গৃহবধূ যখন লেখক

খাদিজাতুল কুবরা ৭ ডিসেম্বর ২০২০, সোমবার, ১২:২৯:০৭পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২০ মন্তব্য

নিরব অভিমানে কলম ছেড়েছিলাম!
নিন্দুক সমালোচকের মুখে কুলুপ আঁটুক,লিখবোনা আর  মন খারাপের গান।
চাইলেই কি করা যায়  কপট সুখে অবগাহন!
আমি তো বিড়াল তপস্বী নই!
তাই চুপচাপ ডায়েরির পাতায় প্রতিবাদী অক্ষর সাজাই।
কখনো বা দিনলিপি তুলে ধরি সাহিত্যের পাতায়।
যা লিখি তা আমার হাঁড়ির খবর নয়, তবে কারুর তো নিশ্চয়ই।
যদি বলি আমাদের কথা,কিংবা সকলের হাঁড়ির পঞ্চ ব্যাঞ্জন টক মিষ্টি তিতা।
তবে কি মুখ ভার করবে?
কমে যাবে পাঠক প্রিয়তা!
আমি ভিন গ্রহের নই, সকলের একজন।
আমার অক্ষমতার পাঁচিল টপকে বেরিয়ে পড়ে দুর্বিনীত অনিরুদ্ধ কিরণ!
আমার বাড়ি থেকে কয়েকশ গজ ফেরোলেই ডাস্টবিন,
আমার রসুই ঘরে কড়া পাহারা,
চাইলেও করতে পারিনা আবর্জনার স্তুপে খাবার অন্বেষণে নিমিত্ত পাগলীটার ক্ষুধা নিবারণ।
আমি এক গৃহবধূ ক্ষমতা সীমিত অক্ষম বললেও অত্যুক্তি হবে না।
আমার প্রতিবেশি বউটাকে যখন স্বামী বেধড়ক পিটায়, ঘরের কপাট খুলে বেরিয়ে গিয়ে আমি কৈফিয়ত চাইতে পারিনা!
মসজিদ, মাদ্রাসা গড়ে তোলাই সামাজিক উন্নয়ন, এটিই আমার পারিবারিক আদর্শ।
নারীর নিপীড়ন পাগলীর ক্ষুধা নিবারণ এসব অহেতুক ভাবনার হেতু খুঁজে তারা বিমর্ষ!
আমিও ভাবনার পরিধিকে ছোট করে নিই ভুলেও গণ্ডি পেরোইনা।
একটি নিরাপদ আশ্রয় বনাম পথে পথে হায়েনা।
ম্যাচটিতে কে জেতে এ গল্প তো আমার জানা।
বহিরাবরণে শামুক হলেও অন্তরে  আমি ঘাস ফড়িং।
আগুনে ভয় পাইনা, আলোর সন্ধানে ছুটি আমরণ।

৪৩৯জন ২৯১জন
0 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য