আমাদের ভালোবাসার একটি উঠোনের নাম হচ্ছে সোনেলা। আমাদের লেখালেখির ভূবন বলতে এই সোনেলাকেই বুঝি। খুব আহামরি কোন লেখার জগৎ নয় এটি, তবে আন্তরিকতা,হৃদ্যতা, ব্লগার বা লেখকদের পারস্পরিক বন্ধন এখানে অনেক দৃঢ়, যা অনেক সাইটে অনুপস্থিত।
২০১৫ সালে আমাদের এই সোনেলায় প্রচুর লেখা এসেছে। প্রচুর মান সম্মত লেখাও প্রকাশিত হয়েছে এখানে। বর্তমান পোষ্টে লেখার মান বিচার নয় পাঠকরা কোন লেখা গুলো সর্বাধিক পড়েছেন এটি বিবেচনায় এনে ২০১৫ সালে সর্বাধিক পঠিত পঞ্চাশটি পোস্ট দুই পর্বে প্রকাশ করা হবে, যার প্রথম ২৫ টি পোস্ট ইতিমধ্যেই প্রকাশ করা হয়েছে। ২০১৪ সালের সর্বাধিক পঠিত কুড়িটি লেখা নিয়ে পোষ্ট দিয়েছিলেন সোনেলার জনপ্রিয় ব্লগার আমাদের সবার প্রিয় লীলাবতী। তিনি পারিবারিক ব্যস্ততার কারনে অপারগতা প্রকাশ করায় এবং সোনেলা ব্লগ টীমের অনুরোধে এবছর আমিই দিলাম পোষ্ট। পোষ্টের সমস্ত তথ্য সোনেলা ব্লগ টীম সরবরাহ করেছেন।

পঠিত সংখ্যা দেখে সবাইকে লেখার মান বিবেচনা না করার জন্য আবারো অনুরোধ জানাচ্ছি। এখানে বেশিরভাগ লেখা পুরাতন ব্লগারদের। হতে পারে আইডেন্টিটি একটা ফ্যাক্টর, সাথে সাথে অন্য ব্লগারদের লেখায় নিয়মিত অংশগ্রহনটাও জরুরী। আবার কি ধরনের লেখা পাঠক পছন্দ করেন, এই ব্যাপারটাও এড়ানোর নয়।
তাহলে আসুন দেখি ২০১৫ সালে সোনেলায় প্রকাশিত সর্বাধিক পঠিত ৫০ টি পোষ্ট এর দ্বিতীয় ২৫ টি————-

২৬। চাঁদ মামা আজ বড্ড একা (old school)
ব্লগারের নামঃ শুন্য শুন্যালয়
পোস্টটি ২০৩৫ বার পঠিত হয়েছে
ওল্ড স্কুল ব্যান্ডের একটি গান, যা আমাদের ছোটবেলার সেই রূপকথাকে বারবার মনে করিয়ে দেবে, এনে দেবে হাহাকার। সময়ের কলে হারিয়ে যায় আমাদের শৈশব। ছবির সহযোগে সাজানো এই গানটি  ২৬ নাম্বার শীর্ষ পঠিত লিস্টে উঠে এসেছে।

২৭। বারান্দা থেকে
ব্লগারের নামঃ শুন্য শুন্যালয়
পোস্টটি ২০২৭ বার পঠিত হয়েছে
দূর দূরময় ঘুরে বেড়ালেও কি আসলে সুখ খুঁজে পাওয়া যায়? সুখের জন্য একটা বারান্দা হলেও হয়তো হয়। বারান্দা থেকে তোলা ছবি নিয়ে লেখকের এটি একটি ছবিব্লগ, সাথে নিজের কিছু অনুভূতি।

২৮। ক্রিং ক্রিং… সবাই আমার ছালাম নিন (আড্ডা)
ব্লগারের নামঃ লীলাবতী
পোস্টটি ২০০৯ বার পঠিত হয়েছে
কাজকাম কিছুই নাই? তাতে কি হয়েছে? লীলাবতী আছে না!! আড্ডা পোস্টে হাজির করলেন সবাইকে। হুশিয়ারী দিলেন, যারা আসবেনা, লীলাবতী আগামী এক মাস তাদের পোস্ট পড়বেনা। না যাইয়া আর উপায় আছে!! ঘুম ফালাইয়া দৌড়াইছি।

২৯। অনূসুয়া-অ্যান আনসলভড মিস্ট্রি-২
ব্লগারের নামঃ ফ্রাঙ্কেনেস্টাইন
পোস্টটি ১৯৯৫ বার পঠিত হয়েছে
চমৎকার থ্রিলিং পাঁচ পর্বের গল্পের দ্বিতীয় পর্বটি শীর্ষ নাম্বার ২৯। সেনা, কমান্ডার আর সবকিছুর ভীড়ে রহস্যময়ী আরিশা কে ঘিরে এই গল্পটি লেখকের অনন্য সৃষ্টি।

