সৌবর্ণ বাঁধন

কেন লিখি তার কোন বিশেষ কারণ নাই। ইচ্ছা হয় তাই লিখি!

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ১ বছর ৩ মাস ২ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ৬০টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ৫২৫টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ৭৩৬টি

হৃদয়পুরের গহীন বাতাস

সৌবর্ণ বাঁধন ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:০২:০০অপরাহ্ন কবিতা ৮ মন্তব্য
একটা নদী বুকের ভিতর ছিল, রুপালী মাছের ঝাঁকে উচ্ছ্বসিত প্রেম ছিল, স্রোতিস্বিনী রমণীর গন্ধ মেখে হয়েছিল তীব্র মাতাল, আমি চাঁদের আলোয় ছায়ার মানুষ ছিলাম, এবং মানুষেরা প্রকৃতই জানেনা সাঁতার,  তবুও শৃগালের মতো জেনেছি প্রেমে নেই পাপ,  সাঁতার না জেনেও দিতে পারি গহীন নদীতে ঝাঁপ, বদ্ধ ঘরের মতো চারিপাশে জ্বলজ্যন্ত অন্ধকার, এখন মাছেরা নেই! এখন ঘুমেরা [ বিস্তারিত ]
২৯ জুলাই, ১৯৮১ সাল, সমগ্র গ্রেট ব্রিটেন জুড়ে রাস্তায় নেমে উল্লাসে ফেটে পড়েছিল ব্রিটিশ জনগণ। বাকিংহাম প্যালেসের সামনে তখন তীব্র হর্ষধ্বনি, প্রতিটি বাড়ির কোণায় ঝুলছিল ব্রিটিশ পতাকা। ইংল্যান্ডের সিংহাসনের এক উত্তরাধিকারী প্রিন্স চার্লসের বিয়ের দিন ছিল সেটা। যাকে নিয়ে এতো আয়োজন সেই কনে তখন ব্যস্ত নিজেকে সাজাতে, হাজার হোক পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষমতাশালী রাজবংশের পুত্রবধূ হতে [ বিস্তারিত ]

অবতল

সৌবর্ণ বাঁধন ২৬ আগস্ট ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১১:৫২:১৭অপরাহ্ন কবিতা ২৩ মন্তব্য
আবছায়া আলো গিলে খায় ঘাসের দুপুর, ফিরে আসা ফড়িঙের মতো গুনগুন করে নারী, নক্ষত্র ঝরে পড়ে পায়ের তালুতে; বাজে স্নিগ্ধ নুপূর! সেই সব আলো অন্ধকারে লন্ঠন হাতে ফেরে বাড়ি, তাদের পাশেই বসে ফোকলা দাঁতের প্রাচীন বিকাল, হেসে দেয় গড়াগড়ি! কতো মজলিস শেষ হলো, জড়াজড়ি করে প্রেমাসক্ত মোরগঝুটির মতো, বুকে নিয়ে বিষাক্ত ছুরির বিত্রস্ত আলিঙ্গন,  মরে [ বিস্তারিত ]

দহনকালে উন্মাদ

সৌবর্ণ বাঁধন ২০ আগস্ট ২০২১, শুক্রবার, ০২:০৬:২৬অপরাহ্ন কবিতা ১০ মন্তব্য
পালংকের পাখার নীচে ফোঁসফাঁস করে চন্দ্রবোড়া সাপ, মোহিনী চন্দ্রোৎসবে টের পাও কি সেই উত্তাপ? দেবীর বাহনের মতো যুদ্ধবিমান গুলো করে আগুপিছু, জেসমিন ফুল হাতে পোড়ায় প্রজাপতি ক্রুশবিদ্ধ শিশু! এমন ভৌতিক ভাবে গড়াচ্ছে কয়েকশ দিন ও রাত, জীবন্মৃতের দল ঘুমঘোরে আউড়াচ্ছে- ‘দিওনা আঘাত! দরোজায় উঁকি দেয় প্রায়ই এক অভিশপ্ত প্রপাতের জল, আমার হাতের ফাঁকে গলে গলে [ বিস্তারিত ]

রূপান্তর

সৌবর্ণ বাঁধন ১৪ আগস্ট ২০২১, শনিবার, ১০:১৮:৩৮অপরাহ্ন কবিতা ৯ মন্তব্য
তোমাদের দেখাদেখি আমিও প্রায়ই ঢুকি, সুদৃশ্য মার্বেলের মতো কাঁচের জারে, দূর থেকে মনে হয় ওখানে সবাই শুধু হাসে, আলো আর আলেয়ার ঝংকারে! সবাই হাসে, গোল্ডফিস, ওরান্ডা, ক্যাটফিস, অথচ ভিতরে শুধু শোকসন্তাপের হিসহিস, সবটুকু জল মাছেদের কান্নার ফসল,  যদিও ফেসবুক ভরা হাসিমাখা অসংখ্য মুখ, দিনান্তে সেটাও তো দিলনা কোনই সুখ!  অমাবস্যার রাতে নিভে যাওয়া দীপাবলি, সংগোপনে [ বিস্তারিত ]

