বিভাগ: বিবিধ

জীবনানন্দ দাশ শুধু কবিতাই লিখেননি , গল্প উপন্যাস প্রবন্ধও লিখেছেন , যা আমরা অনেকেই জানিনা না। অধিকাংশ মানুষের কাছেই তাঁর পরিচয় শুধুই কবি হিসেবে। তাঁর কিছু বিখ্যাত কবিতা তাঁকে হয়ত শুধু কবি হিসেবে ভাবতে শিখিয়েছে আমাদেরকে। জীবনানন্দ দাশ এর গ্রন্থতালিকা :  কাব্যগ্রন্থ ঝরা পালক (১৯২৭) ধূসর পান্ডুলিপি (১৯৩৬) বনলতা সেন (১৯৪২) মহাপৃথিবী (১৯৪৪) সাতটি তারার [ বিস্তারিত ]
উইপোকার ঢিবে, যতটুকু গেছে যাক! কলাপাতার কোরক পাতায়, যেটুকু কুকড়ে পড়ে আছে, সেইটুকু আমার শেষ সম্বল! নইলে , আমি মানবজাতি থেকে বাদ! অকালে কোকিল ডাকলে, শুধু ভয় হয়, আমার ডিম, তার বাসা হারাবে না তো! তুমি আমার গালে, আগ বাড়িয়ে চুমু খাচ্ছো, সন্দেহ হয়! শতাব্দীর প্রাচীন, কোহিনুর গেছে যাক! আমার ‘তাজ’, মমতাজ হারাবে না তো! [ বিস্তারিত ]

আজ কবিতার দিন

সুলতানা সোনিয়া ১৫ অক্টোবর ২০১২, সোমবার, ১২:১৭:৪০অপরাহ্ন বিবিধ ৭ মন্তব্য
আজ আমার কবিতার দিন কিছু শব্দের গাঁথুনি/ কয়েকটা লাইন, কবিতা হোক বা নাই হোক আজ কবিতা লেখার দিন । কীবোর্ডে আঙ্গুলের ঝড়, দীর্ঘ সময় ধরে অস্থির হয়ে লিখে যাওয়া, এত টুকুনও থামবোনা আজ । যেন থামলেই শব্দগুলো হারিয়ে যাবে ! অনুভূতির সাথে মিশে ,, আজ সকল শব্দের হবে মিলন , ল্যাপটপের স্বচ্ছ চারদেয়ালের মাঝে । [ বিস্তারিত ]
ফেসবুকের পাতায় পরিচয় হয়েও ভৌগলিক দূরত্বকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে নিয়মিত যোগাযোগের মাধ্যমে যেসব বন্ধুরা আমার হৃদয়ের অন্দর মহলে ঢুকে পড়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম একজন বিদগ্ধ বন্ধু রায়হান হোসেন। অতি সম্প্রতি রায়হানের ফেসবুক প্রোফাইলে রাজনীতির গা ঘেঁষা একটা নোট পড়ে আমার মাথায় রাজনীতি কি তা জানার ভূত চেপে বসলো। (রা)তারাতি (জ)নপ্রিয়তার জন্য (নী)তি বিষর্জন দিয়ে (তি)লকে তাল [ বিস্তারিত ]

