেই চিঠি আমি পড়ি নাই। -তা কেন আপ্পি.? তোমরা এত ভালো বন্ধু হয়েছিলে,শুধুমাত্র তোমার জন্য সে ঢাকা থেকে ময়মনসিংহে আসছিলো। একবার দেখা করতে, একটু কথা বলতে। অথচ তুমি সেই ডাইরিটা একবার খুলে দেখ নাই অবাক কান্ড। -আপ্পি এখন [ বিস্তারিত ]
“আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-৩৬) আরাফের সাথে আমার প্রথম পরিচিয় তখন আমার বয়স ১২ বছর আমি পঞ্চম শেণিতে পাড়ি। আরাফ ভাইয়া তখন ঢাকা কলেজের প্রফেসর জাপান থেকে পিএইচডি করে দেশে ফিরছে। আব্বুর স্কুল শিক্ষক আকরাম আঙ্কেলের ছেলে, ময়মনসিংহে আমাদের বাসার পাশেই ওদের জমি কেনা ছিলো সেখানে বিল্ডিং এর কাজ চলছিলো। সেটার দেখাশোনা করতে এসেই প্রথম [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি- (পর্ব-৩৫) শ্বাশুড় বাবা মারা যাবার পর আজাদ আঙ্কেল আর আসে নাই। প্রিয়াকে তখনি একবার দেখেছিলাম খুব সুন্দর মেয়েটা এখনো চোখে লেগে আছে কলাপাতা রঙের স্যালোয়ার কামিজ হালকা লাল সুতি ওড়না একেবারে পরীর মতো লাগছিলো। আর কোনদিন ওরা আমাদের বাসায় আসেন নাই এখন তোমাদের যোগাযোগ হয় না… আরাফ চুপ করে পত্রিকা পড়ছে [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-৩৪) আন্টি এখনি কথা দিতে পারছি না, দু-দিন পর পাশের বাসায় সিফাত আঙ্কেলের একমাত্র ছেলে রোহানের বিয়ে আছে। ওখানকার সব দায়ীত্ব আমার উপর দেওয়া হয়েছে বিয়েটা ভালো ভাবে শেষ হোক তারপর ব্যস্তায় কাটিয়ে উঠে একটু ফ্রি হয়ে নেই। তারপর কয়েকদিন পর আমি রাহাত তে ফোন করে জানাব কবে যেতে পারব। ওকে [ বিস্তারিত ]
“আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-৩৩) মনোয়ারা হেসে বললো এই যে এখানে আমরা কিছু আদমজাতী আছি, খেয়াল করেন। আরাফ রাহাতকে ছেড়ে পিচনে চোখ আটকে গেল হলুদ শাড়ীতে… তারপর বলো, প্রিয়া আপ্পি আসতে কোন সমস্যা হয়নি? আরে নাহ্ কোন সমস্যা হয়নি, খুব ভালো ভাবেই আসছি। উপরে চল আমার রুমে তোমার সাথে অনেক গল্প বাকি! বুঝছি রোহান সাহাবের [ বিস্তারিত ]
আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-৩২) রাহাত আরাফকে একবার চোখ ভরে দেখবো বলে আজো বেঁচে আছি।আমাদের দুঃসময়ে আরাফের অবদান অনস্বীকার্য বাবারে কাছে বস দুচোখ কোন ভাবেই ভুলা সম্ভব না। হ্যাঁ আজকের রাহাতের অর্থ সম্পদ, কুটিপতি,সম্মান সবকিছু রাহাতের দান এগুলো ভুলব কি করে মা! আমার শরীরে এক বিন্দু রক্ত থাকতে আরাফকে ভুলব না মা তোমাকে কথা দিলা। [ বিস্তারিত ]
“আমি তোমার জন্য এসেছ (পর্ব-৩১) ফুল,ফল,পাখি,গাছ, প্রকৃতি সব মিলিয়ে সুন্দর কারুশিল্প কাঁথায় বেশ ফুটে ওঠেছে,, ওগো শুনছো। হ্যাঁ বলো! বলেই মিরা কাঁথা রেখে আজাদের দিকে ফিরে তাকাল। হয়ত নিচের দিকে চেয়ে সেলাই করে চোখ দু’টো ক্লান্ত তাই মাথাটা সোজা করে বসল। মিরা একবার প্রিয়ার রুমে যাবে বলতে গিয়ে আজাদ থেমে গেল..! কি হয়েছে প্রিয়ার জানতে [ বিস্তারিত ]
“আমি তোমার জন্য এসেছি -(পর্ব-ত্রিশ) যদি একবার আরাফ ভাইয়ার সাথে দেখা হতো পা ধরে ক্ষমা চেয়ে নিতাম। জীবনের অনাকাঙ্খিত সকল ভুলের জন্য,ক্ষমা চেয়ে নিতাম। তার ভালোবাসা বুঝতে না পাবার অক্ষমতার জন্য,ক্ষমা চেয়ে নিতাম। তার জীবনের শ্রেষ্ঠ সময় আমার জন্য অপেক্ষা করে নষ্ট করার জন্য…! প্রিয়া অনার্স,মাস্টাস শেষ করে ভালো একটা সরকারী চাকরি করে নিজে প্রতিষ্ঠিত [ বিস্তারিত ]
“আমি তোমার জন্য এসেছি -(পর্ব- ঊনত্রিশ) আকরাম সাহেবকে নিয়ে কয়েকজন বার্থরুমে প্রবেশ করলো মানুষের ভিড় ঠেলে মিরা, প্রিয়া, আজাদ ভিতরে ঢুকলো। মনোয়ারাকে দেখে আজাদ চিৎকার করে বললো ভাবি আমাকে আরো আগে কেন কিছু জানালেন না! চোখের দেখাটা একবার দেখতে পারতাম। এখন তো সব শেষ মিরা শান্ত করার চেষ্টা করলো না, কাঁদুক মনের কষ্ট কমবে বলেই [ বিস্তারিত ]
“আমি তোমার জন্য এসেছ (পর্ব-আটাশ)” ব্যবসার পাশিপাশি একটা চাকরি নেয়, ওখানেই জীবনটাকে নতুন ভাবে শুরু করেছে। ব্যবসা, চাকরি, কাজ এর বাইরে আরেকটা জীবন আছে আরাফ সেটা ভুলে গেছে। জীবনে কি চেয়েছিলো আর আজ কি পেল তাতে আরাফের আজ কোন আক্ষেপ নেই। কারন ভাগ্য বিধাতা চায়নি প্রিয়া আরাফের মিলন হোক তাই আরাফ তার জীবনের সর্বত্র দিয়ে [ বিস্তারিত ]

