ঘরের গেরস্থালী

ছাইরাছ হেলাল ১৭ জুলাই ২০২১, শনিবার, ১০:৩৩:২৬পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৬ মন্তব্য

 

রোদ-ডানায় ভর করে কখন যে পৌঁছে গেছি, গোধূলির পর অন্ধকারের-জ্যোৎস্না পেরিয়ে স্ফটিক-শিশিরের সকালে,
জন্ম-সমুদ্রের ব-দ্বীপে; ক্ষয়িষ্ণু (পেন্সিলে আঁকা) জীবনে এও তো অনেক পাওয়া, সুয়োরানী দুয়োরানি বলে কিচ্ছুটি নেই,  জন্মদাগে চিনতে পারে/পেরেছে সবাই, বৃত্ত-জীবনে আঙুলের ফাঁক গলে বেশী দূর যাওয়া, সহজ নয় মোটেই, বৃষ্টি-ভালোবাসায়।

কানামাছি-দিন-চিহ্নে পৌঁছে গেছি, আনন্দ সৈকতের গান-গল্পের পসরায় ডুবে যেতে যেতে শিমুল-বনে চোখ ফেলি, চাওয়া-পাওয়ার নিকেশ না-মিটিয়ে, কুড়বো মুক্তো-ঝিনুক; অপর্যাপ্ত দীর্ঘতম রৌদ্র-দিনের-শেষে জমিয়ে রাখা সুখ-দুঃখ কুয়াশা হেঁটে যায় পেছনে, ফিরে যায়,গুটি গুটি পায়ে পায়ে, সবুজের বনানী আবার সুখ খুঁজে নেয়/পায় সলাজ রোদে, অক্ষরে অক্ষরে, আত্মঘাতী ভিড় এড়িয়ে;

চৌকাঠে দাঁড়িয়ে মুখোমুখি,নিকালো উঠানে বেশ দেখতে পাচ্ছি ফেলে যাওয়া/রেখে যাওয়া ছাপ-ছবি,
ছিল-না প্রস্থান সেখানে, থাকবে-ও-না।

ভালোবাসার মন্ত্রদানে বোবা সুখ-পাখি আবার জেগে উঠে কথাচ্ছলে, অ-অলৌকিকত্বের বিশ্বস্ত বাগধারায়,
এখানে পুতে রাখা বীজ আবার জেগে উঠবে ঘ্রাণ-ফুলের সমারোহে, জন্মান্তরের মত, অনিঃশেষ যাদুতে।

ছবি নেটের।

১৮৯জন ৪জন
0 Shares

২৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য