নীলাঞ্জনা নীলা

সেই ভালো সেই ভালো...আমারে না হয় না জানো...

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ৬ বছর ৮ মাস ১৪ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ৩২০টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ১০০৫০টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ৯৭৭২টি
প্রিয় পোস্টঃ ৩টি

ঘর্মাক্ত ইতিহাস

নীলাঞ্জনা নীলা ৮ মে ২০১৯, বুধবার, ১১:২৯:১০পূর্বাহ্ন কবিতা ৩৪ মন্তব্য
তোমার বুকে রেখেছিলাম কিছু অলীক সুখ তাই তো সেখানে আমার থাকা হয়নি চলে এসেছি বহুদূর…! 👣👣👣👣👣👣👣👣👣👣👣👣 আমাকে তুমি বৃষ্টি হতে বললে, আমি বৃষ্টি হোলাম। তুমি রইলে সুখের দালানে আর এদিকে ভিঁজে গেলাম নিজেই। ☔☔☔☔☔☔☔☔☔☔☔☔ অনিমেষকে ভালোবাসো তুমি অথচ কখনোই মাধবীলতা হতে পারোনি কালবেলায় একলা আছি আমি এখনও। 🙄🙄🙄🙄🙄🙄🙄🙄🙄🙄🙄🙄🙄 তুমি চলে গেলে, সূর্যের মুখ পান্ডুর হয়ে [ বিস্তারিত ]
এই কয়েকদিনের অনুপস্থিতির কারণ অনেকগুলো বিভিন্নধরনের ব্যস্ততা। তার প্রধানটি হলো জীবনানন্দ দাশকে নিয়ে একটি লেখাকে ব্লগের ই-ম্যাগাজিনের জন্য তৈরী করা। ব্লগে কখনো প্রবন্ধ দিইনি আমি। আসলে এখন মন দিয়ে কোনোকিছুই পড়া হয়ে ওঠেনা। তাই লিখতেও পারিনা। একটা সময় ছিলো প্রচুর প্রবন্ধ লিখতাম, কিন্তু কালের গহবরে হারিয়ে গেছে। ভাগ্য ভালো যে এই লেখাটি থেকে গিয়েছিলো। এটাকে [ বিস্তারিত ]

অতৃপ্তি

নীলাঞ্জনা নীলা ২৫ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১২:০৩:৩৯অপরাহ্ন কবিতা ৪০ মন্তব্য
আমরা ভালো থাকিনি কোনোদিন, নয় কি? অথচ আমাদের ভালো থাকার কথা ছিলো। আমাদের আনন্দ ছিলো, হেসে গড়াগড়িও যেতাম অভিমান ছিলো, আবার ঝগড়ার তীব্রতাও একই সঙ্গে চায়ের কাপে চুমুক, চুপচাপ, কিন্তু কথা চালাচালিও চলতো মনে মনে উপচে পড়া আবেগে আমরাও ভেসে গেছি, সমাজ-সংসারের নিয়ম-নীতিকে তাচ্ছিল্য করে— আমাদের অর্থ ছিলোনা, কিন্তু প্রাচুর্য ছিলো সুখ ছিলোনা, কিন্তু স্বস্তি [ বিস্তারিত ]

সুখ কোথায়!

নীলাঞ্জনা নীলা ২৪ এপ্রিল ২০১৯, বুধবার, ১১:৩৯:২৮পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৯ মন্তব্য
সুখী জীবন খুঁজে পাওয়া যায়না, তৈরী করে নিতে হয়। অথচ আমরা বারবার সুখ খুঁজে বেড়াই। হা-হুতাশ করতে থাকি। যতোটুকু অভাবে ভুগি আমরা, তার তিনগুণ অভাব তৈরী করি। অল্পতে সন্তুষ্ট হইনা, আর বেশি পেয়ে গেলেও অসুখী থাকি। তার মানে দাঁড়ায় আমরা পেয়ে যাওয়াকেই খুঁজে যেতে থাকি। এসব কথা কেন! ঢাকা থেকে দিল্লী এয়ারপোর্টে বসে ওয়াইফাই খুঁজছিলাম। [ বিস্তারিত ]

মেঘমল্লার

নীলাঞ্জনা নীলা ২১ এপ্রিল ২০১৯, রবিবার, ১০:৪৫:০০পূর্বাহ্ন কবিতা ৩০ মন্তব্য
যার অপেক্ষায় ছিলাম এতোটা দিন অবশেষে সে এলো, ভিঁজতে, ভিঁজিয়ে দিতে আমায় এবং আমার শহর। অগোছালো হয়ে ছিলো সব, বরফ ভেঙ্গে গুটিয়ে নিচ্ছে ঋতুর তাবু মেঘ তার আলখেল্লা খুলে উল্লাস করে উঠেছে আজ কিন্নরী আলোড়ন, নীরব পথঘাট একটা পাখী রাতের অন্ধকারকে জানান দিয়ে বাতাসে ঝাপটালো তার দীর্ঘ ডানা পরিত্যক্ত সন্ধ্যেটা শুষ্ক, রুক্ষ, ধূলোময়লায় হচ্ছিলো জর্জরিত; [ বিস্তারিত ]

অর্থ অনর্থের মূল???

