বিভাগ: ইতিহাস

ছোটবেলা  থেকে দেখে আসছি রিকশা নামক একটি ত্রিচক্রযান । এটি শুধু এই বাংলাদেশেই নয়, রিকশা বা  সাইকেল রিকশা একপ্রকার মানবচালিত মনুষ্যবাহী ত্রিচক্রযান, যা এশিয়ার দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশগুলোতে প্রচলিত একটি ঐহিহ্যবাহী বাহন । বর্তমানে এই ঐতিহ্যবাহী ত্রিচক্রযানটির বিস্তার এশিয়া মহাদেশের বহু দেশের শহর- বন্দর আর গ্রাম-গঞ্জে সবখানে সবজায়গায় । যদিও দেশভেদে এর গঠন ও আকারে বিভিন্ন [ বিস্তারিত ]
শীতলক্ষ্ম্যা নদী মরে গেলেও নদীর বুকে জেগে আছে সেই প্রাচীনতম ভাসমান ডকইয়ার্ডটি । এই ভাসমান ডকইয়ার্ড নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলার চৌরাপাড়ায় বিআইডব্লিউটিসির নৌযান মেরামতের ইর্মাজেন্সি বিভাগ হিসেবে পরিচিত ফ্লোটিং ডকইয়ার্ড । আমি ছোটবেলা থেকেই দেখে আসছি এই বিআইডব্লিউটিসির নৌযান মেরামত করার ডকইয়ার্ডটিকে । এই ডকইয়ার্ডের সাথেই ছিল আমাদের বসবাস, সাবেক আদর্শ কটন মিলস্, বর্তমান শোহাগপুর টেক্সটাইল [ বিস্তারিত ]
আমি তখন চট্টগ্রাম কমার্স কলেজের উচ্চমাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র । উজ্জ্বল তরুণ, তারুণ্যের আগুণ  দেহে ও মনে । আমি  ছোট বেলা থেকেই  শান্ত কিন্তু তেজি এবং সাহসী, তাই ভয় কখন আমাকে ভয় দেখাতে পারেনি । সেই সময় চট্টগ্রামে আমাকে আমিন বললেই প্রায় সকলেই চিনতো কারণ আমি রাজনৈতিক সচেতন ছিলাম, সেই কারণে আমার বিশাল বন্ধু মহল [ বিস্তারিত ]
ক্রীতদাস শাস্তিঃ বেঁধে চাবুক মারা ক্রীতদাস শাস্তি দেওয়ার সবচেয়ে প্রচলিত পদ্ধতি ছিল চাবুক দিয়ে মারা। ক্রীতদাস প্রভু তার বাড়ির আঙ্গিনায় একটি প্লাটফর্ম তৈরি করতেন এতে ক্রীতদাসদের বেঁধে চাবুক মারা হতো। যাতে করে চাবুক মারা সময় নড়াচড়া করতে না পারে। ক্রীতদাস নারী কি পুরুষ উভয়ের বেলাতেই উলঙ্গ করে তাকে চাবুক মারা হতো। আর অন্য ক্রীতদাসদের সম্মুখেই [ বিস্তারিত ]
যেদিন আমার মৃত্যু হবে, সেদিন সমস্ত দিন আবহাওয়া থাকবে নাতিশীতোষ্ণ দিনের আলোতে গহীন সবুজের ভেতর চোখ মেলে দেখবো খোলা ওই আকাশ আর আমার নিঃশ্বাস হঠাৎ করেই চুপ। যেদিন আমার মৃত্যু হবে, স্বাধীনতার স্বাদ নেবো নাকি পরাধীন হবো, জানা নেই; তবে সেদিন আমাকে আর সন্ধ্যের মুখোমুখি হতে হবেনা, ভরপুর রোদের হাসি চোখে মেখে অজানায় পাড়ি দেবে [ বিস্তারিত ]
(y) “স্বরাজ আমার জন্ম গত অধিকার”। -বাল গঙ্গাধর তিলক। (y) “যেখানে দেখিবে ছাই,উড়াইয়া দেখ তাই,মিলিলেও মিলিতে পারে অমূল্য রতন” -ভারতচন্দ্র রায়। (y) “কুসুম আপনার জন্য ফোটে না,পরের জন্য তোমার হৃদয় কুসুমটিকে প্রস্ফুটিত করিও” -বঙ্কিমচন্দ্র। (y) “ভুলিও না তোমার জন্ম মায়ের জন্য বলি প্রদত্ত” -স্বামী বিবেকানন্দ। (y) “সত্যের জন্য সব কিছুকে ত্যাগ করা চলে,কিন্তু কোন কিছুর [ বিস্তারিত ]
আমাকে অনেকে ব্লগ সম্পর্কে প্রশ্ন করেন । তারা আরো জানতে চান ব্লগারের কাজ কী? আমি বলি ব্লগ হচ্ছে ইন্টারনেট ভিত্তিক স্বাধীন মত প্রকাশের মাধ্যম বা প্লাটফর্ম । ফেসবুকে লগইন না করে কারো লেখা বা নিজের লেখাও পড়া যায় না। কিন্তু ব্লগের সব লেখা লগইন না করেও ভিজিটর হিসেবে পড়া যায়। আবার ফেসবুকে শুধু বন্ধুদের লেখা [ বিস্তারিত ]
