সোনালী এবং একটি উন্মাদ রাত

ত্রিস্তান ২৪ জানুয়ারী ২০২০, শুক্রবার, ০২:৪০:৩৮অপরাহ্ন কবিতা ২৮ মন্তব্য

গতরাতে তোমার শরীরের গন্ধে যখন পুড়ছিলো মন
আকুন্ঠ তৃষ্ণা মেটাবো বলে হৃদয় ভেঙ্গে চৌচির,
উন্মাদ তরঙ্গ তব অলিখিত চুক্তি ভেঙ্গে ফিরে আসে
তলপেটের গোড়ালীতে আঘাত হানে, আমি নির্বাক চেয়ে রই।

কিছু স্বপ্ন মহাজাগতিক বৃত্তের কেন্দ্র বিদীর্ণ করে
শুক্র-বীজ বোনে পৈশাচিক উন্মাদনায়
তোমার সুঢৌল বিস্তীর্ণ বুকের জমিনে ঐকান্তিক আক্ষেপে-
যেন বুনে যেতে চায় প্রজন্মের দ্বিতীয় সূতিকাগার।

নিঃশ্বাসের ঝড়ো হাওয়ায় পাল ছিঁড়ে ভুল গন্তব্যে ধেয়ে যায়
উদ্দাম যৌবন তরনী আমার, বেসুরো কন্ঠে গেয়ে উঠি-
খোল দ্বার- খোল দ্বার; ওহে চির যৌবনাবতী “সোনালী”-
দেখো দুয়ারে তোমার সপ্তাচার্য্য লয়ে উপনীত প্রেম।

তারপর বিক্ষুব্ধ উইপোকার মতোই নিঃশব্দে বিচরণ
তোমার শরীরের ভাঁজে- খাঁজে- নাভীমূলে জমে থাকা অমিয় পিয়ে,
হিমালয়ের অন্নপূর্ণা আর কাঞ্চনজঙ্ঘা ডিঙিয়ে নেমে যাই –
নায়াগ্রার অপরূপ সৌন্দর্যের অপূর্ব অববাহিকায় ।

সহস্র শতাব্দী ধরে তৃষ্ণার্ত অন্তরে যতটুকু ছিলো অভিলাষ
দিয়েছিলে তুমি সবিই ছিলো যতো সঞ্চয়ে ক্ষণতরে করোনি হতাশ,
স্বার্থক হয়েছে মোর অকুণ্ঠ ভালোবাসা তবুও মানে না এই প্রাণ-
আমৃত্যু যেন থাকে সোনালীর বাহুপাশে উন্মাদ এক ত্রিস্তান।

৩২৯জন ১০৪জন
23 Shares

২৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য