আশালতা

এজহারুল এইচ শেখ ১৩ অক্টোবর ২০১২, শনিবার, ০২:২৩:০৫অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি, কবিতা, সাহিত্য ৫ মন্তব্য
তোমাকে নিয়ে, আমি হয়েছি নীলকন্ঠ! ক্ষনিকে তুমি, সাগর সাঁতারাও, কাঠি বেয়ে, চাঁদে ঝাঁপ দাও, আবার রাস্তায়, পড়ে পড়ে কাঁতারাও! আশালতা, তুমি যখন ক্ষত-বিক্ষত, জীবন যুদ্ধে, তখন আমি তোমার জন্য, আমার পেটে পাথর বাধি, তখন আমি হই নবী! এখন তুমি, স্বর্গের পথের পথিক, আশালতা! আর তুমি শুনতে পাওনা! ক্ষুধার্ত শিশুর, রাত দুপুরের কান্না! শুনতে শুধু পাও, [ বিস্তারিত ]
বাবা, তোমার কি মনে পড়ে একদিন তুমি আমাকে তোমার প্রশস্থ কাঁধে করে ঘুরে বেড়িয়েছিলে সারা শহরময়? আমি এক হাতে তোমার চুল আর অপর হাতে তোমার গলা শক্ত করে ধরে রেখেছিলাম। বাবা, তোমার সেই কাঁধ ছুঁতে এখন আর আমাকে চেয়ারে কিংবা টেবিলের উপর উঠে দাঁড়াতে হয়না যেকোন অবস্থায় দাঁড়িয়েই ছুঁয়ে ফেলতে পারি অথচ তোমার সেই প্রশস্থ [ বিস্তারিত ]
শব্দের নিচে দগদগে ঘা! উপর থেকে শুধু, লাল সবুজ পোশাক ঢাকা! শব্দ গিললে তবে হবো শিক্ষিত, ভাত গিললে কি ভেতো! বিঞ্জাপনের মতোই, শুধু শিক্ষিতবাড়ে, পেছনের, কুমেরুর অন্ধকারে, এখন পৃথিবী ঘোরে! পেটে আলো পৌছায়নি , হ্যালোজেনের বিকিরণ, শুধু রোডেই আছড়ে পড়ে! ভাত নেই, তাতে আমার দুঃখ নেই! মন সংযমের, দীক্ষা নিয়েছি বেশ, মায়ের পেটের অন্তরালে! দুঃখ [ বিস্তারিত ]

বাবা

সুলতানা সোনিয়া ১১ অক্টোবর ২০১২, বৃহস্পতিবার, ০৪:০৩:২৪অপরাহ্ন বিবিধ ১১ মন্তব্য
আজ আমার চোখের জল গুলো রক্তের ফোঁটা হয়ে চোখ থেকে গড়িয়ে পড়ছে ! বাবার কাঁধে চড়ে এঘর থেকে সে ঘর দৌড়ানোর গল্প মনে হাহাকারের ঢেউ তুলছে ! দিনের শেষে বাবার বুকে মুখ রেখে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়তে ইচ্ছে করছে। মাথার উপর ছায়া গাছ হয়ে থাকো তুমি , জোছনা হয়ে আমার কপাল ছুঁয়ে দিও ! হারিয়ে [ বিস্তারিত ]

একলা নারীর কষ্ট সময়

সুলতানা সোনিয়া ১১ অক্টোবর ২০১২, বৃহস্পতিবার, ০২:২২:২০অপরাহ্ন বিবিধ ৯ মন্তব্য
কত প্রহর অপেক্ষায় কেটেছে একটু হাতের স্পর্শ পাওয়ার…একটু সঙ্গ পাওয়ার… কত ইচ্ছেকে অঙ্কুরেই গলা টিপে মেরেছি…! কখনো মেঘলা দিনে মন বিষণ্ণ করে থেকেছি .. চায়ের কাপে চুমুক দিতে দিতে ভেবেছি ইস ! কেউ যদি এসে পাশে দাঁড়াত ! কাঁধে হাত রাখতো ! বৃষ্টির দিনে দুহাত বাড়িয়ে বৃষ্টিকে ছুঁয়ে দেখেছি… রিমঝিম বৃষ্টির শুভ্র নাচ দেখেছি জানালায় [ বিস্তারিত ]