আমার জন্ম ১৯৬৩ সালে, জন্মেছিলাম  নোয়াখালীর বজরা রেলস্টেশনের পশ্চিমে মাহাতাবপুর গ্রামে। ছিলাম চার বোন দুই-ভাইয়ের মধ্যে আমি সবার ছোট। আমার বয়স যখন পাঁচ-বছর, তখন একজন শিক্ষক ও পুরোহিত দ্বারা আমার হাতেখড়ি দেওয়া হয়। সেই হাতেখড়ি অনুষ্ঠানে আমি সহ আমাদের পাশের বাড়ির আরও ৩/৪ জনকে হাতেখড়ি দেয় যার-যার অভিভাবক-রা। হাতেখড়ি দেওয়ার কলম ছিল বাঁশের-ছিঁপ আর খাতা [ বিস্তারিত ]
পহেলা বৈশাখ শব্দটির সাথে এখন “পান্তা ইলিশ ও মঙ্গল শোভাযাত্রা” শব্দ দুইটি ওতপ্রত ভাবে জড়িত । মঙ্গল শোভাযাত্রা মূলত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের অনুষ্ঠান হলেও এটি এখন সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে । সেই সাথে ছাগু,সু-শীল,মুক্তমনা নির্বিশেষে কিছু মানুষের এগুলো নিয়ে আশেষ চুলকানিও আছে । বামপন্থীদের মতে বছরের শুরুর দিনটিতে পান্তা খেয়ে গরীব মানুষদের হেয় ও [ বিস্তারিত ]
পানির অপর নাম জীবন তা মানুষের বেলায় হউক আর বৃক্ষ ফসলাদির বেলায় হোক জীবনের জন্য তার প্রয়োজনিতা অপরিসীম।এই পানি বা জলের বন্টন নিয়ে বাংলাদেশ ও ভারতের মাঝে দীর্ঘকাল ধরে চলছে বন্টনের টানা হেচড়া।কলকাতা এক সময় বাংলা ভাষা প্রভাবের জন্য বাংলাদেশের একটি অঞ্চল মনে করা হতো।রাজনৈতিক কূটিলতায় ধর্মের ভিত্তিতে তা ভারতকে পাইয়ে দেয়া হয় ১৯৪৭ সালে [ বিস্তারিত ]
(সত্য ঘটনা অবলম্বনে), শেষ পর্ব: দর্শকদের থেকে একজন লোকটিকে বলল- তোমাকে কে উদ্ধার করেছে তাকে জানো তো? সে ক্ষীণ কণ্ঠে বলল- জানি। ঐ লোকটি আবার বলল- তাহলে দেখাও তো এখান থেকে কে সেই উদ্ধারকারী। আমার গায়ে তখন বাদামী রঙের একটা হাতা গেঞ্জি এবং পরনে রিলিফের লুঙ্গি। মাথার চুল এলো মেলো ভাবে কপালের চার পাশে ছড়িয়ে [ বিস্তারিত ]
৫ম পর্ব (সত্য ঘটনা অবলম্বনে): আরে, রশি যতো টানি ততো চলে আসতেছে কেন? তাহলে কি জাহাজ থেকে ওরা রশি ছেড়ে দিয়েছে? হঠাৎ আমার বুকের ভেতরটা ছোৎ কেরে উঠলো! আমি চোখে অন্ধকার দেখতে লাগলাম। মনে হলো এই প্রথম বারের মত আমি কিছুটা হলেও ভয় পেলাম। এখন কি হবে? আমি এমন অবস্থানে আছি জাহাজের কাউকে দেখতেও পাচ্ছি [ বিস্তারিত ]
গল্প পড়লে টান টান উত্তেজনা ফ্রি…. ৩য় পর্ব (সত্য ঘটনা অবলম্বনে) # আমার শরীর তখন উত্তেজনায় কাঁপছে। তারপর উনাকে বললাম- দয়া করে আমার কাপড় ও ঘড়ি আপনি রাখবেন। এই বলে কেবিন থেকে বের হয়ে গেলাম। তখন আমার পুরো শরীর উদোম, পরনে একটা লুঙ্গি। খালি গায়ে দেখে কয়েকজন যাত্রী এসে আমাকে ঘিরে ধরলো। একজন বলল- উনি [ বিস্তারিত ]
ম্যারি এনের ছবি গুগল থেকে।   ২৯ শে এপ্রিল ১৯৯১। সকালে ঘুম থেকে উঠে রেডিওতে শুনলাম ঘূর্ণিঝড় ম্যারি এন কাছে এসে পড়েছে ১০নং সিগনাল এবং লক্ষ্য চট্টগাম উপুকুল, সারাদিন অফিস করলাম অজানা আআশংকা নিয়ে, সন্ধ্যা হতে না হতেই গাড়ী নিয়ে বাসা মুখো হলাম দেখলাম চারিদিকে কেমন যেন দম বন্ধ হয়ে আসা চুপ চাপ, কোন বাতাস [ বিস্তারিত ]
উত্তাল সাগরে আমি # [ভূমিকা : ( ভয়াল ২৯ শে এপ্রিল ‘ ১৯৯১ ইং স্বরণে ), ১৯৯১ সালের ২৯শে এপ্রিল বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি স্বরনীয় দিন। স্বরণকালের ভয়াবহতম ঘূর্ণীঝড়ের কবলে এদিন বাংলাদেশের জনমানুষের ব্যাপক ক্ষতিসাধন হয়। এ সময়ের ঘঠনায় আমার থলেতে কিছু স্বরনীয় ঘঠনা জমে আছে…. তা এখন শেয়ার করবো। আশা করা যায় আমার বিবরণে অনেক অজানা তথ্য [ বিস্তারিত ]

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