“তবু ভালোলাগা, ভালোবাসা এক নয়”

রেজওয়ানা কবির ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০২:০১:৪৩অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৯ মন্তব্য

ভালোলাগাঃ

কাউকে একবার দেখলেই ভালোলাগা কাজ করে, এরকম কিছু মানুষই আছে যাদের মধ্যে এক ধরনের আকর্ষন শক্তি আছে যা এক পলকেই অন্যকে আকৃষ্ট করে ফেলে।প্রথম ভালোলাগার পর পর পর কয়েকবার দেখা হলে অনেকসময় সেই ভালোলাগা স্থায়ী হয়, আর ভালোলাগার পরই শুরু হয় পাওয়ার আকাঙ্খা,যতসব পাগলামি,বেড়ে যায় আবেগ, অনুভূতি,চোখের সামনে যা দেখে তাই অতুলনীয় লাগে।তখন ভালোলাগায় এতই আসক্ত হয়ে পড়ে যে দিকবিদ্বিকশূন্য হয়ে পড়ে, দিশেহারা হয়ে পড়ে,ভালোলাগার মানুষকে পাওয়ার জন্য, তাকে সামান্য খুশি করার জন্য অনেক ভুল কাজ করে ফেলে যা সে নিজেই বুঝতে পারে না।এরকম ভালোলাগা জীবনে শুধু একবার নয় বার বার আসতে পারে,যেকোনো বয়সেই আসতে পারে।এই ভালোলাগা আসার কোন নিদির্ষ্ট সময় নাই,কিশোর বয়সে,সিনেমার নায়ক, নায়িকাকে ভালো লাগে, তাদের দেখার জন্য টেলিভিশনের সামনে অধীর আগ্রহে বসে থাকে।শালমান শাহের মৃত্যুতে বাংলাদেশের অনেক সাধারণ ছেলেমেয়ে এই কষ্ট মেনে নিতে না পেরে আত্নহত্যা করেছিল,অনেকে দুঃখে, কষ্টে খাওয়াদাওয়া বন্ধ করেছিলেন।এরকম অনেক ঘটনা ঘটে জীবনে শুধুমাত্র ভালোলাগার জন্য। ভালোলাগা ভালো, কিন্তু তার মাত্রা থাকা দরকার,ভালোলাগাটা সহনীয় পর্যায়ে রাখলে, আবেগ, অনুভূত, চিন্তাভাবনা,সবই সহনীয় পর্যায়ে থাকে, ভালোলাগার মানুষকে ভালোলাগান,কিন্তু নিজের সবকিছু ঠিক রেখে,কেননা যা আপনার এখন ভালোলাগার তা পরে নাও ভালোলাগতে পারে,কারন দুর থেকে অনেক কিছুই চোখের দেখায় ভালো লাগতে পারে,কিন্তু কাছে গেলেই, আকর্ষন-বিকর্ষন দ্বন্দের সৃষ্টি হয়,ভালোলাগায় ভাটা পড়ে।আবার ভালোলাগানো প্রকাশ বেশী হওয়ার সাথে সাথে যাকে ভালোলাগে তার দিক থেকে পচন্ডরকমের অবহেলা শুরু হয়,যা আপনাকে আরও বেশী আকর্ষিত করে,আপনাকে  ভুলপথে পরিচালিত করে।যত যাই হোক, ভালো লাগা স্থায়ী হয় না,এটা পরিবর্তনশীল।এই ভালোলাগার অনুভূতি যতবার জীবনে কাউকে ভালোলাগবে ততবারই একইরকম অনুভূতি হবে,অনেকটা প্রথম চায়ের কাপে চুমুকের মত। ভালোলাগার সম্পর্ক যেকোনো সময়ে, কারন ছাড়াই ভেঙে যেতে পারে।ভালোলাগার মানুষকে বেঁধে না রেখে স্বাধীনভাবে ছেড়ে দিন,উড়তে দিন নিজস্ব আকাশে,আকড়ে ধরার চেষ্টাই করবেন না, কারন এতে কষ্ট  আর সময় নষ্ট ছাড়া কিচ্ছু পাবেন না।একেই বলে”ইনফ্যাচুয়েশন’।এই ভালোলাগা মানুষের জীবন থেকে অনেক কিছু কেড়ে নেয়,স্থান শূন্য করে দিয়ে স্বার্থপরের মত চলে যায়।ভালোলাগা ভালোলাগার বাকিসব অনুভূতি নষ্ট করে দেয়,মনের মাঝে দাগ কেটে যায়।        

