কবিতায় পবিত্র পাঠ

ছাইরাছ হেলাল ২৯ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার, ০৫:৪৭:০১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৬ মন্তব্য

 

তছনছ করা জাস্তি রাধাচূড়া,গুচ্ছের কদম-সুঘ্রাণ,
খরাঋতুতে বৈশাখী ঝড়ে পাল উড়িয়ে হেঁটে যাব নক্ষত্র পথে,
নকশীকাঁথা-ভোর আমায় পথ দেখাবে, উচ্ছল হৃদ-স্পন্দনে;
শরৎ-মেঘ পেছনে ফেলে এসেছি, হাবুডুবু জল-মেঘের প্রতীক্ষায়,
উঠোন জুড়ে বর্ষণ-মুখর ভিজে যাওয়ার আবেগ আঞ্জাম,
দোলন চাঁপা ঘুম সে-ও আসবে;

কিছু স্বপ্ন স্বপ্নেই থেকে যায়, সময়ের আলিঙ্গনে,
সবুজ প্রান্তরের নীল-দিগন্ত বৃষ্টির ঝর্ণা হয়ে ধরা দেয়-না,
ক্লান্তি-বিহীন শূন্যতা চোখের আড়াল হয়-না,
পূর্ণতার আনন্দ অতি-সহ্যে, প্রচণ্ডতাভরা মুখে;
নিঃসহায় সাঁজ বেলায় ভর করে নিঃসঙ্গতা বরাবরের দক্ষিণ দুয়ারে,
মাটির শয়ানে, চমকে-ওঠা আমার চোখ অপরিচিততা ঘোষণা করে,
মেঘজমা-আকাশ ভুলে যায় বৃষ্টিকে, ইচ্ছে ঘুড়ির মত;
সাঁতার কাটে সুনামি-ঢেউ, চোরাবালির আধারে, দুর্বহ ফাঁদ, ঘন জালের;

এ কোন স্মৃতির যাদুঘর নয়, সম্বিত না হারিয়েই টের পাই,
গা-ঘেঁসে দাঁড়িয়ে আছে কেউ এক-জন, মিশে আছে আমার সাথে
সুহৃদ-স্বজন, পুনঃসৃজন পুনঃজাগরণের মত, ধূসর সোনালী আলো ফেলে,
ফরাসী সুগন্ধ ঢেলে, জীবনের নিষ্প্রাণ প্রান্তরে;
হাতে কবিতার চাবি নিয়ে, হাজার বন্ধ দরজা খুলে দেবে সে,
নিঃশব্দ অহংকারে চোখের নিমিষে, মগজ বিনাশী পৌরুষে,
চুপচাপ সুখ নিঃশ্বাসে; কালের/অনাগত কালের প্রতিধ্বনি থাকুক বা না-থাকুক;

কানে কানে বলি, এত তাড়া কিসের! সাবধানী হও,
কবিতার কুড়িগুলো হাসুক ঘটা করে সবুজে সবুজে, অলৌকিক মিছমারে
বিশেষিত-বিভাজিত হতে হতে শব্দ-স্বাদহীন হয়ে যেও-না।
গোলাপ ফোটানো হাসিতে নিঃশব্দতা ছড়িয়ে
শব্দ-ঝংকারে স্নায়ুর স্বাধীনতায় বলে ফেলে………
শব্দরে তুহু মম শ্যাম সমান;

দু’ঠোঁট বরাবর আগুন চেপে ক্রোধসুন্দর দৃষ্টি মেলে আঙ্গুল উঁচিয়ে দেখালাম,
ওই দূরে দেখ দেখ, জল প্রপাত, চাঁদ-ভাসা মেঘের মেলা,
ছুটে চলা পাহাড়ি-ঝর্ণা, চৈত্রের পিঠা সোওয়ার হয়ে ভেসে চলা
তীব্র বৈশাখ লুকিয়ে প্রমত্ত কাল বৈশাখীর আঁচল,
চোখের গভীরে লুকিয়ে থাকা স্বপ্ন পরাভবের এক-সমুদ্র রঙের ঝিলিক;

উত্থিত প্রমত্ত আবেগে সূর্য শাসনের ন্যায় অপাপ বিদ্ধ চোখ তুলে
প্রশ্ন রেখে বলে ওঠে, আমাকে কী এক্ষুণি কবিতা লিখে দেখাতে বলো?
পারি কী না-পারি? কবিতা খুলতে পারেনা এমন কোন তালা
ঈশ্বর তৈরি করেনি, করেছি কী? আমি তো  তা জানিনা।

প্রতিদিনের পবিত্র পাঠে আবৃত্তি থাকে, সে-তো আমরাই জানি।
১৮:২৭, ১৯:৫৮, ২২:৫২/৭২, ২৮:৫৯, ২৯:৪৫/৫১।

ছবি নেটের।

২৩৫জন ১২২জন
16 Shares

১৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য