লজ্জাবতীর লজ্জা

সুপর্ণা ফাল্গুনী ৪ জুলাই ২০২০, শনিবার, ১২:০০:১৪পূর্বাহ্ন কবিতা ২৪ মন্তব্য

 

একটু ছোঁয়া পেয়েই  লজ্জাবতীর পাতাগুলো লজ্জায় গুটিয়ে বসলো,
যতই আবদার করছি,
আদর-সোহাগ করছি সেতো আর হাসে না পেখম মেলে –
গোলাপের সুবাসিত পাপড়ি গুলো পাশ থেকে কানে কানে বলছে ,
‘এই লজ্জা চোখ খুলে দেখ- বাইরে কি সুন্দর আলো ঝলমল করছে,
তোকে ভালোবেসে কাছে ডাকছে।’
নাহ! লজ্জাবতী পণ করেছে আজ আর সে দ্বার খুলবে না।
আমিও জিদ ধরে বসে আছি -নাছোড়বান্দা।

হঠাৎ ঝুম বৃষ্টি শুরু হলো-
ভাবলাম এবার নিশ্চয়ই সে বৃষ্টিতে ভিজবে,
আর আমি তাকে খপ করে ধরে ফেলবো;
দুজনে হাত ধরাধরি করে ভিজবো, গান গাইবো, নাচবো, খেলবো মনের সুখে।
এখনো লজ্জাবতী চোখ খুলছেনা-
আমার ও জিদ-গ্রাফটা  তালগাছের মাথায় তরতর করে উপরে উঠছে।
এদিকে বৃষ্টিতে ভিজে জবুথুবু অবস্থা।
লজ্জাবতীর মাথার মিষ্টি-গোলাপি ঝুটি গুলো-
আমার দিকে তাকিয়ে মুচকি মুচকি হাসছে আর দুলছে।
মনে হচ্ছে আমাকে বলছে, ‘কেমন জব্দ হলে? আর ছোঁবে লজ্জাকে?’
আমার খুউব অভিমান হলো, রাগ হলো;
কান্না ঝরছিলো দু’চোখের আকাশ ভেঙে।
কান্নার লোনাজল বিশুদ্ধ, মিষ্টি জলে বারবার ধুয়ে যাচ্ছিলো।
কোনটা কান্না আর কোনটা বৃষ্টির জলধারা অস্পষ্টই রয়ে গেলো আজো।

২৫৩জন ২জন
0 Shares

২৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য