তান্ত্রিক

জিসান শা ইকরাম ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৫, শনিবার, ১১:২১:২৯অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৫৭ মন্তব্য

tantrik-fire-puja
প্রতি বছরের এই সময়টি আমি আমার মাঝে থাকি না। আমার দেহ হতে আত্মা বের হয়ে পারলৌকিক জগতে চলে যায়। ২১ দিন ব্যাপী চলে প্রস্তুতি। প্রথম পর্যায়ে গহীন অরণ্যের মাঝে যেখানে সুর্যের আলো প্রবেশ করতে পারেনা, চব্বিশ ঘণ্টা আগুনের লেলিহান শিখা, ধোয়ার কুণ্ডলী, অভিজ্ঞ তান্ত্রিক গনের  ভরাট গলায় মৃত আত্মাদের সন্তুষ্টির জন্য মন্ত্রজপ, উদ্দামতায় চলে শামান-ড্রামের বাদ্য। নিকশ কালো আঁধারের ভৌতিক আলোয় যখন সবার চোখ রক্তবর্ণ এবং অবস্থান বিস্মৃত হয়ে যান সবাই, তখনই এই পর্যায়ের সমাপ্তি হয়। আমার দেহ তখন তৈরী পরবর্তী ধাপের জন্য।

images68
এখন আমি সম্পূর্ণ ঘোরের মাঝে।হেটে যাচ্ছি পায়ের পাতায় কোন কিছুর স্পর্শ পাচ্ছি না। নির্দিষ্ট কক্ষে প্রবেশ করেই আমাকে খেতে দেয়া হয় চার বছর বয়েসের মানব শিশুর দুটো রক্তাক্ত চোখ এবং কলিজা। চার বছরের শিশুর চোখ সব কিছুর উত্তর খোঁজে, পরলোকে আমাকে বিশেষ কিছু উত্তর খুঁজতে হবে বলে এই ভক্ষণ। অন্ধকার কক্ষের সবকিছু এখন দৃশ্যমান আমার কাছে। বেশ বড় ২৫ টি  পাথরের প্রতিটির উপরে রাখা দুইটি করে, পঞ্চাশটি কচ্ছপের খোল, আছে কয়েকটি গরুর লেজ এবং ছয়টি মানুষের পা! চারিদিকের ওয়ালে গরু, ছাগল, হায়েনা, শিয়াল এর মাথার কংকাল ঝুলানো। কিছু আছে তাজা, রক্ত ঝরছে মেঝেতে। কক্ষের এক কোনায় স্তূপ করে রাখা যাছে দশটি কুকুরের পা, কলিজা, মাথা, নাড়িভুড়ি, সকাল বিকেল নাস্তার জন্য ৩৮ টি জবাই করা ইঁদুর,আমার এ সময়ের খাদ্য এসব। এই কক্ষই আমার ১৯ দিনের আবাস। একাকি নিঃসঙ্গ রক্তাত্ত মেঝেতেই আমার শয্যা। চোখ খোলা রেখে বা নিদ্রার মাঝে দেখতে থাকি একটি মানুষের কংকাল, সামনে যার একটি প্রদীপ, যিনি আমার আত্মার পাহারাদার।

mind_body_04
কিছুক্ষণ পূর্বে আমি আমার দেহকে রেখে পারলৌকিক জগতে চলে এসেছি। আমার দেহ পরে রয়েছে এখানে। আমি আমার দেহে ফিরে না আসা পর্যন্ত তান্ত্রিকগণ আমার দেহকে ঘিরে মন্ত্রোচ্চারণ করতে থাকবেন। এক মুহূর্ত মন্ত্রোচ্চারণ বন্ধ হলেই আমি আর আমার দেহে ফিরে আসতে পারবো না। কোন অশুভ আত্মা আমার দেহে প্রবেশ করে যাবে।

সমস্ত বছরের উত্তরহীন  উত্তরের খোঁজে পারলৌকিক জগতে আমাকে যেতে হয়। উত্তর নিয়ে ফিরে আসি আবার। মানুষের মাঝে বেঁচে থাকা এক শামান আমি। চেনা পরিচিতজনের মাঝে অশুভ আত্মার আছর হলে সারিয়ে তুলি।প্রায়ই আমি ঘোরের মধ্যে থাকি, একারণে অদেখা বিষয়ও দেখতে পাই, ভবিষ্যত দেখি। স্বপ্ন দেখাই।

** শামান শব্দের দুটি অর্থ
১) যে জানে ( তান্ত্রিকরা জানে সব )
২) …………… এই অর্থটি প্রকাশ্যে বলা যাবেনা।

অঃকঃ আজ ভাদ্র মাসের অমাবস্যা।রাতদের মাঝে সবচেয়ে কালো রাত। তান্ত্রিকদের রাত।

প্রথম পর্বঃ ফিরে যাই শিকড়ের কাছে – সেই হাজার বছর আগের আমাদের পূর্ব পুরুষদের কাছে

দ্বিতীয় পর্বঃ শিকড় – ২

=====================
আমি আমি না, আমি সে ও না-পর্ব ২

১০২৮জন ১০২৮জন
0 Shares

৫৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