অবন্তিকা

সৌবর্ণ বাঁধন ১৩ আগস্ট ২০২১, শুক্রবার, ০৪:৪১:০৫পূর্বাহ্ন ছবিব্লগ ১৩ মন্তব্য
তার সাথে দেখা হয়েছিল প্রমত্ত নদীর মৃত্যুর দিনে, সে বহুকাল হয় বহুদূরে বিলীয়মান ছায়াপথে থাকে! অথচ এখনো আমি দিব্যি বেঁচে আছি শূন্যে! মাঝে মাঝে গর্জন করে মস্তিষ্কের বিক্ষুব্ধ টাইটান, দু চারটা ফাটল বয়ে আনে লোহিত লাভায় তীব্র টান! তখন কিছুক্ষণ জ্যান্ত ফুল হয়ে বসে থাকি নির্ভুল, মেঘেরাও জেনেছে ফেসবুকের কল্যাণে- আত্মার আরেক নাম আগুনের মতো [ বিস্তারিত ]

চিত্রলেখা

সৌবর্ণ বাঁধন ১ আগস্ট ২০২১, রবিবার, ০৪:২৪:০৯অপরাহ্ন ছবিব্লগ ১১ মন্তব্য
নয়নতারার নয়নে নয়নে সূর্য্য ভেসেছে আজ, এমন আগুনে পুড়তে বলো কার না জাগে সাধ, আজ বন্ধ থাকুক প্রেমের বাসর, বন্ধ থাকুক রুটিন মেনে দিনের সকল কাজ! জীবন যেখানে চুপ সেখানেও আকাশ থাকে, থাকে অস্তিত্বে মৃতদের তীব্র কম্পন, চলে যায় যারা না জানিয়ে হুট করে একদিন, তাদের শিডিউলেও থাকে সুদীর্ঘ ভ্রমণ! হয়তো ভাসছি সঙ্গীতের লয়ে বাতাসে [ বিস্তারিত ]

মায়ায় মানবী

সৌবর্ণ বাঁধন ২৯ জুলাই ২০২১, বৃহস্পতিবার, ০৯:৪৯:৩৫অপরাহ্ন কবিতা ১১ মন্তব্য
শোন মেয়ে! স্মৃতি তো পুতুল খেলা, কতো আজব চিড়িয়া এসে বসায় রঙ্গিন মেলা! কেউ মাটিতে কঠোর! কেউ পাথরে কোমল! কেউ ভাস্কর্যে গম্ভীর! কেউ প্লাস্টিকে ম্যানিকিন! কেউই তো পারল না দিতে সুখের খবর, জনমে যময পেলে দুঃখ তার নাম, কিভাবে ছাড়বে বলো সেই তীব্র ভার! মাঝে মাঝে কাঁদ, হুহু করে কাঁদ দুপুরের মতো রাতের গভীরে, গালের [ বিস্তারিত ]

ঝংকৃত নিউরন

সৌবর্ণ বাঁধন ২২ জুলাই ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১১:৩৬:০২পূর্বাহ্ন কবিতা ১২ মন্তব্য
মস্তিষ্কের প্রতিটি নিউরন কোষে, উঠলে নক্ষত্রের জন্মের মতো বিধ্বংসী প্রলয়, শীতল বিকালে শরতের শিশিরে ভেজা কফি, স্মৃতিতে জড়ানো ঘুম হয়তো উড়াতে চায়, তবুও কি তা কখনো শান্ত হয়! বালুর সৈকতে নক্ষত্রেরা মরে যেতে যেতে, বলেছিল আর জনমে জন্মাবে অবন্তীতে, বহুবার চেয়েছি তো ভুলে যেতে, তবু কি তা ভোলা যায়? তুমি রাজহংসীর মতো এমন উজ্জ্বল একজন, [ বিস্তারিত ]

কহেন উন্মাদ

সৌবর্ণ বাঁধন ১৭ জুলাই ২০২১, শনিবার, ০৭:২৮:২৩অপরাহ্ন কবিতা ১০ মন্তব্য
যদি নিঃসঙ্গতা দিবে নিরবধি, একাকীত্ব মেরু বরফের মতো হবে স্ফটিকে স্তূপীকৃত, তবে কেন আসে চৈত্রের বাতাসের মতো, প্রেমের আভাস! কেন আসে পাখি পরিযানে যদি নাই থাকে আর ঘর, প্রভু কার কাছে খুঁজে পাব এই বিচিত্র প্রশ্নের উত্তর? একটি সাগর পোড়ে, পরিত্যক্ত জাহাজ খরতাপে উত্তাল, বাদামী মেঘেরা উড়ে তবু মনে জ্বলছে মনস্তাপ! যদি বেলাভুমি নাই ছোঁবে [ বিস্তারিত ]

ইতি পিতাঃ একটি চিঠি!