আজও তোমাকে মিস করি..

সুরাইয়া নার্গিস ১২ মে ২০২০, মঙ্গলবার, ১২:২১:৪৬অপরাহ্ন অণুগল্প ১৩ মন্তব্য
আম্মুর মোবাইলের ব্যালেন্স শেষ,যাকে জরুরী দরকারে ফোন দিবেন তার টেলিফোন নেই তাই মোবাইলে ফেক্সিলোড করতে হবে। এমন সময় বাসায় কেউ নেই আম্মু নাম্বার টাকা দিয়ে ছোট্র আলিফকে পাঠালেন দোকানে। রাস্তায় মানুষের প্রচুর জ্যাম ওপেক্ষা করে দোকানে ঢুকলাম বুঝতে পারলাম শহরে কোন ভিআইপি মানুষের আগমন ঘটেছে গাড়ির পর গাড়ি রাস্তায় ভরা। আমি দোকানে ঢুকতে পারছিলাম না [ বিস্তারিত ]
  “বন্ধুত্ব” হাজার মানুষের ভীড়ে কিছু মানুষ খুব আপন হয় তার মধ্যে কেউ একজন নিজ গুনে হৃদয়ে একটা বিশেষ জায়গা দখল করে নেয়। সে মানুষটা একটা সময় পরিবারের একজনে রুপান্তরিত হয় আর সে হচ্ছে বন্ধু। বন্ধু শব্দটার নির্দিষ্ট কোন ব্যাখ্যা হয় না, এর অর্থ ব্যাপক ও বিস্তৃত।আমার কাছে পৃথিবীর সবচেয়ে মধুর ও সুন্দর সম্পর্ক হচ্ছে [ বিস্তারিত ]

আমার মা

সুরাইয়া নার্গিস ১০ মে ২০২০, রবিবার, ০৭:২৬:১৬পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২০ মন্তব্য
আজ বিশ্ব মা দিবস। মায়ের জন্য দিবস নয়, দিবসের জন্য মা নয়। আমার কাছে বছরের ৩৬৫ দিনেই মাকে ভালোবাসার জন্য।বছরের একদিন না প্রতিদিন বলতে চাই ভালোবাসি মা তোমাকে..! আজকের এই দিনে পৃথিবীর প্রত্যেক মায়ের প্রতি জানাই অসীম শ্রদ্ধা, অশেষ কৃতজ্ঞতা। একটা সংসার সুন্দর সুখি করার জন্য একজন নারীর অবদান অস্বীকার্য।পৃথিবীর সকল মা বোনকে জানাই নারী [ বিস্তারিত ]

নতুন সম্পর্ক

সুরাইয়া নার্গিস ৭ মে ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০৬:০৮:০১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৪ মন্তব্য
কেউ যদি তোমার জীবন থেকে চলে যেতে চায়, তাহলে তাকে আটকে রাখতে চেষ্টা করো না….. তাকে এমন ভাবে বিদায় দাও, যাতে সে একটা সময় তোমায় ভেবে আফসোস করে….. আবার কেউ যদি তোমার জীবনে আসতে চায়, তবে তাকেও ফুরফুর করে গ্রহন করো না…. সময় নাও, এতে করে সে তোমার মূল্যটা বুঝতে পারবে…..   হুট করে চলে [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