মরণোত্তর

নাজমুল হুদা ১৫ জুন ২০২০, সোমবার, ১২:০৩:৫৯অপরাহ্ন কবিতা ১৮ মন্তব্য
হঠাৎ যদি দৈত্য এসে বলে-
রাষ্ট্রের জমিনে এতো নারী সহিংসতার উপদ্রব
আপনার হাতের এই যে কলমটি দেখা যাচ্ছে
তাঁর কী অনুভূতি—আপনি বলুন!
.
ছিপি আটকে তড়িঘড়ি গোপনে লুকিয়ে নিবো
তাঁর হুটহাট আগমনী প্রশ্নে আমি খুব বিব্রত
আমি অভ্যস্ত নই–এড়িয়ে যাবো প্রশ্ন তাণ্ডব।
.
আবার যদি আমাকে প্রশ্ন করে-
গতকাল আপনার প্রেমিকা আগুনে পুড়ে গেছে
ঠোঁট থেকে বারুদের গন্ধ বের হচ্ছে অনবরত
যার কোমল হাত বারবার শব্দশিল্পে উচ্চারিত
তাঁর অকাল মৃত্যু ও চলমান নারী সহিংসতায়
হাতের কলমটির কী শোকবার্তা– আপনি বলুন!
.
আমি রাগান্বিত নিজেকে সংবরণ করে নিবো
তাঁর উদ্ভট প্রশ্নের বিবরণ আমি দিতে নারাজ
অনিরাপদ ভীতিগ্রস্ত— এসকল প্রশ্ন তাণ্ডবে।
.
তৃতীয়বার, চতুর্থবার কিংবা শেষবার
দৈত্যটি আমাকে আষ্টেপৃষ্ঠে জাপটে ধরবে
আমি শোকার্ত নিরাপদে
তাঁর সকল প্রশ্ন সারাংশে
একজন দুভাষী যেমন শ্রোতাকে শান্তি দেয়
তেমনিভাবে নিজেকে শান্তি দিবো, বলবো-
       :কান্নারত চোখের জল। চিৎকার করতে
পারিনি। শুকানো জল। মৌনতায় গিলে যাচ্ছি রাষ্ট্রের যাবতীয় দুঃখ।
 .
এ সকল প্রশ্নোত্তরে আমার বিশেষ ইচ্ছে
আমাকে বিশালাকার একটা থুথু উপহার দিন
আমি রাষ্ট্রীয় কান থুথুতে বধির করে দিতে চাই,
.
বাসযোগ্য পৃথিবী; আমি প্রিয়তমার শেষ ইচ্ছে
মরণোত্তর ভালোবাসি লিখতে চাই
মরণোত্তর ভালোবাসি বলতে চাই
**ছবিটি ব্লগ থেকে নেওয়া।
২৮৬জন ১৭৭জন
0 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য