সৌবর্ণ বাঁধন ১৫ জুলাই ২০২১, বৃহস্পতিবার, ০৪:২৫:১৭অপরাহ্ন বিবিধ ৮ মন্তব্য
প্রিয় সন্তান শোন! এনেস্থিশিয়ার গন্ধে ঝিমঝিম করছে করিডোর, ভিনগ্রহীদের মতো ছুটাছুটি করছে সাদা পোশাকের নার্স, কেমন একটা অবাস্তব গন্ধের ভিতর তুমি অবতরণ করলে, অনেকটা মাইকেল এঞ্জেলোর দেবশিশুর মতোন! শুধু পাখা নেই! সম্ভবত খুলে স্বর্গের সিন্ধুকে তুলে রেখেছেন ঈশ্বর! তখন ফজরের আজান হতে অনেক দেরী! গীর্জার ঘন্টা বাজা শেষ, মন্দিরে প্রাতপুজার লগ্ন আসেনি! তুমি আসলে পৃথিবীর [ বিস্তারিত ]

দূরত্ব

সৌবর্ণ বাঁধন ১৩ জুলাই ২০২১, মঙ্গলবার, ১২:১৫:৪৩অপরাহ্ন কবিতা ১৫ মন্তব্য
তুমি উত্তর মেরুতে বসে আছ, বরফের চাদর ও বালিশ জমে আছে, আমিও দক্ষিণ মেরুতে অকারণে ঘোরাঘুরি করছি, নেতিয়ে পড়া সিগারেটে, ফসকে যাচ্ছে বন্দুকের মতো লাইটার! আমাদের মাঝখানে, পৃথিবীটা একটানা ঘুরছে আর ঘুরছে, বহুদিন ঘুমায় না বোধ হয় সে! একই রঙের ছাদ তোমার আমার, অথচ কতোটা দূর ভাবো একবার, ছুঁতে গেলে পৌছায়না হাত! দেয়ালে দেয়ালে উঁকি [ বিস্তারিত ]

মান করোনা

সৌবর্ণ বাঁধন ১০ জুলাই ২০২১, শনিবার, ০১:৩০:১৫পূর্বাহ্ন কবিতা ৮ মন্তব্য
যদি খুব বেশি ভুল বোঝ বিক্ষুব্ধ মধ্যরাতে, চলে এসো তুমি এক্ষুণি এইখানে, বুকের পাঁজরে রাখা আছে অক্ষত ফুলদানি, মস্তিষ্কের ইনবক্সে জমা অতগুলো ফুল, দুজনেই সন্তর্পণে বের করে আনি! বাসন্তী শাড়ির মতো তীব্র হলুদ, অথবা লগ্ন দিনে জ্বলে থাকা বেনারসি লাল, তুমি আজো সঙ্গোপনে যাদের দিচ্ছ সামাল, বের করে আনো! পান করে যাক তারা পূর্ণিমার মতো [ বিস্তারিত ]

জিরাফ

সৌবর্ণ বাঁধন ৮ জুলাই ২০২১, বৃহস্পতিবার, ০১:৫৯:২৩পূর্বাহ্ন কবিতা ১০ মন্তব্য
তর্কালংকারের তর্কের ঝড় সাপের মতো প্যাঁচে শিশুতোষ পা দুটি নিয়েছিল বেঁধে! ধারাপাতে নামতার সিঁড়ি দিয়েছিল দুহাতে ধরিয়ে, কয়েক হাজার লাইনের শর্তাবলী!   গ্যালারির দর্শক কেবল তখন হাততালি দিয়ে বলেছিল, এইবার শিশু তুমি কচি পাতাদের মতো উঠো বেড়ে!                    আমিতো উঠেছি বেড়ে ঠেলে আকন্ঠ জঞ্জাল আপ্রাণ, তবে আমি ঠিক গাছেদের মতো হতে পারিনি! শুনি গাছেরা বলাবলি [ বিস্তারিত ]
ফ্রিদা কাহলোর পিতা গিলার্মো কাহলো হাঙ্গেরিয়ান বংশোদ্ভূত জার্মান ইহুদী ছিলেন। মা ছিলেন মেক্সিকান ইন্ডিয়ান বংশোদ্ভূত মেস্টিজো। ছয় মেয়ের মধ্যে সব চেয়ে বেশি পছন্দের জনকে ডাকতেন প্রিয়তমা ফ্রিদা নামে। গিলার্মো শৌখিন মানুষ ছিলেন, পিয়ানো বাজাতেন, দর্শন চর্চা করতেন, ছবি আঁকাতেন, ফটোগ্রাফিও করতেন। ছয় বছর বয়সে পোলিওতে আক্রান্ত হলে ফ্রিদার ডান পা শুকিয়ে যায়। এই বিকলাঙ্গতা তার [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য