৩০। একটি উন্নয়ন কার্যক্রম ,,, অতঃপর মায়া্‌,,,
ব্লগারের নামঃ অরুনি মায়া
পোস্টটি ১৯৭৩ বার পঠিত হয়েছে
সোনেলা ব্লগের উন্নতি সাধন করতে গিয়ে নানা সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিল ব্লগাররা। অরুনি মায়ার পুরা ঘর তো বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে গুড়া গুড়া করে দিয়েছিল সোনেলা 🙂 একটা ঘরে থাকলে, সেটা যত ছোট আর গরিবী হোকনা কেন তাতে একটা টান পড়ে যায়, তা পরিবর্তন করতে গেলে মেনে নেয়াটা শুরুতে কষ্টদায়কই হয়। চমৎকার একটি পোস্ট।

৩১। মন হারানোর বেদনা
ব্লগারের নামঃ অরুনি মায়া
পোস্টটি ১৯৬৮ বার পঠিত হয়েছে
মন-তা সে যতই গুছিয়ে গাছিয়ে যত্ন করে রেখে দেয়া হোকনা কেন, কোথা থেকে কে এসে কখন যে  সেটা চুরি করে নিয়ে যায় তা কারো জানা নেই। অরুনি মায়ার মন হারানোর এইটা একটি নির্মম কষ্টদায়ক পোস্ট। কেউ তার মনটাকে খুঁজে পেলে অতিসত্বর তাকে ফিরিয়ে দেবার জন্য অনুরোধ রইলো।

৩২। সোনেলা ব্লগার্স মিলনমেলা ২০১৫
ব্লগারের নামঃ ভোরের শিশির
পোস্টটি ১৯৫৩ বার পঠিত হয়েছে
দ্বিতীয়বারের মত একটি মিলনমেলার আয়োজনের দাবী সকল ব্লগারের, যদিও মডারেটররা কর্নে শুনতে পান কিনা কে জানে। এই পোস্ট শীর্ষে আসায় বোঝা গিয়েছে ব্লগাররা সবাই মিলন আড্ডার জন্য কতোটা উন্মুখ। মোডারেটররা প্লিজ মিলন মেলার আয়োজন করুন, নইলে অনশনের ঘোষনা আসবে শিঘ্রই।

৩৩। সাদা-কালোর রঙিন পৃথিবী
ব্লগারের নামঃ শুন্য শুন্যালয়
পোস্টটি ১৯৪৬ বার পঠিত হয়েছে
ইহা একটি স্কেচ এবং তার ইতিহাস ও ভবিষ্যত সম্পর্কিত রম্য পোস্ট। এটিকে ট্রায়াল পোস্টও বলা যেতে পারে।

৩৪। সোনেলা ব্লগারদের নিয়ে সম্মিলিত উপন্যাস
ব্লগারের নামঃ প্রহেলিকা
পোস্টটি ১৯২৮ বার পঠিত হয়েছে
সকল ব্লগারদের নিয়ে সম্মিলিত একটি উপন্যাস লেখার আহ্বান জানিয়ে প্রহেলিকার এই পোস্ট।

৩৫। সোনেলার সম্মিলিত উপন্যাসঃশিরোনামহীনঃ পর্ব-৩
ব্লগারের নামঃ নুসরাত মৌরিন
পোস্টটি ১৮৮৮ বার পঠিত হয়েছে
সোনেলার সকল ব্লগারের সম্মিলিত উদ্যোগে উপন্যাস লিখবার ধারাবাহিকতায় নুসরাত মৌরিনের  এটি ছিল তৃতীয় পর্ব। লেখকের চমৎকার লেখনীশক্তির প্রকাশ এই পর্ব সবার মন কেড়েছিল।

৩৬। গন্ধের ভূবনে ফুল ও ডাস্টবিন
ব্লগারের নামঃ অরুনি মায়া
পোস্টটি ১৮৮১ বার পঠিত হয়েছে
গন্ধ পাঁচ ইন্দ্রিয়ের একটি হলেও, তার সাথে যে মনের একটা প্রগাঢ় সম্পর্ক আছে, তা নিয়েই এই পোস্ট। তাই প্রিয় মানুষের ঘামের গন্ধও আমাদের কাছে প্রিয় আবার, পেশাগত কারনে সুইপার দেখলে নাক সিঁটকাই। চমৎকার একটি মনসতাত্ত্বিক পোস্ট লেখকের ভাবনার গভীরতা প্রকাশ করেছে।

৩৭। স্পর্শ
ব্লগারের নামঃ অরুনি মায়া
পোস্টটি ১৮৭৪ বার পঠিত হয়েছে
এক স্পর্শে যে এত গুন আছে তা কিন্তু এই পোস্ট ছাড়া জানতাম না 🙂  স্পর্শ কাঁদায় স্পর্শ হাসায় স্পর্শ জাগায় সুখ, স্পর্শে তোমার দিব কাটিয়ে শত হাজার যুগ। কবির শত হাজার যুগের আয়ু কামনা করছি 🙂

৩৮। আজ দিনটি তার
ব্লগারের নামঃ জিসান শা ইকরাম
পোস্টটি ১৮৬১ বার পঠিত হয়েছে
বন্ধুর জন্মদিনে লেখা জিসান শা ইকরাম ভাইয়ার অসাধারন এক বন্ধুত্বের লেখা। এই আকালে প্রশ্নহীনভাবে কিছু দিয়ে দেবার অঙ্গিকার সবাই করতে পারেনা, জানেওনা।

