বর্ণের সমাহারে এঁকে যাই অক্ষরের আঁকিবুঁকি- একদিন হয়ত সত্যিই কিছু লিখতে পারব….আশা রাখি, আশাতেই বাঁচি”
৩ বছর ১১ মাস ১৭ দিনে প্রমান করেছেন প্রতিটি লেখায়- তিনি কতটা লিখতে পেরেছেন/ লিখছেন। শুধু লেখা? তাঁকে যাদুর কাঠি বললেও কম বলা হবে। তিনি অন্যকে দিয়ে লিখিয়ে নিতেও পারঙ্গম সফল ভাবে। কাকতালীয় বলে বাংলায় যে বিষয়টাকে আমরা সাধারণত জোড়াতালি দিয়ে বুঝি! আর ইংরেজীকে বাংলিশে রূপান্তর করে যদি বলি! কোইন্সিডেন্স! তাহলে বুঝবেন, আমাদের পদার্পণ একই সময়ে, একই অঙ্গনে এই এখানে। কেউ কাউকে চিনি না। জানি না। পাঠকের আগ্রহ কতটা তীব্র হলে ফেলে দেয়া কাগজের ঠোঙাকে খুব সাবধানে আঠা ছাড়িয়ে পড়তে চায়?* এখানেও অজান্তেই মনের আচরনের মিল আমাদের দুজনায়। সোনেলা গ্রুপে যিনি আমার লেখা কন্টেন্ট ফেইলের কারনে পড়তে পারেননি জানিয়ে মন্তব্য করেছিলেন প্রথম- ‘ আমি লেখাটা দেখতে পাচ্ছি না কেন ‘প্রশ্ন করে! জবাবে আমি কি বলেছিলাম মনে নেই,এটুকু বলেছিলাম স্পষ্ট মনে আছে- আপনার পড়ার আগ্রহ হলে, আমার ওয়াল থেকেও পড়তে পারেন কষ্ট করে। তিনি আমার স্যোসাল মিডিয়ার বন্ধু  হয়ে এলেন আমার ফেসবুক আইডিতে। কয়েকটা লেখায় তার বিচক্ষণ মন্তব্য দিয়ে আমাকে ধাঁধায় ফেলছেন বিরতিহীন রকম। স্বল্পবাক্য,বাক্যের কাঠিন্য, আমাকে দোদুল্যমান ভাবনায় লোভী এবং দুঃসাহসী করে তুলতে যথেষ্ঠ।  তিনিও পাঠক, আমিও পাঠক। ব্লগবাড়িতে আনাগোণা শুধু পড়ুয়া পাঠকের পরিচয়ে। তিনি প্রথম পোষ্ট নিয়ে এলেন -২০১৮ এ ৪ অক্টোবর, ৩:২:৩৮ সেকেন্ডে। –

“অতপর সোনেলায়”-
পাঠকের জন্য তার প্রথম লেখাটির পুরোটাই দিয়ে দিলাম.

*হা হা হা, সোনেলায় লিখতে অনেক সাহস থাকতে হবে।

# আরে, কিছুই লাগবে না। সব আমরাই , নিজেদের ব্লগ,এর চেয়ে বড় সাহস আর আছে কি?

* ঠিক আছে দেন আইডি খুলে,,

# কি করবো বলুন,

* আপনি নিজের মনের মত করে দিন। আমাকে শুধু ইউজার নেম আর পাসওয়ার্ড দিলেই হবে।

# হুম, হয়ে গেছে এই নেন আপনার আইডির লিংক।

* থ্যাংকু ভেরি মাচ!!

# স্বাগতম

*ইয়েস, সব ঠিক আছে, আমি বুঝাতে পারবোনা, অনেক খুশি হয়েছি, এখন থেকে আপনাদের লেখাগুলো ভালো করে পড়তে পারবো। থ্যাংক্স এগেইন।

# মাথার মধ্যে কিছু কথা গেথে নিন,

* বলুন,,

# সোনেলায় লেখা মানে কোনো নোবেল পুরস্কারের জন্য নয়,

* আর??

