মোহনাঃ ঐ আছিস? কি করিস?

অর্ণবঃ হুম। ভাবছি। পাঁচশ টাকার এক কাপ চা নিয়ে ভাবছি।

মোহনাঃ কি রে গাঞ্জা টাঞ্জা খেয়েছিস নাকি? কি ভাট বকছিস? পাঁচশ টাকা এক কাপ চায়ের দাম? তা কোথায় তৈরি হয় এমন চা?

অর্ণবঃ ঐ হারামী আগে শুনবি তো নাকি? না শুনেই বকবক করছিস।
রাত প্রায় ১২টা। শহর থেকে অনেকটা দূরে নির্জন রাস্তা আশে পাশে কোনো জানবাহন নেই। জনমানবশূন্য রাতের রাস্তা মৃদু বাতাসের আলতো স্পর্শ।আহ্ যেনো অন্যরকম অনুভূতি। আমি ধীরে ধীরে ড্রাইভ করছি আর গুন গুন করে গান গাইছি। হঠাৎ চোখে পড়লো এক চায়ের দোকানে আলো জ্বলছে। দোকানি ছাড়া আর কেউ নেই। এমন ফুরফুরে মেজাজে নির্জন রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে এক কাপ চা খেলে মন্দ হয় না। রাত যেহেতু আর নির্জন রাস্তা দেখে আমি আর পার্কিং নিয়ে মাথা ঘামালাম না। রং, রাইট সাইট ভেবে আর সময় নষ্ট না করে নেমে পড়লাম। মামা এককাপ চা দেন বলে একটা সিগারেট জ্বালাতে যাবো এমন সময় ধা ধা করে ছুটে এলো পুলিশের গাড়ি। আমার গাড়ির কাছে এসে গাড়ি থামালো। একটা চক্কর দিয়ে দেখে নিলো গাড়িটি। তারপর চা স্টলে এসে জিজ্ঞেস করলো গাড়ি কার আমি বললাম আমার।

পুলিশঃ আমি কি জানেন রং পার্কিং করেছেন।

অর্ণবঃ জ্বী জানি।

পুলিশঃ নতুন আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। রং পার্কিং এর জন্য কতো জরিমানা ধার্য করা হয়েছে সে বিষয়ে অবগত আছেন?

অর্ণবঃ জ্বী আছি।

পুলিশঃ জেনে শুনেও রং পার্কিং? এখন তো কেস খাইবেন।

অর্ণবঃ কেস খেলে তো আর কিছু করার নেই। আচ্ছা সে না হয় করবেন। আসেন চা খান আগে। মামা দেন আর এককাপ চা দেন

পুলিশঃ কেস ফাইল করবো নাকি ক্যাশে,,,,,,

ব্যস বুঝে গেলাম আমার কি করতে হবে। পাঁচশ টাকা হাতে ধরিয়ে দিলাম। আর ভেবে নিলাম এককাপ চা খেয়েছি পাঁচশ টাকায়। এবার বুঝেছিস কেনো বললাম এককাপ চা পাঁচশ টাকা।

মোহনাঃ  হা হা হা হা হা হা হা

২৭৪জন ১২১জন
14 Shares

২৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য