৩৯। খোলাচিঠি
ব্লগারের নামঃ অনিকেত নন্দিনী
পোস্টটি ১৮৫৪ বার পঠিত হয়েছে
প্রকৃতির সাথে মিশে যাওয়া এক অন্ধকার আমি’র চিঠি তার প্রিয়তমেষু কে। অপেক্ষায় আবারো এক নীল পদ্ম হয়ে সামনে যাবার। চিঠিটা খোলা বলেই জানতে পেরেছি অন্ধকারের বুকে কত আলো থাকে।

৪০। ব্লগারদের জন্য কিছু রেডিমেড কমেন্ট
ব্লগারের নামঃ ব্লগার সজীব
পোস্টটি ১৮৪৮ বার পঠিত হয়েছে
ব্যস্ত ব্লগাররা যারা সময় স্বল্পতায় ভুগছেন তাদের কথা বিবেচনা করে ব্লগার সজীবের এটি একটি প্রতিভাময়, জ্ঞানী রম্য পোস্ট। এই পোস্টে কিভাবে কপি পেস্ট করে অসাধারন সব মন্তব্য করা যায় সবাইকে তা দেখানো হয়েছে। এই লেখাটি স্টিকি করে সোনেলার প্রথম পেজে ঝুলিয়ে দেবার পক্ষপাতী আমি। :p

৪১। কাগজের ফুল
ব্লগারের নামঃ ভোরের শিশির
পোস্টটি ১৮৩৫ বার পঠিত হয়েছে
গরীবের মেয়ে ছেলিনা কোন অভিমানে কাউকে কোনদিন আর ফুল দেয়না! তার পেছনে কি করুন কোন প্রেমের গল্প রয়েছে? চমৎকার একটি রপকথার  গল্প ভোরের শিশিরের।

৪২। সোনেলার নারী ব্লগার
ব্লগারের নামঃ লীলাবতী
পোস্টটি ১৮২৯ বার পঠিত হয়েছে
নারী দিবস উপলক্ষে সোনেলার নারী ব্লগারদের নিয়ে লীলাবতীর এই লেখা আমাদের আরো গর্বিত করেছে। আমি গর্বিত একজন নারী হয়ে। নিয়মনীতি তা সেটা যেখানেই হোক, মেনে চলা উচিৎ। সোনেলার নারী ব্লগাররা কখনোই সোনেলার নিয়ম ভঙ্গ করেননি। কণ্ঠ এভাবেই উচ্চারিত হোক।

৪৩। পূর্ণতর আনন্দ-যাপন
ব্লগারের নামঃ নীলাঞ্জনা নীলা
পোস্টটি ১৮১২ বার পঠিত হয়েছে
মেঘ নারীকে কাছাকাছি পাওয়া আবার না পাওয়া। পোস্টটির অসাধারন ছবিটি না দেখলে পোস্টটি অপূর্নই থাকবে।

৪৪। রাজনৈতিক ইতিহাস আর খেলা
ব্লগারের নামঃ নওশিন মিশু
পোস্টটি ১৮০১ বার পঠিত হয়েছে
পাকিস্থান ক্রিকেট কে সাপোর্ট করে যারা খেলাকে মুক্তিযুদ্ধের সাথে মেশাতে মানা করেন তাদের জন্য এই পোস্ট। আমরা সেই জাতি যাদের প্রতি মূহুর্তে মুক্তিযুদ্ধকে বারবার স্মরণ করিয়ে দিতে হয়। ধিক। নওশিন মিশুকে অনেক ধন্যবাদ এই পোস্টটির জন্য।

৪৫। আমি?
ব্লগারের নামঃ শুন্য শুন্যালয়
পোস্টটি ১৮০১ বার পঠিত হয়েছে
আমি কে খুঁজে পাওয়া কি সত্যিই যায়? লেখকের আমি কে খুঁজে ফেরা আর পাবার একটি পোস্ট এটি।

৪৬। কাকাতুয়া
ব্লগারের নামঃ ছাইরাছ হেলাল
পোস্টটি ১৭৯৫ বার পঠিত হয়েছে
কাকাতুয়াও কবির কদর বোঝে, তাই তার জন্মদিনে পার্সেল করে পাঠিয়ে দিলো কলম আর রাইটিং প্যাড।  লেখকের উচ্ছ্বাস প্রকাশের একটি পোস্ট। জানামতে সেই কলম আর প্যাড তিনি কারো সাথে শেয়ার করেননি, যদিও করার কথা ছিল।

৪৭। মায়ার ছোট্ট গল্প
ব্লগারের নামঃ শুন্য শুন্যালয়
পোস্টটি ১৭৯১ বার পঠিত হয়েছে
রাজকন্যা আর জিরাফের ছবি আর ছন্দে সাজানো বন্ধুকে উৎসর্গকৃত একটি রম্য পোস্ট।

৪৮। জলের মুগ্ধতা
ব্লগারের নামঃ জিসান শা ইকরাম
পোস্টটি ১৭৮৯ বার পঠিত হয়েছে
মুগ্ধতাকে খুঁজে নেবার জন্য নায়ক তার নিজস্ব রঙ বারবার পরিবর্তন করে নিচ্ছে। কখনো সে আকাশ, কখনো জল। তবু মুগ্ধতাকে তার চাই-ই চাই। আর মুগ্ধতা? সে কখনো সূর্যাস্তের রঙ, কখনো চাঁদ। জল আর মুগ্ধতার দুজনের সমর্পণ, জিসান শা ইকরাম ভাইয়ার এটি একটা অসাধারন অন্যরকম লেখা, সবার মতো আমাকেও বিস্মিত করেছিল। তিনি এমনও লিখতে পারেন!!