# এখানে কোনো পরীক্ষা নয় যে,কারো লেখার ভালো খারাপে পাশ ফেলের কিছু নেই।

* তারপর?

# এটি আপনার বাড়ির উঠোন, যেমন ইচ্ছা তেমন করবেন, লাফাবেন, এক্কা দোক্কা খেলবেন, জোরে গান গাইবেন, মনে যা চায় তাই করবেন। সর্বোপরি এটি আপনার নিজেরও ব্লগ। যা মন চায় তাই লিখবেন।

* হা হা হা, শুনছি বলে যান,

# আমি নেইলকাটার দিয়ে নখ কাটতে পারিনা এটাও কিন্তু লিখেছি, ছোটবেলায় মুরগি ভয় পেতাম, এটাও শেয়ার করেছি। তাই যেমন খুশি তা লিখুন। বলা শেষ।
ও আর একটি কথা আছে,

* কি??

# আপনি আপনার নিজের আনন্দের জন্যে লিখবেন, অন্যের জন্যে নয়।

* আমি নখ কাটতে পারি আর মুরগিকেও ভয় পাই না। সময় ও সুযোগ মতো লিখবো ওকে।”…

তিনি নদী আর ফাগুণের একজন বিদগ্ধ প্রেমিকা। অসংখ্য অ-কবিতা( তার ভাষ্যমতে) লিখেছেন নদী আর ফাগুণকে নিয়ে। নেল কাটারে নখ কাটতে কাটতে তিনি কেটে ফেলেছেন এ যাবৎ যাবতীয় সব সংশয়হীনতা।  অপরিহার্য হয়ে গেছেন এই সোনেলা ব্লগের সমৃদ্ধির মূল সঞ্চালন পর্ষদের কার্যবিধির ছকে। কখনো কখনো ভীষণ ক্লান্তিতে গ্রাস করে আদ্যোপান্ত অবয়ব। তবু….. তরী বাইতে আবার হাল ধরতে তিনি ক্লান্তি বোধ করেননি কখনো।  নিজেকে অপ্রতিরোধ্য, ইর্ষনীয় পর্যায়ে তুলে নিতে কোনো নষ্ট প্রতিযোগিতায় কখনোই নাম লেখাতে হয়না। যার যতটুকু প্রাপ্য, তা ঠিকঠাক এসে সঞ্চয়ের পাত্রে ভরে যায়।
অদেখা, অ-চেনা এই মানুষটা দিনে দিনে আমার মস্তিষ্কে গেঁথে গেছে এক অপরিমেয় বন্ধু সঙ্গায়। আমি তাকে কতক বুঝি আমার নিজের ভাষায়-

দিনের প্রতাপ কমে এলে ঘাসেদের কাছে ফিরি -ফিরতে চাইলাম বলে; ।
কড়া ছেড়ে অবসন্ন হাত ঝুলে থাকে বড় অসহায় হওয়ার অজুহাতে। পেছনে- সামনে- ডানে- বাঁয়ে আমার চতুর্দিক আস্ফালন করতেই থাকে বিপজ্জনক হরেক রঙা সবুজ; দম্ভের মত চোখদুটো খোলা রাখি কেবল শুন্যের মধ্যিখান চিরে ফেরে পথ বের করে করে হেঁটে যাবার রাস্তা বানাবার জন্যে।
ঝাড়জঙ্গল সাফ করতে করতে কখন যেন চোরকাঁটাদের সঙ্গে সখ্য গড়ে নিয়ে চলছিলাম; সেখান থেকে বেরোতে এসে দেখি ঘরের বাতাস অভিযোগ রেখেছে লম্বা ফর্দে। পায়চারি করতে করতে এগোচ্ছি ছেঁড়া রোদ্দুর তালি দেব বলে…..
আমার ডান পাশে জ্বলে সবুজের হাতছানী, বাঁ’পাশে কর্তব্য।
পানির পিপাসা আমার কন্ঠতালু রোধ করে রাখে- আমি হাতড়ে বেড়াই একা একলা পাঁচ আঙুলের কড়ায় সমান হিসেব গুণব বলে….!!”