ভালোবাসাঃ
অনেকেই বলে প্রথম দর্শনেই প্রেম। এটা একদম ভুল কথা।ভালোবাসা ধীরে ধীরে তৈরী হয়।ভালোবাসায় দুজন দুজনের প্রতি শ্রদ্ধা বিশ্বাস, বুঝতে পারার ক্ষমতা থাকতে হয়,ভালোবাসায় স্যাকরিফাইস থাকতে হবে,ভালোবাসা এমনই অনুভূতি যে নিজেও বোঝা যায় না, কখন জীবনে আসে।এমনভাবে আসে, যে আসার সময় অনেক ধরনের শিহরন জাগে।বুকের ভিতর অদ্ভুত অনুভূতি কাজ করে,ভালোবাসার মানুষ পরিস্থিতির কারনে চলে যেতে পারে কিন্তু ভালোবাসা সারাজীবন একইরকম থাকে,দূরত্ব যতই হোক তার প্রতি ভালোবাসার পরিমান একবিন্দুও কমে না।হয়তো,যোগাযোগ থাকে না, তবে ভালোবাসা একই থাকে।ভালোবাসায় ত্যাগ স্বীকার করতে হয়,ভালোবাসায় কোন স্বার্থ থাকে না।ভালোবাসা নির্ভেজাল,খাটি হয়।কাউকে ভালোবাসলে শুধু পরিপূর্নভাবে ভালোবাসতে হয়,তার ভালো, খারাপ সবকিছু নিয়েই সম্পূর্ন মানুষটাকে ভালোবাসতে হয়। ভালোবাসার মানুষকে কষ্ট যতটুকু দিবেন,তার চেয়ে দ্বিগুন পরিমান কষ্ট আপনি নিজেই পাবেন।ভালোবাসার মানুষের প্রত্যেক মুহূর্তে অনুভব করা যায়,তার পাশে সারাজীবন দুরে,কাছে যেখানেই হোক থাকা যায়। ভালোবাসার অনুভূতি স্থায়ী,ভালোবাসাও অনেক ধরনের হয়,ভালোবাসার মানুষও একেকস্থানে একেকরকম।ভালোবাসা মানেই তাকে কাছে পাওয়াও নয়,দুরে থাকলেও অনুভব করা।সব  ভালোবাসা  শুধু কাছেই টানে না দূরে ঠেলে দেয়।কিন্তু স্বাধ একইরকম থাকে। বিরহের মাঝেও আরেকধরনের ভালোবাসা থাকে,যেটা পরবর্তী জীবনেও একইভাবে প্রভাব ফেলে।  তাইতো অনেক কবি বলেছেন,প্রেম কাছেই টানে না,বিরহেই আসল প্রেম।তাই ভালোবাসলেই তাকে পাওয়ার আশা করা যাবে না। অনেককেই ভালোবাসা যায় তবে সম্পর্কভেদে আলাদা। ভালোবাসার স্থান ও আলাদা।ভালোবাসা যার জন্যই হোক সেটার দখল আরেকজন নিতে পারে না।হয়তো সে অন্য একটা ভালোবাসার জায়গা দখল করে কিন্তু আরেকজনের ভালোবাসার স্থান নিতে পারে না।ভালোবাসা যার প্রতি যেমন তেমনী থাকে।ভালোবাসায় ও আবেগ, অনুভূতি পাগলামো সব থাকে এসবের সাথে ভালোবাসাটাও সারাজীবন থাকে।তাই এভাববেই গান দিয়ে শেষ করি,
” চোখেতে অনেক ছবি ভালোলাগে,
   আপন করে পেতে স্বাধ যে জাগে,তবু
   ভালোলাগা,ভালোবাসা এক নয়”
ভালোবাসুন,বা ভালোলাগান তাকেই যে আপনাকে গুরুত্ব দিবে,আপনার অনুভূতির মূল্য দিবে,এবং সম্পর্কটাকে শ্রদ্ধা করবে।কেননা জীবনে ভালোবাসার পাশাপাশি ভালোলাগাও থাকবে।সেজন্য, ভালোলাগান,ভালোবাসুন সঠিক মানুষকে।ভুল মানুষকে ভালোলাগালে,বা ভালোবাসলে নিজেকে ভুল পথে পরিচালিত ছাড়া আর কিছু পাওয়া যাবে না,অনেকসময় সুন্দর জীবনটা ভুলে ভড়া জীবনের গল্পে পরিনত হয় এবং সবকিছু ভুলে পড়ে থাকে,শূন্য হয়ে যায়। অপরদিকে সঠিক ভালোবাসা, ভালোলাগা মানুষেকে স্বর্গীয় সুখ দান করে,জীবনকে সুখী করে।সঠিক মানুষ পছন্দ করুন,জীবনকে উপভোগ করুন।
ভালো অনেককেই লাগতে পারে,সেটাকে গুরুত্ব না দিয়ে ভালোবাসাকে গুরুত্ব দেন,যেটা ফাঁপা বেলুনের মত চুপসে যাবে না,হাওয়াই মিঠাইয়ের মত ও চুপসে যাবে না,গ্লাসে বন্দী করাও যাবে না,এমনভাবে তাকে ভালবাসুন,তাকে মুক্ত আকাশে ছেড়ে দিন,ঘুরির মত উড়িয়ে দিন,রং ধনুর রঙে নিজেকে ও ভালোবাসার মানুষকে রাঙ্গান,ভালো থাকুন ভালোবাসার মানুষের সাথে,শ্রদ্ধা  রাখুন আপনার/  আপনাদের ভালোবাসার প্রতি।
 অনেকেই বলে ভালোবাসা ভালোলাগা থেকেই তৈরী, কিন্তু সেটাকে অনেকদিন মনে লালন করতে হয়। ভালোলাগার    আরেক রুপ ভালোবাসা  তবু ভালোবাসা, ভালোলাগা এক নয়।
ছবি সংগ্রহ ঃ নিজের
২৬৪জন ৯১জন
0 Shares

২৯টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য