৪৯। স্বপ্নের সাথে কথা
ব্লগারের নামঃ মিথুন
পোস্টটি ১৭৮৮ বার পঠিত হয়েছে
কথোপকথনে সোনেলার সব ব্লগারের নাম আর তাদের পোস্ট গুলোকে এনে জড়ো করেছেন মিথুন এই পোস্টে। লেখকের দারুন মজার এই পোস্টটি সবার কাছে খুবই উপভোগ্য ছিল।

৫০। মায়াবতী
ব্লগারের নামঃ অরুনি মায়া
পোস্টটি ১৭৮৩ বার পঠিত হয়েছে
রাজকন্যা মায়াবতী আর তার বেহালাবাদক রাজকুমারের প্রেমকাহিনী এটি। লেখক তার রূপকথা লেখায় বেশ পারদর্শিতা দেখিয়েছেন এই পোস্টে।

সবাইকে আবারো নূতন বছরের অনেক অনেক শুভেচ্ছা।
শুভ ২০১৬ -{@

২০১৫ সালে সোনেলার সর্বাধিক পঠিত ৫০ টি পোস্ট- পর্ব ১

২০৯জন ২০৯জন
2 Shares

৫১টি মন্তব্য

  • জিসান শা ইকরাম

    আপনার লেখার মাঝে পোষ্ট গুলোর শিরোনাম আর লেখা সম্পর্কে সংক্ষেপে কিছু বর্ননা পড়ে ফিরে গিয়েছিলাম ২০১৫ তে।
    প্রকাশিত ২৫ টি লেখাই একমুহূর্তে মনে পড়ে গেলো।
    ঘটনাবহুল ২০১৫ তে বেশ কিছু নতুন আর প্রতিশ্রুতি বান ব্লগার আসলেও বেশি দিন থাকেননি তারা।
    অনেক নক্ষত্রদেরই পতন হয়েছে।

    প্রচুর খাটুনি হয় এমন একটি পোষ্ট দিতে
    ২৫ টি লেখার প্রতিটি পড়তে হয়, সংক্ষেপে লেখা সম্পর্কে কিছু লিখতে হয়
    ২৫ টি লেখার লিংক দিতে হয়
    এমন কষ্টকর একটি পোষ্ট দেয়ার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।

    ২৫ টি লেখার বিষয়ে এখন কিছু লিখলাম না।
    শুভ কামনা।

    • শুন্য শুন্যালয়

      হ্যাঁ কিছু প্রিয় মুখ এখন আর দেখতে পাইনা। মিস করি তাদের। আবারও তারা ফিরে আসবে অপেক্ষায় থাকি।
      লেখাগুলো সবই আমার পড়া ছিল, তাই কিছুটা কষ্ট কম হয়েছে। আর বাঁকিটা? দায়িত্ব পাওয়াও কিন্তু অনেক বড় ব্যাপার।
      ভালো থাকুন ভাইয়া। শুভকামনা।
      -{@

      • জিসান শা ইকরাম

        যথেষ্ঠ দায়িত্ব নিয়ে পরপর দুটো বিশ্লেষণ ধর্মী পোষ্ট দিলেন
        দায়িত্ব নিতে যে আপনি সক্ষম এই দুই পর্ব তার প্রমান।

        পাঠক প্রিয়তার একটি বড় কারন হচ্ছে ব্লগারদের সাথে যোগাযোগ
        একজন লেখক যত ভালো লিখেন না কেনো পাঠক তথা অন্য লেখকদের সাথে যোগাযোগ না হলে লেখা পাঠক প্রিয়তা পাবেনা।
        বাস্তব উদাহরন হচ্ছেঃ আমাদের দেশের বামপন্থী রাজনীতি।এনারা জানেন অনেক,থিসিস এ পরিপক্ক, কিন্তু এনাদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বারও হতে পারবেন না।
        জনপ্রিয়তার প্রধান উপায় হচ্ছে, জন সম্পৃক্ততা।

        আমার এই মন্তব্যে আবার এমন ধারনা না হয় যে বর্নিত পঞ্চাশটি পোষ্টের মাঝে কোন মান সম্মত পোষ্ট নেই
        অবশ্যই আছে।
        প্রকাশিত এসব লেখার অনেকগুলোই আমার সহ অনেকের প্রিয় তালিকায় যুক্ত হয়েছে।