মাঝে মাঝে আমাদের কথা হয় প্রযুক্তির এই মহা সুযোগের মাধ্যমে। আমরা বিনিময় করি অনুভূতির। শব্দ আদান প্রদানের মাধ্যমেই আমরা একে অপরকে বুঝে নিই কে? কতটুকু? কি? শান্ত অথচ দৃঢ় গাম্ভীর্যের আদলে শব্দের ব্যাবহার, আমি স্পষ্ট দেখতে /শুনতে পাই তার কন্ঠস্বরের ওঠানামাটুকুও। বেশি বলে ফেলছি বোধহয়! হোক…..
তাকে নিয়ে লিখব বলে অপেক্ষায় ছিলাম। জানি… যেভাবে তাকে উপস্থাপন করা সম্ভব,,,, তার কিছুই আমার দ্বারা সম্ভব হয়নি। ৩ বছর ১১ মাস ১৭ দিনে তিনি দুইশততম পোষ্ট আপলোড করেছেন ভোররাত ৩-১৬-৩৮ সেকেন্ডে……..

স্বপ্ন প্রসবণ/

ইচ্ছে করে,
স্বপ্ন গুলো উড়িয়ে দেই পাখির ডানায়
টুকরো টুকরো হয়ে ছড়িয়ে পরুক সবুজের প্রান্তরে

কিছু লেপ্টে থাকবে আকাশের নীলে
কিছু গিয়ে আছড়ে পড়বে দুরন্ত নদীর বুকে
কিছু স্বপ্ন তপ্ত হয়ে ফুটতে থাকবে আগ্নেয়গিরির লাভায় প্রবল আক্রোশে কিছু স্বপ্ন নেমে যাবে পাহাড়ি ঢলে।”

এতক্ষণ তিনি/তার বলে বলে যাকে অভিহিত করলাম! আপনাদের কারো বুঝতে বাকি নেই নিশ্চিত, তিনি কে? তিনি সোনেলা ব্লগের অপরিহার্য এক নাম- সাবিনা ইয়াসমিন যাকে এই সোনেলা ব্লগই অভিষিক্ত করেছে “সোনেলা ইয়াসমিন ” নামে।  তোমার সর্বাঙ্গীন মঙ্গল কামনায় পুরো ব্লগ টিম এবং পাঠক লেখকের পক্ষ থেকে জানাই অকৃত্রিম ভালবাসা, শুভেচ্ছা🌹🌹🌹🌹❤️❤️❤️❤️ তোমাকে ইর্ষনীয় পর্যায়ে ভালবাসে এই সোনেলা ব্লগের সকল পাঠক/লেখক সব্বাই। ছাড়িয়ে যাও স্বপ্ন থেকে আরো স্বপ্নের উচ্চতায়।

সাবিনা ইয়াসমিনঃ

নিবন্ধন করেছেন- ৩বছর ১১ মাস ১৭ দিন।
পোষ্টঃ ২০০
মন্তব্য করেছেনঃ ৬৯২১
মন্তব্য পেয়েছেনঃ ৬৩৮৩টি
মন্তব্য দেয়া নেয়ায় বোঝা যায় সাবিনা ইয়াসমিন কতটা ব্লগ নিবেদিত প্রাণ!” তুমি না থাকলে সকালটা এত মিস্টি হতনা” তুমি সোনেলার কান্ডারী… ভুলে গিয়ে বাঁচতে যেও না কখনো। ভালবাসা❤️❤️❤️❤️

৩২৭জন ২৪জন
0 Shares

৩২টি মন্তব্য

  • রোকসানা খন্দকার রুকু

    সাহস করলাম শুধু মন্তব্য নয়। এ লেখার ভাষা নেই আপু এতো সুন্দর হয়েছে🥰🥰একদম ফাটায় ফেলছেন। আবেগ, প্রশংসা, প্রেম, সত্য সব একসাথে ধরা পড়েছে।
    ২০০ তম পোস্টের শুভেচ্ছা সঠিক মানুষের কলমেই ধরা দিয়েছে। অসাধারণ অসাধারণ!!!