অনুভূতির চাদরে

সুলতানা সোনিয়া ১১ অক্টোবর ২০১২, বৃহস্পতিবার, ০২:২০:২৭অপরাহ্ন বিবিধ ৫ মন্তব্য
আজ সেই কলাপাতা রঙ্গা শাড়িটা পরবো গায়ে মাখবো দোলন চাপার ঘ্রান , কপালে দেবো সূর্য রাঙ্গা টিপ , ঠোঁটে সহস্র গোলাপ পাপড়ির আভা ! শুধু তোমার জন্য , তুমি এসে দেখে যাও, ক্যামন করে এক একটা একলা বসন্ত আমি আমার খোঁপার ভাজে জমিয়ে রেখেছি !! কোন এক ভরা পূর্নিমায় তুমি এসে আমার খোঁপার বাঁধন আলগা [ বিস্তারিত ]
ফোন ব্যবহার করছেন অথচ রং নাম্বার থেকে কল আসেনি এমন কোন ব্যবহারকারী হয়তো খুঁজে পাওয়া যাবেনা। রং নাম্বার থেকে পরিচয় অতঃপর প্রেম পর্ব সেরে ঘর সংসার করা জুটির অভাব নেই আমাদের দেশে। ২০০৫ থেকে নিয়মিত কিছু মানুষ আমাকে ফোন করে রঙ মিস্ত্রী বেলালের খোঁজ করতো। কারণ বেলাল নামের কোন এক রঙ মিস্ত্রী তার ভিজিটিং কার্ডে [ বিস্তারিত ]
বাইরে কালবৈশাখী ঝর আমি একা কেবল হেঁটে চলেছি ভিজে একাকার ,  কেউ নেই পাশে ! এক মুহূর্তের জন্য মনে হোল , আমার পাশে যদি সে থাকতো ? আমি কল্পনায় ডুবতে লাগলাম ক্যামন যেন একটা ঘোরের মতো তীব্র ঝরের সন্ধ্যায় রাস্তায় আমরা দুজন আমি ওর হাতটা একটু ধরতাম ধরে হেঁটে যেতাম নীরব রাস্তার উপর দিয়ে মৃদু [ বিস্তারিত ]
এখন দিব্যি বেঁচে আছি তোকে ছাড়া । অথচ এমন করে কি থাকার কথা ছিলো ? তোর ভালোবাসা ছাড়া আমি কি করে বাঁচি বল ? তোকে ছাড়া কি দুঃসহ জীবন আমি কাটাচ্ছি তা কি তুই জানিস ? ইচ্ছা করে পরম মমতায় তোর চুল আঁচরে দেই !! তুই যেদিন আমাকে ফেলে চলে গেলি ! মনে আছে তোর [ বিস্তারিত ]
সিলেটের লালাখাল । স্বচ্ছ  নীল পানির নদী  , অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য , ৪৫ মিনিটের নৌ ভ্রমণ , প্রকৃতিকে একান্তে অনুভব করতে পারার জন্য স্থানটি বেশ উপযোগী ।  পাহাড়ে ঘন সবুজ গাছ , সব কছু মিলিয়ে এলাকাটি পর্যটকদের কাছে বেশ প্রিয় একটি স্থান। বাংলাদেশের সবোর্চ্চ বৃষ্টিপাতের স্থান এটি। নৌপথে যেতে যেতে যে দিকে চোখ যায় মুগ্ধ [ বিস্তারিত ]

আজব শহর ঢাকা

তামান্না রুবাইয়াত ১০ অক্টোবর ২০১২, বুধবার, ০২:৫৯:২১অপরাহ্ন কবিতা, বিবিধ, রম্য, সাহিত্য ১২ মন্তব্য
আজব শহর ঢাকা হয় না ভুলেও ফাঁকা নানান জনের নানান রুচি কারো সাথেই মিলে না বুঝি । দাওয়াত দিলে অনুষ্ঠানে দেখা মিলে সবার সনে সবাই থাকে একলা একা মিলাদ ছাড়াও হয় না দেখা । ঘরের সাথে ঘর দরজা লাগালেই পর ঢাকায় নাকি টাকা উড়ে! ধরতে পারলে শান্তি ফিরে? ঢাকার এত যান জট মনের সাথে খায় [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