        ভালো থাকুন,সুস্থ্য থাকুন প্রিয় ব্লগার -{@

      • শুন্য শুন্যালয়

        মানসম্মত লেখা নেই মানে? অন্তত ১০ টা পোস্ট তো আছেই :p
        এর মাঝে অবশ্যই অনেক ভালো লেখা আছে ভাইয়া। তবে আমার মনে হয় নেক্সট টাইম রিডার পোস্ট না দিয়ে সিলেকশান সিস্টেম করা যেতে পারে। সপ্তাহের শীর্ষ পঠিত পোস্ট কিন্তু আমরা এমনিতেই দেখতে পাই। সেরা পঠিত ২০ টা আর পাঠকের পছন্দের ২০ টি পোস্ট এভাবে দেয়া যেতে পারে।
        আপনি বলছেন দায়িত্ব ভালভাবে পালন করেছি, এটা তো ভয়ের। এরপরে আবার দেবে তাহলে 🙁
        আপনার সেই ভালো ফুলকপির চপের মত। আপনার মুখে প্রিয় ব্লগার শুনতে ভাল লাগে। 🙂
        ভালো থাকুন আপনিও -{@

  • ছাইরাছ হেলাল

    “আবার কিধরনের লেখা পাঠক পছন্দ করেন, এই ব্যাপারটাও এড়ানোর নয়।”
    আমার আমাদের অতি প্রিয় ব্লগারের দু’পর্ব মিলিয়ে দশ দশটি লেখা পেয়ে তা ঠিক-ঠাক বুঝতে পেরেছি।
    রেসিপিটি পুরো আয়ত্ত করার তরিকাটি সহজ করে বাতলে দিলে আমরাও না হয় রেসে অংশগ্রহণ পূর্বক হিংসার হাত থেকে
    পরিত্রাণ পেতাম।
    এখানে আরও একজনের পাঁচটি লেখা চলে এসেছে।
    থাকুন ফুলে-চন্দনে এ প্রার্থনা করি প্রকাশ্যে,

    • শুন্য শুন্যালয়

      আগের দুইটা বাদ দিয়ে এইটাই কেটে নিয়ে এলেন? 🙁 নাহ আপনি লোক ভালু না। রেসিপিটি বেশ সহজ। লেখালেখির গুন আমার যথেষ্টই কম, পোস্ট কম দেই, একারনে এক পোস্টের উপরেই আড্ডাবাজির লোড টা পড়ে। এই হচ্ছে, আসল মন্তর, এবার বোঝা গেলো? এ বছর শীর্ষ পঠিত নয়, শীর্ষ মানের পোস্ট নিয়ে তালিকা করুন। একটু খেটেখুটে খান, কত আর গায়ে হাওয়া আর জ্যোৎস্না লাগিয়ে ঘুরে বেড়াবেন?
      হ্যাঁ আরেকজনের পাঁচ পাঁচটি লেখা তার যোগ্যতা আর পরিশ্রমেরর পরিচয় বহন করেছে। অচীন হাওয়ার গুণও থাকতে পারে। থাকুন তিনি ফুল-চন্দনে এ পার্থনা আমাদেরও।

      • ছাইরাছ হেলাল

        সব কাজ সবার জন্য না, আর আপনি যা দেখিয়েছেন তাতে অন্য দিকে যেয়ে ‘হাওয়া মে উড়তা’
        বহুত সহজ কাজ।
        হাওয়া আপনি দিয়াছে, দাঁতের দাক্তার হিসাবে।
        চন্দন-ফন্দন সব ওধারছে পাঠালেন!!
        নির্ঘাত স্বজনপ্রীতি।

      • শুন্য শুন্যালয়

        স্বজন হলে প্রীতি একটু থাকেই, তা প্রকাশ্যে বা অপ্রকাশ্যেই হোক। হিংসা বটিকা কি আজকাল বেশি সেবন করছেন? জ্বি ভাউ, গ্রহান্তরে চলে যাওয়াও সহজ আপনার জন্যে। আপনার সহজ যে আমাদের হুমড়ি খাইয়ে ফেলে দিচ্ছে ভাউ। হাওয়া যে এমন ভারি তা আগে টের পাইনাই।

  • ভোরের শিশির

    নারীদের জয় জয়কার 😀

    এতো ব্যস্ততার মাঝেও সময় নিয়ে এমন পোস্ট লেখাও যথেষ্টই কষ্টসাধ্য ব্যাপার। সব কিছু মিলিয়ে আপনাকে এবং যারা আপনাকে সহযোগীতা করেছেন তাদের সবাইকে জানাই শুভেচ্ছা এবং ধন্যবাদ। -{@

    আমার একট লেখা দেখলাম পঠনের শীর্ষ ৫০ এ এসেছে! খুশি এইজন্যেই জন্যে যে, অন্তত আমার একটি মৌলিক গল্প পাঠকদের মনে পড়ার জন্য কৌতুহল জাগিয়েছে। ধন্যবাদ সকল পাঠককে এবং হিংসা সর্বাধিক পঠিত পোস্ট লিখিয়েদের প্রতি :p