  • রোকসানা খন্দকার রুকু

    @সাবিনা ইয়াসমিন,
    দুইশততম পোস্টের জন্য অনেক অনেক শুভকামনা ও ভালোবাসা 🥰🥰
    দুজনের বন্ধুত্ব আরও অটুট হোক! আর আপনি, আসলেই ভুলে গিয়ে বাঁচতে যাইয়েন না, আপনি যে সোনেলার প্রাণ!!! অসাধারণ সব অ-কবিতায় ভরে উঠুক আমাদের অঙ্গ ন এই কামনা।।।🌹

  • খাদিজাতুল কুবরা

    আমাদের সকলের অতিপ্রিয় শ্রদ্ধাভাজন বন্ধু প্রতিম সাবিনা সম্পর্কে লেখার জন্য প্রিয় বন্যা আপুকে অফুরন্ত ধন্যবাদ। আর সাবিনাকে অভিনন্দন এবং ফুলেল শুভেচ্ছা।
    যখন ব্লগে প্রথম এলাম, একটু ভয়ে ভয়ে ছিলাম। সত্যি পারবোত?
    কিন্তু সাবিনার এত উৎসাহ আর বন্ধুবৎসল দিকনির্দেশনা পেয়েছি যে আজ সোনেলাই অন্যতম ভালোবাসার পীঠস্থান। বন্যা আপু আপনি খুব সুন্দর করে এই গুনীজনকে বর্ণনা করেছেন। খুব ভালো লাগছে পড়ে। জ্বরের ঘোরে এতখানি ভালো লাগায় ডুবিয়ে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ। দুজনেরই সুস্বাস্থ্যের জন্য শুভেচ্ছা

  • মনির হোসেন মমি

    অভিনন্দন।।অভিনন্দন।।অভিনন্দন।।দ্বি’শততম পোস্টের জন্য
    অভিনন্দন।।অভিনন্দন।।অভিনন্দন।। অ-কবিতা আবিষ্কারের জন্য
    অভিনন্দন।।অভিনন্দন।।অভিনন্দন।। ভালো পাঠক হওয়ার জন্য
    অভিনন্দন।।অভিনন্দন।।অভিনন্দন।। ভালো ও সহযোগীতাপূর্ণ সহ ব্লগার হওয়ার জন্য
    অভিনন্দন।।অভিনন্দন।।অভিনন্দন।। অনেক অলিখিত লেখা প্রকাশ এবং ব্লগার তৈরী করার জন্য
    অভিনন্দন।।অভিনন্দন।।অভিনন্দন।। সোনেলার বিপদে আপদে আঠার মতন লাইগ্গা থাকার জন্য
    অভিনন্দন।।অভিনন্দন।।অভিনন্দন।। স্বপ্ন প্রসবণ/

    অভিনন্দন।।অভিনন্দন।।অভিনন্দন।। আমার বড় আফার জন্য

    পোস্টকৃত ব্লগারকেও বিশেষ ধন্যবাদ।কত সুন্দর ভাবে প্রকাশ করলেন সোনেলা ব্লগে কেন লিখবেন-কিসের আশায় লিখবেন?কেমন তার পরিবেশ আন্তরিকতা।
    ভালো থাকবেন
    সুস্থ থাকবেন
    আরো বেশী বেশী লেখা লিখবেন
    মাঝে মধ্যে বিরতীও চাই না।