নীলাঞ্জনা নীলা ১৮ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১২:৪৮:৫৬পূর্বাহ্ন বিবিধ ২১ মন্তব্য
টাকা মানুষকে বদলায়, নাকি মানুষ টাকাকে বদলায়? যেভাবেই বলা যাক না কেন, অর্থ যে সকল অনর্থের মূল, চিরন্তন এই বাণীই কঠিন সত্য। হঠাৎ যারা আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়ে যায়, তারাই পাল্টে যায়। এ জীবনে তো কম দেখা হলোনা! যে একসময় হৃদয়ের খুব কাছের ছিলো, সে-ই একসময় অর্থের অহঙ্কারে তার পা ফেলেনা। বেশিরভাগ মধ্যবিত্ত এবং নিম্নবিত্তরা [ বিস্তারিত ]

এই মেয়ে

নীলাঞ্জনা নীলা ১২ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ১১:৪২:০৪পূর্বাহ্ন কবিতা ২২ মন্তব্য
তুমি যাচ্ছো মেয়ে কোন পথে? মেনে নিতে হবে সবকিছুই, যেখানেই যাওনা কেন! তোমার জন্যে নিত্য-নতুন নিয়ম ঘাড় গুঁজে মেনে নিতে হবে সব— পথে হেঁটে যাচ্ছো, তোমাকে কেউ জড়িয়ে নিতে পারে আলগোছে অথবা ভীড়ের মধ্যে তোমার গোপনীয়তা ছুঁয়ে ফেলতে পারে তোমাকে চুপ করে সয়ে যেতে হবে। যদি প্রতিবাদ করো, বাজে মেয়েমানুষ আখ্যা পাবে। চাকুরীতে উন্নতি চাও? [ বিস্তারিত ]

ভাষার পোষাকী উৎসব

নীলাঞ্জনা নীলা ১১ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১২:০৩:০০অপরাহ্ন কবিতা ৩০ মন্তব্য
এক – ভেঙ্গে ভেঙ্গে একেক শাসক আসে, জীবনের নিয়ম-নীতিকে আয়ত্তাধীন করতে। সবকিছুকে ফুলিয়ে-ফাপিয়ে, এলোমেলোভাবে(অন্যভাবে বলা যায় সবকিছুকে বদলে দিয়ে) অচেনা-অজানাকে ছাপিয়ে দিয়ে আমায় দেখায় ভাষার সূক্ষ্ম কারচুপিতে কথার আঁচলে ফুটে ওঠে জারদৌসি অক্ষর। দুই – কী তীব্রগম্ভীরতর দিনাতিপাত! তারিখের গায়ে কোনো শোক নয়, লেগে থাকে পোষাকী উৎসব। একেক মাসের, একেক দিনের, একেক ঘন্টার সেল্ফিতে বর্ণিত [ বিস্তারিত ]

লেট ট্রেন

নীলাঞ্জনা নীলা ১০ এপ্রিল ২০১৯, বুধবার, ১০:১৫:৩২পূর্বাহ্ন কবিতা ২৬ মন্তব্য
প্রতিদিন ট্রেনটা চলে যায় সমান্তরাল রেললাইন ধরে তেত্রিশ বছরের পুরোনো ঘড়িটার কাটা তিনটিও একইভাবে দৌড়াতে থাকে টুংটাং ঘন্টা বাজিয়ে চলে শুধু ট্রেনটাই সময়ের সাথে পাল্লা দিতে গিয়ে হেরে যায় কখনো সখনো গন্তব্যে পোঁছবার অপেক্ষায় থাকে যাত্রীরা ওদিকে স্টেশনে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে থাকে আনন্দ এবং শোক কী করে জানি যোগ-বিয়োগের যুদ্ধে বিয়োগের সংখ্যা বাড়ে তবুও জয়ী হয় [ বিস্তারিত ]

হাতের মুঠোয় পৃথিবী

নীলাঞ্জনা নীলা ৯ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার, ০৯:১৭:২৫পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩৯ মন্তব্য
বই পড়তে ভালোবাসি। যদিও এখন খুব মন দিয়ে কিছুই পড়া হয়ে ওঠেনা। তারপরেও পড়ি। আর তাই এখনও বই উপহার হিসেবে পেলে আনন্দে আত্মহারা হয়ে যাই। ইচ্ছে করে তখনই বসে যেতে। কিন্তু হয়ে ওঠেনা। শৈশব থেকেই যে ব্যাপারটা আমার খুব ভালো লাগতো, তা হলো বই পড়তে। আর এজন্য যথেষ্ট সাপোর্টও পেয়েছি মামনি-বাপির থেকে। মানুষ যখন বিকেলের [ বিস্তারিত ]