    • শুন্য শুন্যালয়

      হ্যাঁ হতেই হবে। নারীরা একদিন সবকিছু দখল করে নেবে তাদের বুদ্ধিমত্বা আর যত্নে। 🙂
      হুম তোর কাগজের ফুল গল্পটা সত্যিই বেশ সুন্দর হয়েছে। তবে ছেলিনা আর কাউকে পরে ফুল ফিয়েছে কিনা জানতে পারিনি। কত গল্পের পরের অংশ আর জানা যায়না।
      হিংসা করা ভালো না 😀

      • ভোরের শিশির

        ‘কাগুজে ফুল’ রুপকথা না বলে চুপকথা বলা ভাল। আমি ক্ষণিকের চেষ্টায় ভাবার চেষ্টা করেছি সহজ সরল এক মুখর জনপদের কথা যারা এখনো টিকে আছে আমাদেরই অজান্তে। ছেলিনা (মায়া)র প্রস্থানের পর কি হয়েছিল ভাবতে গেলেই আমিও অবাক হই কি হয়েছিল শেষে। যে ভাবনা আসে তা মন মতো হয় না কিছুতেই। অনেকসময় অনেক কথা না বলাই ভাল। তবে এটি নর-নারীর স্বাভাবিক প্রেমের গল্প ছিলো না কিছুতেই।

        হিংসা করা ভাল না কিন্তু হিংসিত হওয়া ভালু 😀 😀

      • শুন্য শুন্যালয়

        খুব অল্প সময়েই এমন একটা গল্প কি করে লিখে আনলি, অবাক হয়েছি। পিন পয়েন্টে আমি প্রেমের গল্প বলেছি বটে তবে মূল ফোকাসটা অবশ্যই একটি ইতিহাস কেন একটি মেয়ে কাউকে কোনদিন ফুল দেবেনা বলে পণ করলো। অনেক কথা না বলাই ভাল, তবে লেখক চাইলে কিছু বলতেও পারে। নিরুদ্দেশ ছেলিনা কে খুঁজতে যাওয়া এক অন্ধ দোকানীর গল্প গোপন না হয় নাই-ই থাকলো।
        ভালো জিনিসের হিংসা করা ভালু। আমার আব্বা ছোটবেলায় “আরেকজন কেন এত ভাল রেজাল্ট করছে, আমি না কেন”-এই ব্যাপারে হিংসা করতে বলতো 😀

  • অরুনি মায়া

    তাও ভাল আমি শেষ থেকে অন্তত আছি 🙂 | নইলে মায়ার আর্তনাদ সোনেলাবাসী শুনত ;( :p | 2015 তো গেল কিন্তু 2016 তে আমার আরও করুণ হাল হবে তা ঠিক জানি 🙁 |
    শীর্ষ 50 এর সকল ব্লগার কে আমার প্রাণ ঢালা শুভেচ্ছা 🙂 -{@

  • অনিকেত নন্দিনী

    এক্কেবারে লেজের দিকে হইলেও আছি তো! 😀
    আমি বিশ্বাস করি লেজের শক্তি অনস্বীকার্য। :p

    তবে ইহাও অনস্বীকার্য যে এই তালিকায় নাম না থাকলে কাইন্দা সব ভাসায়ে দিতাম।
    ;( ;( ;( ;( ;( ;(
    ;( ;( ;( ;( ;( ;(

    এত্ত কষ্ট করে এই বিশাল তালিকা বানানোর জন্য শুন্যাপুকে এত্তগুলি ধন্যবাদ আর ভালোবাসা। -{@ (3

    • শুন্য শুন্যালয়

      লেজের শক্তি অবশ্যই অনস্বীকার্য 😀 আর আপনাকে ছাড়া ৫০ লিস্ট, প্রাণের মায়া আছেনা আমার :p
      ভাগ্যিস কান্দেন নাই, আমি আবার কান্নাকাটি একদম সহ্য করতে পারিনা।
      চিঠির প্রতি আমাদের টান কখনোই কমে যাবার নয় আসলে।
      ভালো থাকুন নন্দিনী আপু, এত্ত এত্ত। (3 -{@

      • অনিকেত নন্দিনী

        “আপনাকে ছাড়া ৫০ লিস্ট, প্রাণের মায়া আছেনা আমার”
        এইডা কী কইলেন শুন্যাপু? ;(
        আমি কি এত্তোই খারাপ? ;(
        কান্দাকাটি আমিও পছন্দ করিনা। ;(

        চিঠির প্রতি টান থাকলেও চিঠি লেখকের প্রতি যে একটুসখানি টানও নাই উহা দেখিয়া আমি অতীব মর্মাহত হইয়াছি। ;(

        সুস্থ থাকুন, আনন্দে থাকুন।
        এত্তো এত্তো ভালোবাসা।
        (3 (3 (3

      • শুন্য শুন্যালয়

        চিঠি পড়ার আগে প্রেরকের ঘরটাই আগে দেখি আপু। আর সে যদি হয় নন্দিনী, তো খামটা যত্ন করে ছেড়ার কথা মনেই থাকেনা। হাপুস করে পড়ে ফেলি।
        কান্দাকাটি পছন্দ করেন না বইলা, নিজেই ৪ খান কান্নাকাটির ইমু দিয়া আমারে ভাসাই ফালাইলো ;(
        আপনি খারাপ কেনু হবেন? প্রানের মায়া বলতে আমি প্রানের টানের কথা বলেছি। :p
        এত্ত গুলা লাভু নীলপদ্ম, থুক্কু নন্দিনী আপু। (3 -{@

