এলোমেলো ভাবনা গুলো

শুভ্রনীল ৯ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ০৩:৪৬:৫৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৯ মন্তব্য

আমি শুধু দেখেছি,

চেয়ে চেয়ে দেখেছি

নিত্য তাহার যাওয়া আসা।

সে এসেছে; বিচরণ করেছে

শুধু আমার আঙ্গিনায়-

পড়েনি তাহার ছায়া।

কতবার ভেবেছি, আসবে এক্ষুনি

আঙ্গিনা মাড়িয়ে বসবে দাওয়ায়!

বাতাস এসে জানিয়েছে তাহার উপস্থিতি,

তবুও সে আসেনি; দাওয়ায় বসেনি।

তাহারই অপেক্ষায় চেয়ে চেয়ে

জানালার গ্ৰিলে মাথা ঠুকেছি

তবুও সে আসেনি; দাওয়ায় বসেনি

আমি শুধু দেখেছি,চেয়ে চেয়ে দেখেছি

 

কালের বিবর্তনে বহুদিন কেটে গেছে যোগাযোগহীন একে অপরের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে। তবুও মনের মন বলেছে যোগাযোগ না থাকলেও সে আছে, কাছেই আছে, পাশেই আছে। মন মনের চোখে দেখেছে  রোজ তার এবাড়ি ওবাড়ি  ঘোরাঘুরি। শুধু মনের বাড়িতেই পড়েনি তার পদধূলি। অথচ মন খুব করে চেয়েছিল সে আসুক, মনের উঠান মাড়িয়ে দাওয়ায় বসুক। হাতে হাত রাখুক, চোখে চোখ রাখুক, একরাশ নৈঃশব্দ্যিক নিস্তব্ধতা নিয়ে ঠোঁটে ঠোঁটে কথা বলুক। বৈরী আবহাওয়া মনের চাওয়াকে পাত্তা দেয়নি বলেই হয়তো সর্বদা সংশয়ে কেটেছে সময়।

অপেক্ষার শেষ প্রহরে;

দেখা হবে কী তাহার সনে?

বসত যাহার বুকের বাম অলিন্দে!

আধিপত্য যাহার হৃদয় সিংহাসনে!

দুর্দান্ত দাপটে শাষণ চলে যাহার মনোরাজত্বে!

অজস্র সংশয় মনের মধ্যে ঘুরপাক খেতে খেতে একটা সময় এসে মন হয়ে গেলো নির্বিকার নিশ্চুপ। কোনো কিছুতেই যেনো আর মনের কিছু যায় আসে না। প্রিয়জন কাছে থাকুক বা দূরে এতে বিন্দুমাত্র মাথা ব্যথা নেই। নেই কারো জন্য প্রতীক্ষায় পথ চেয়ে থাকা। মন যখন সমস্ত আশা ছেড়ে দিয়ে নিজেকে বন্দী করে নিলো একটা শক্তপোক্ত খোলসের ভিতরে ঠিক তখনই সে এসে কড়া নাড়লো মনের দরজায়। এতো দিন ধরে একটু একটু করে অভিমান জমে যে বরফের পর্বত সৃষ্টি হয়েছিল তা এক পকলের একটু দেখাতেই গলে জল হয়ে মিশে গেলো সমুদ্রের বুকে।

 

ওহে প্রিয় প্রিয়জন,

তোমারই জন্য অপেক্ষারা-

করেছিল কতো শতো আয়োজন!

তোমার ঐ মায়াভরা মায়াবী মুখখানি,

দেখবে বলে প্রতীক্ষা করেছে কতোদিন।

অবশেষে তুমি এলে; সমস্ত প্রতীক্ষার-

অবসান ঘটিয়ে কাছে টেনে নিলে আলতো চুমুতে!

সমস্ত সংশয় মেঘ হয়ে উড়ে গেলো দূরে বহুদূরে!

১৪৫জন ৪২জন
0 Shares

১৯টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য