  • রেজওয়ানা কবির

    তিনি এমন একজন মানুষ যার লেখা পড়লে মনে হয় বার বার প্রেমে পড়ি,আবেগ,রোমান্টিকতা,প্রকৃতি অ কবিতা, সবকিছু তার লেখায় ফুটে ওঠে! ফাগুন-জাদুর নিপুন আর দক্ষ কারিগর তিনিই। তার হাতেই কলমের আকিবুকি এতো সুন্দরভাবে ফুটে ওঠে যার লেখায় মগ্ন হয়ে ডুবে থাকে আমার মত হাজার ও পাঠক। তিনি শুধু তারই তুলনা। তিনি শুধু ভালো লিখেনই না তিনি আমার কাছে একজন অদেখা, অস্পৃশ্য ভালোলাগার মানুষ যাকে ধরা ছোঁয়া না গেলেও তার অস্তিত্ব অনুভব করা যায়। তাকে নিয়ে লিখতে গেলে এরকম হাজার উপমায় শেষ করা যাবে না, তিনি একজন অনন্য অসাধারন। আমার কাছে তিনি হলেন ইনোসেন্টের কৌটা যার মায়ায় খুব সহজেই নিজেকে বেঁধে ফেলে। অনেক অনেক অভিনন্দন, ধন্যবাদ,শুভকামনা, ভালোবাসা সাবিনা আপু ২০০ তম পোস্টের জন্য। এভাবেই সোনেলার উঠোন জুড়ে থাকুন,নতুন নতুন আরও লেখা উপহার দিন এই প্রত্যাশা। সবার পাশে থাকুন,সুস্থ থাকুন,আপনার মত করে ভালো থাকুন ঠিক যেমনটি আপনি চান❤️❤️❤️।
    এবার আসি বন্যা আপু আপনার এই শুভেচ্ছা পোস্ট খুব ভালো লেগেছে বললে কম বলা হবে! চমৎকার, চমৎকার,চমৎকার হয়েছে। আপনার লেখাটি ৩ বার পড়লাম,খুব গুছিয়ে সুন্দরভাবে তুলে ধরেছেন সবার প্রিয় মানুষটিকে। অনেক ধন্যবাদ আর শুভকামনা বন্যা আপু❤️।

  • জিসান শা ইকরাম

    তিনি আমাদের প্রানের সোনেলার অপরিহার্য একজন চালক।
    নিজে তো চলেনই সাথে অন্যদেরও গন্তব্যে পৌছে দেন।
    সোনেলার সুদিন দুর্দিনে অবিচল আস্থায় সোনেলাকে ধারন করেছে গভীর মমতায়।
    ব্লগেকে নিয়ে যাচ্ছেন স্বপ্নের গন্তব্যে।
    ” সোনেলা ইয়াসমিন ” – প্রদীপ এর দেয়া নাম, এর চেয়ে উপযুক্ত, যুৎসই নাম আর হতে পারেনা।

    দুইশত তম পোস্টের জন্য সাবিনা ইয়াসমিনকে অন্তরের অন্তস্থল হতে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

  • জিসান শা ইকরাম

    শুভেচ্ছা পোস্ট এত সুন্দর হতে পারে!
    এই পোস্ট দিয়ে তো সারে বারোটা বাজানো হইছে, ভবিষ্যতে শুভেচ্ছা পোস্ট দেওনেয়ালাদের কঠিন করে দিলে তুমি।

    সহ- ব্লগারদের প্রতি কিভাবে সন্মান, শ্রদ্ধা, গুনের কদর, ভালোবাসা দেখাতে হয়- তা তোমার এই পোস্ট দেখিয়ে দিয়েছে।

    এমন সুন্দর পোস্ট দেয়ার জন্য তোমাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।
    শুভ কামনা।

    • বন্যা লিপি

      যদি তাই হয়- “ভবিষ্যতে শুভেচ্ছা পোস্ট দেওনেয়ালাদের কঠিন করে দিলে ” তাইলে ধরে নিন এটা একদম ঠিকাছে। এর চেয়েও আরো ভালো করে কেউ কেউ শুভেচ্ছা পোষ্ট লেখার অনুপ্রেরণা পেয়ে যাবে এখান থেকে।
      আমি চেষ্টা করেছি মাত্র….
      আপনার মন্তব্যে আমি ভীষণ অনুপ্রাণিত হলাম।কৃতজ্ঞতা সহ ধন্যবাদ।