      • অনিকেত নন্দিনী

        হাপুস নয়নে কান্নাকাটির কথা জানতাম, হাপুস করে পড়ে ফেলার ব্যাপারটা জানা ছিলোনা। :p
        খামেও কিন্তু অনেক ভালোবাসা লুকোনো থাকে, এমন তাড়াহুড়ো করে সেই খাম ছেঁড়া কি ঠিক? 🙁
        কান্নাকাটি পছন্দ করিনা তবুও পারিপার্শ্বিকতার কারণে কান্নাকাটি করতে হইলে আমার কী করার আছে? ;(
        প্রাণের টানের কথা বলে ওইতো কী যে বোঝানো হইছে তাও আমি বুঝি। ;(
        আমি নীলপদ্ম না! ;(
        আমি নন্দিনী তাও মনে রাখতে পারেনা। ;(
        ক্যান পারেনা? তারমানে আম্রে কেউ সত্যি সত্যি ভালোবাসেনা। ;(

  • নাসির সারওয়ার

    দু একটা মিস করেছিলাম। অনেক ধন্যবাদ আপনার এই কর্মের যাতে আপনি লেখাগুলোর মুলটা ভালো ভাবেই এনেছেন। এতো বেশ কঠিন এবং সময়েরর ব্যাপার স্যাপার আপু!
    আচ্ছা, আপনার শিষ্যত্ব নেবার ফযিলত কি? না মানে একটু লেখালিখি নিয়ে গবেষণার ইচ্ছে ছিলো। একা অনেক চেষ্টা চালাচ্ছি। ঠিক ক্লিক হচ্ছেনা।
    ভালো থাকুন!

    • শুন্য শুন্যালয়

      ভাইয়া মোটামুটি সব লেখা আমার আগেই পড়া ছিল, আমি হচ্ছি নাই কাজের হেড অফ দ্যা ডিপার্টমেন্ট তাই কষ্ট খানিকটা কম হয়েছিল।
      আমার শিষ্যত্ব নিলে লেখালেখির মুকুল দেখিতে পাইবেন, উহা আর আম্র হইয়া বাঁচিয়া উঠিবেনা। গবেষণার জন্য আপনার সকল ক্যামিকেল এবং রসদ অলরেডি আছেই ভাইয়া, কেন যে আমাদের কে ফলাফল জানাচ্ছেন না সে এক রহস্য। জলদি করে কবিতা দিন, নাম কবি নাসির সারওয়ার (আরেকজনের লেখা হইতে জানিলাম) অথচ আজো কোন কবিতা পাইলাম না।
      আপনিও ভালো থাকুন ভাইয়া।

      • নাসির সারওয়ার

        হুম, বুজিতে পারিলাম। আপনার শিষ্যত্ব পেতে বেপথে যাইতে হইবে। আগে আপনার অন্য শিষ্যদের তোষামোদ করিয়া জানিয়া লই তাহারা কেমন করিয়া এই কর্মটি সম্পাদন করিয়াছেন। তাহার পরে বুজাইবো কত আটায় কয়টা রুটি।
        আমার চুলগুলো বসাইয়া লই আগে।

      • শুন্য শুন্যালয়

        আইজ পর্যন্ত কেউ আমার শিষ্যত্ব লইতে ইচ্ছুক হয়নাই ভাউ। এই দুঃখের কথা কাহারে বলিবো। ;(
        আপনি শিষ্যত্ব লইতে চাহিতেছেন, তাও আবার লেখালেখির গবেষনা করিবার জন্য, ইহা আমার ক্ষতে অগ্নিসম। আমার লেখার হাল এত্তদিনেও না বুঝলে লক্ষ মিলিয়ন চুল বসাইলেও কাজ হইবেক না। অন্তত চকচকে চান্দিখানা হারাইয়েন না। গিটার শিখিবার ইচ্ছে আর আহ্লাদ আমার এখনো বলবত আছে, প্লিজ স্মরনে একটু রাখিয়েন।

  • ইমন

    যারা লিষ্টে আছেন তাদেরকে শুভেচ্ছা। আর যারা এই লিষ্টে নাই তাদের জন্য ভালবাসা। 🙂 হতাশ হওয়ার কিছু নাই, দুনিয়ার অনেক রথি-মরথীরা এমন অনেক লিষ্টে আসেনি । তাই বলে তারা তাদের সৃষ্টিশীলতায় তার প্রভাব পড়েনি। সবাইকে শুভেচ্ছা সোনেলার সাথে থাকুন 🙂

  • ব্লগার সজীব

    সজীবের লেখাও তাহলে শীর্ষ পঠিত লেখার মাঝে আসে? 🙂 অবশ্য জাতি ব্লগার সজীবের মর্যাদা বুঝলো না। ২০১৬ তে বুঝিয়ে দেয়া হবে, সজীব কি চীজ :p এত পরিশ্রমী দুটো পোষ্টের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ আপু।
    আপনার এই দুই পোষ্ট নিয়ে আলোচনা করা হবে পরের মন্তব্যে 🙂