এই যে জমানা

নীলাঞ্জনা নীলা ৭ এপ্রিল ২০১৯, রবিবার, ১০:৩৪:৩৪অপরাহ্ন অন্যান্য ৪৮ মন্তব্য
একঃ ভয়ঙ্কর প্রেম ভালোবাসা উপচে এসে বলে, “তোমার কাছে যাবো। ফুচকা আর বাদাম ভাজা একসঙ্গে খাবো।” এমন দশা ভালোবাসায় জানতাম যদি আগে কিছুতেই অমন লাড্ডু খেয়ে মাথার বারোটা বাজিয়ে ছুটতাম না, ভাগতাম না, পালিয়ে যেতাম আগে। দুইঃ নবজাতক ইঁচড়েপাকা যায় কি দেখা এই জমানায়! জন্ম নিয়েই সেলফি তোলে, ঠোঁট দুটো ব্যাঁকায় বড়ো বড়ো চোখ মেলে [ বিস্তারিত ]

অ-লেখকের অপেক্ষায় আছি

নীলাঞ্জনা নীলা ৬ এপ্রিল ২০১৯, শনিবার, ১২:০৯:৪৮অপরাহ্ন কবিতা ৪০ মন্তব্য
কেউ কি একটা গল্প লিখবে জলে ভেসে থাকা পদ্মকে নিয়ে? সে, কী কথা বলে ওই আকাশের সাথে? কিংবা অযত্নে, অবহেলায় ফুটে থাকা জংলী ফুলকে নিয়ে? কেমন করে বিশাল অরণ্যকে সৌন্দর্য দিয়ে যাচ্ছে নিরন্তর? কোনো উপন্যাস চাই না আমি। কে জানে কোনো একদিন গল্প হয়ে যাবে ওই ফুল, অথবা পাখী, নয়তো মেঘ, হতে পারে অরণ্য, আকাশ [ বিস্তারিত ]

যা পাওয়া হবে না

নীলাঞ্জনা নীলা ৩১ মার্চ ২০১৯, রবিবার, ০৯:৫০:৪০অপরাহ্ন কবিতা ২৬ মন্তব্য
★দিল্লী মানেই দিল্লী কা লাড্ডু। এখন এই দিল্লীতেই বসে আছি। অপেক্ষায়!★############################ অপেক্ষা করি। যেনো এখুনি এসে বলবে, কি খোঁজো! আমার উত্তর, তোমায়! আসলে আমি কি আদৌ তোমাকে খুঁজছি, নাকি আমায়!! ফেলে আসা দোলনার একটা দিক একেবারেই অচলের খাতায় জায়গা করে নিয়েছে। তবুও, অপেক্ষায় থাকি বাইসাইকেল-শৈশবের—— পুড়ে যাওয়া কবিতার খাতায় কিশোরী-অভিমান খুঁজি, মধ্যবয়সী মনের গভীরে জমে [ বিস্তারিত ]

বাপির চলে যাওয়া

নীলাঞ্জনা নীলা ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, রবিবার, ০১:৩১:১৫অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৬ মন্তব্য
ভিডিও কলে “বাপি”, ” বাপি” দু’বার ডাকতেই চোখ মেললো বড়ো বড়ো করে। আমি ভাবলাম বাপি ঠিক হয়ে গেছে। দেখি চোখ থেকে জল গড়িয়ে পড়লো, তারপর চোখের পাতা বুজে গেলো। তখনও ভাবিনি বাপি আর নেই। বাপিকে বলতাম, একটুও ভেবোনা আমার কোলেই তোমার মৃত্যু হবে। আমার কোলে মৃত্যু হয়নি বাপির। কিন্তু চোখের সামনেই বাপির চলে যাওয়া দেখলাম। [ বিস্তারিত ]
মাঝেমাঝে মনে হয় জীবনে আর কিছু নেই, সব শেষ। যেনো থেমে গেছি আমি। আর কিছুই করার নেই। কোনো পথ নেই, কেউ কোথাও নেই। একে বলে অসহায়তা। সকালে কাউন্সিলরের কাছে গেলাম হেঁটে হেঁটে। ওখানেই যা একটু মন খুলে কথা বলতে পারি। আলিশা আমাকে যে সাজেশন দেয়, সেসব আমি নিজেই নিজেকে দেই। তারপরেও কেন যাই! আসলে মন [ বিস্তারিত ]

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