  • হালিমা আক্তার

    এক গুনী লিখেছেন, আরেক গুনীর কথা।
    শুধু শুভেচ্ছা ও অভিনন্দনে মন ভরবে না।
    হোক কেক কাটা, ফুটুক বাজি।
    সোনেলার উঠানে কৃষ্ণচূড়ার হাসি।
    শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন উভয় কে।
    শুভ রাত্রি।

  • সাবিনা ইয়াসমিন

    আমি সেই কখন থেকে ঘুরঘুর করছি এখানে কিছু লিখবো বলে, কিন্তু কিছুই লিখতে পারছি না।
    এমন শুভেচ্ছা পোস্ট আমাকে হতভম্ব করে দেয়।
    তবে আমি হাড়েহাড়ে টের পাচ্ছি যে, মানুষ সব সময়ে শোকে পাথর হয় না, সুখেও পাত্থর হয়ে যেতে পারে!

  • প্রদীপ চক্রবর্তী

    সাবিনা, দিদি একজন তুখোড় ব্লগার!
    যিনি লিখতে পারেন এবং অন্যকে উৎসাহিত করতে পারেন।
    তাঁর এ গুণ আমার কাছে বেশ ভালো লাগার।
    তাঁকে অভিনন্দন।
    ..
    আর আপনার শুভেচ্ছা পোস্ট প্রশংসনীয়।
    বেশ লিখেছেন।

  • সুরাইয়া পারভীন

    এই পোস্ট চোখে পড়া মাত্রই ব্লগে এসেছিলাম। চুপিসারে এসে নিঃশব্দে পড়ে আত্মতৃপ্তি নিয়ে ফিরে গেছিলাম। সোনেলার প্রাণপ্রিয় ব্লগার আমাদের সোনেলা ইয়াসমিন আপু
    অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা রইলো আপনাদের দুজনের জন্যই

  • সাবিনা ইয়াসমিন

    কেউ আমার এতকিছুর দিকে খেয়াল রাখে, বিশেষ করে আমি কখন কয়টা বাজা’র কয় মিনিটে পোস্ট দিয়েছি/দেই! (এমনকি সেকেন্ড এর হিসাব পর্যন্ত)
    এটাও কারো মনে থাকতে পারে এটা আমার ধারণার বাইরে ছিলো। এই জন্য শুভেচ্ছা পাবো এমন ভাবনাতো অনেক দূরের কথা!!
    বর্তমানে অনেকেই নিজনিজ ব্যস্ততম সময়ে নিজের লেখা দুইবার পড়ে না, আর তুমি আমার সেইইই প্রথম লেখা থেকে শেষ লেখা পর্যন্ত পড়েছো, গুনে রেখেছো, আবার নিজের লেখা অফ রেখে অপেক্ষায় ছিলে কবে আমার ২০০তম পোস্ট পুর্ণ হবে আর শুভেচ্ছা দিবে!!!
    এমন আন্তরিকতা কাল্পনিক গল্পকেও হার মানিয়েছে বন্যা।
    এই পোস্ট পড়ার পর আমার একইসাথে দু’রকম ফিলিংস এসেছে। অত্যন্ত খুশি এবং দুঃখবোধ।
    খুশি হয়েছি তুমি আমার এই বিশেষ সময়টা মনে রেখে এমন একটা উপহার দিয়েছো। এই পোস্টে আসা সকল লেখকদের কাছ থেকে পাওয়া শুভেচ্ছা, আর তাদের কমেন্টে আমার প্রতি তাদের অবারিত ভালোবাসা পেয়ে। অনেক খুশি হয়েছি। আর দুঃখবোধ কাজ করেছে এইজন্য যে, তুমি/তোমরা সবাই আমাকে যেভাবে নিজেদের হান্ড্রেড পার্সেন্ট দিয়ে ভালোবাসো আমি তেমন কিছুই করতে পারিনি। আমার আরও অনেক কিছু করার ছিল, তাহলেই হয়তো বিনিময়ের প্রাপ্তিটা সমান সমান লাগতো।
    এখন আর কিছু লেখা যাচ্ছে না, আমার শব্দ ফুরিয়ে আসার আগে আবারও ধন্যবাদ দিচ্ছি। ভালো থেকো, ভালোবাসায় রেখো 🌹🌹