  • মিথুন

    অনেক কষ্টকর একটি পোস্ট দিয়েছেন আপু, ধন্যবাদ আপনাকে। আমার একটি পোস্ট শীর্ষে আসবে আমার ধারনাই ছিলোনা, ভাল লাগছে। স্বপ্নের সাথে কথা’র দ্বিতীয় পর্ব বের করবো নাকি আপু? 🙂

  • লীলাবতী

    এই পোষ্ট দুটোর মাধ্যমে একটি বিষয় স্পষ্ট হয়েছে যে, যে সমস্ত ব্লগার অন্য ব্লগারের লেখা পড়েন বেশি,তার লেখাই বেশি পঠিত হয়।দু একটি ব্যতিক্রম আছে। নতুন ব্লগার হিসেবে উঠে এসেছেন অরুনি মায়া। ২০১৬ এর শীর্ষ পঠিত সব লেখাই উনি দখল করেন কিনা কে জানে 🙂
    নতুন ব্লগারদের উচিৎ ব্লগীয় যোগাযোগ বৃদ্ধি করা।
    এত কষ্টকর পোষ্টের জন্য আপনাকে অনেক অনেক শুভেচ্ছা -{@

    • ভোরের শিশির

      সোনেলায় গত দু সপ্তাহে একটা ব্যাপার দেখে খুবই অবাক হলাম আর এতে একটা সিদ্ধান্তে উপনীত হলাম লীলাপু-
      লেখা যতই ভালো হোক, যতই অন্যদের পোস্টে যাক তবুও তা শীর্ষ পঠিত হয় না এবং এই ধারা সোনেলাতেও চলে এসেছে।

      সবার প্রতি সম্মান এবং শ্রদ্ধা রেখেই বললাম এই কথা।

      • লীলাবতী

        শীর্ষ পঠিত লেখার সাথে লেখার মানের কোন যোগাযোগ থাকতে পারে আবার নাও পারে। সমাজে আলাপি লোকদের কদর বেশি। আর অসামাজিক, গম্ভীর, ভাব নিয়ে থাকা লোকদের কদর নেই তার যত গুনই থাকুক না কেন। ব্লগের ক্ষেত্রেও তেমন। যত বেশি যোগাযোগ অন্যদের সাথে, তার লেখা তত বেশী পঠিত। মায়া আপু তার প্রতিটি লেখা ফেইসবুকে শেয়ার করেন। আপনি বা আমি বা অন্যরা কতটা লেখা শেয়ার দিয়েছি?
        ‘ লেখা যতই ভালো হোক, যতই অন্যদের পোস্টে যাক তবুও তা শীর্ষ পঠিত হয় না এবং এই ধারা সোনেলাতেও চলে এসেছে।’ এখানে সোনেলার কি কোন ভুমিকা আছে? আপনার এই কথা আসলে আমি বুঝতে পারিনি।

    • অরুনি মায়া

      কি মুশকিল, আমি কিন্তু কিছু করিনি | 2016 আমার হতেই পারেনা | আমি মোটামুটি সবার পোস্টে যাওয়ার চেষ্টা করি ,আবার অনেকেই আমার পোস্টে আসেন | শীর্ষে থাকতে সবাই ভালবাসে কিন্ত আমি চাই যদি আমার লেখার মান ভাল হয় তবেই যেন আমি শীর্ষে থাকি, এটাই তো আসল | আমি বাবা সবার পাশে থাকতে চাই শীর্ষত্ব জরুরি নয় 🙂

      • শুন্য শুন্যালয়

        আমিও কিন্তু কিছু করিনি। ছাইরাছ ভাইয়ার মন্তব্যের উত্তরে বলেছিলাম, আবার ও দিলাম “লেখালেখির গুন আমার যথেষ্টই কম, পোস্ট কম দেই, একারনে এক পোস্টের উপরেই আড্ডাবাজির লোড টা পড়ে। এই হচ্ছে, আসল মন্তর”।
        সপ্তাহের শীর্ষ পঠিত পোস্ট আমরা সবসময়ই দেখতে পাই, তাই এগুলোই বছরের শেষে লিস্টে চলে আসে। মোডারেটদের কাছে আমি আবেদন করেছি, পরের বছর অন্য কোন ভাবে সর্বোচ্চ মানসম্মত পোস্ট আনা যায় কিনা পাঠকের মতামতের ভিত্তিতে তা ভেবে দেখতে। এ ব্যাপারে সবার পদক্ষেপ আর আইডিয়া চাচ্ছি দাদাভাই। এখানে মোডারেটরদের উপর সমস্ত দায়িত্ব আমরা চাপিয়ে দেই, এটা ঠিক না। সোনেলা যদি আমাদের ব্লগ হয়ে থাকে, তাহলে এটা কিভাবে আরো পাঠক সমাদৃত করা যায়, তা আমরা সবাই ভাবি, প্রয়োজনে দায়িত্ব নেই। যেকোন মতামত, মন্তব্য শ্রদ্ধা আর সম্মানের সাথে দেখবো দাদাভাই।

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য