শুভ্র সমুদ্র সফেন

এস.জেড বাবু ৩০ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ০১:০৮:২২অপরাহ্ন কবিতা ১৭ মন্তব্য

সিক্ত ভোরে-
বাসন্তি সব ফুলেদের রাজ্যে মিশে থাক তুমি,
অজানায় অতর্কিত ভেজা কম্পনে,
কিঞ্চিত স্পর্শীত আমি।
সকালের তেজোদ্ধীপ্ত আলোর ঝলকানিতে তোমার রং !
নীলাকাশে মেঘেদের নিয়ে, কত কত সাজে,
কত ক..ত ঢং।

ঔই যে দুরে-
ব্যাস্ততার নিরবতায়, সারথীর শুভ্র বারতায়,
ডেকে উঠে একেলা কোকিল,
আর, আমি শুনি দীর্ঘ্যশ্বাস !
যত্ন করে থরে থরে সাজিয়ে রাখা স্বপ্নের ঘরে-
হয় আলোড়ন,
হয় কিছু স্বপ্নের নিতান্ত, নিঃশব্দ সর্বনাশ।

কেন বলতে পার ?
কেন এ সুঁচালু নিখাদ ধাঁরালো অস্ত্রটা আমার দিকে ?
কেন এ অগ্নুৎপাত তোমার সুপ্ত মণিকোঠায় ?
কোন সে নিয়মের বেড়াজালে কারারূদ্ধ উচ্ছাস ?

অসময়ে হয়না কি ফল ?
থাকে না কি তার স্বাধ ?
সূর্য্যের ও কি হয়না গ্রহন ?
হয় নাকি অন্ধকার প্রভাত ?
কৃষ্ণের ও কি ছিলনা ভূল ?
সেও কি হরিয়েছিল কূল ?
যে সুরে কানাই, বাঁজাত মরন বাঁশি-
সে সুরে রাধা কি একেলা সর্বনাশি ?

আমি বিদ্রোহ করতে বলিনি নিয়মের,
আমি টুকরো করতেও বলিনি স্বপ্নের।
আমিতো শুধু সত্যটা বলেছি-
যেমন মানুষ দেখেছি বীনা মস্তিস্কে,
তেমন করে মানিয়ে নিব নিজেকে-
নিজের আষ্ঠেপৃস্ঠে।

তোমায় সাজিয়ে যাব বি-শুদ্ধতায়,
সাঁজের সোনা রংয়ে দিগন্ত জুড়ে,
বেলাভূমির শেষ প্রান্তে, সবুজের আঙ্গীনায় ভরে,
সমস্ত প্রাণীকূলে,
শ্বেত বলাকা আর প্রজাপতির ডানায়।

হৃদয়ের সমস্ত অর্ঘ্য ঢেলে জ্বালাব পুজূর দিয়া,
আমার স্বপ্ন পুড়েই জ্বলবে তোমার খুশির প্রদীপ।

তুমি যে আমার প্রকৃতি সখি,
অমৃত ভালবাসার হৃদয় প্রতিমা।
সৈকতের বালুতটে-
বিধাতার সমস্ত নিদর্শনের সাথে,
এক শ্বাসে- এক ডুবের পর, শুরু হবে কির্তন;
যদি সে বীনের সুরে- উতলা হয় মন-
তবে এসো তুমি-
স্বর্গের ঝর্নাধারায় মিশে, হিমালয়ের প্রান্ত ছুঁয়ে,
প্রবল এক উচ্ছাসে ভরে,
হয়ে,
একরাশি শুভ্র সমুদ্র সফেন ॥

-০-

১০৮জন ১৯জন
3 Shares

১৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য