    • বন্যা লিপি

      তোমার মনে আছে কিনা জানিনা…আমার শততম পোষ্টেই বলেছিলাম, তোমার শত শত তম শুভেচ্ছা পোষ্ট আমি বেঁচে থাকলে লিখব। আমি কাউকে সেই ভাবে ওয়াদা দেইনা, যখন যতটুকু সমর্থে কুলায়,,,,আমি ততটুকুই করার/রক্ষা করার চেষ্টা করি। দেখো,,,,আলহামদুলিল্লাহ্,,,,আমি বেঁচে থেকেই তোমার শত শত( দুইশত) পূর্ণ হওয়া শুভেচ্ছা পোষ্ট লিখে, আমি আমার কথার মান রক্ষা করতে পেরেছি কিনা!
      আমি যা এবং বিশ্বাস করি! ততটুকুই সত্য ভাবে লিখেছি। অনেক অসম্পূর্ণতা রয়ে গেছে…. আরো লম্বা হয়ে যেত এ পোষ্ট, তাই এটুকুতেই ক্ষান্ত দিয়েছি।
      আমিও…এর বেশি তোমাকে আর কিছু বলছি না।
      আমার না থাকা দিনে আমায় ভালবেসে মনে রেখো। ভালবাসা❤️❤️❤️❤️🌹🌹

  • রিতু জাহান

    ওরে!
    শুভেচ্ছা পোস্ট পড়ে খুবই ভালো লাগলো।
    আমি আবারও বলছি, আপনি দারুন লেখেন আপু।
    আমি অনেক অলস,, লিখতে ইচ্ছে করে না আজকাল।
    বন্ধুদের ধমকে মাঝে মাঝে লেখা ওঠে।
    সোনেলা ব্লগে আমার লেখার হাতেখড়ি,,, অনেকটা সময় হয়ে গেছে এখানে পথ চলে।
    দুইশোতম পোস্টের জন্য শুভকামনা সাবিনা আপুকে।

    • বন্যা লিপি

      আমার লিখতে ভীষণ ইচ্ছে করে প্রাণের টানে। এ আমার আত্মার টান অথবা ভীষণ ভীষণ মনের খোরাক। একটা সময় যখন লেখা উধাও হয়ে গিয়পছিলো! আমার খুব কষ্ট হতো! আমি আবার ফিরতে পারব লেখায়! এ ভাবনা অবশ্য আমার ছিলোইনা। এই অনলাইন জগতে পা দেয়ার পর এই ইচ্ছে এবং টানটা নতুন উদ্যোগে ফিরে পেয়েছি যেমন সত্যি! তেমনি সোনেলা আমাকে গতি দিয়েছে প্রচুর ইচ্ছেমাফিক লিখতে।
      এই লেখা বিষয়টা আসলে এক নেশার মত,,, আমি লিখতে চাই,এটুকুই আমাকে এগিয়ে এনেছে এ পর্যন্ত। দারুন টারুন নিয়ে ভাবিনি, ভাবি…আমার লেখা পাঠকের পড়তে বিরক্ত ধরাবে নাতো!
      আপনারা যখন বলেন,,,,” আপনি ভালো লেখেন” আমার তখনও বিশ্বাস হয়না। কারন, আমি তৃষিত থাকি আরো আরো স্বনামধন্য লেখকের মত আমি কেন পারিনা লিখতে??

      আপনাকে অনেক অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা সহ ভালবাসা।

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