রূপার মস্তিষ্ক জুড়ে অজস্র ভাবনার আনাগোনা। আকাশ পাতাল কতোকিছু ভাবছে রূপা। আজকের এই সন্ধ্যা বিষণ্ণ বিষাদময় না হয়ে, হতে পারতো কোনো স্মরণীয় সন্ধ্যা। রূপার জীবনে প্রত্যেকটা সন্ধ্যা অনির সাথে কাটানোর কথা ছিলো। আচ্ছা সেদিন যা ঘটেছিল তা না ঘটে রূপা যা চেয়েছিল সেটা যদি ঘটতো তবে কি ওরা অনেক বেশি সুখী হতো? রূপার সন্ধ্যা গুলো কি অনেক বেশি সুন্দর হতো?

স্টেশনের প্লাটফর্মে গিজগিজ করছে অসংখ্য মানুষ। হয়তো সবাই অপেক্ষা করছে আপন নীড়ে ফিরার। প্রিয়জনের কাছে ফেরার। কখন ট্রেন আসবে সে অপেক্ষায় যে যেখানে পেরেছে বসেছে। হঠাৎ রূপার অস্বস্তি আরো বেড়ে গেলো। রূপার মনে হচ্ছে  সবাই ওদের দিকে তাকিয়ে আছে। রূপা এবার অনিকে বললো

-চলুন এবার ফিরা যাক। অনেক হাঁটা হয়েছে।
-তুমি কী আর হাঁটতে পারছো না?
-হাঁটতে পারছি না তা নয়, হাঁটতে ইচ্ছে করছে না।
-কেনো বলো তো? আমি সাথে আছি বলে!

রূপা মনে মনে বললো একদম ঠিক ধরেছেন। আপনার সাথে হাঁটতে হচ্ছে বলেই অস্বস্তি হচ্ছে,‌বিরক্ত, রাগ সবই হচ্ছে।

-ঠিক তা নয়। এতো মানুষের মধ্যে হাঁটতে আমার অস্বস্তি লাগছে। না জানি সবাই কি ভাবছে আমাদের নিয়ে? কে বলতে পারে হঠাৎ কেউ বাজে কিছু বলে বসলো

-রূপা তুমি অযথায় ভাবছো। এটা আমার এরিয়া। এখানে এমন কেউ নেই যে আমার সাথে তোমাকে দেখলে বাজে কথা বলবে।

-হুম।
-রূপা চলো একটু বসি। তারপর না হয়…
-হুম চলুন।
-রূপা তুমি কী আমার উপর রেগে আছো?
-কেনো বলুন তো? আপনার উপর রেগে থাকবো কেনো? আর তাছাড়া যার তার উপর রাগ করা যায় না।তার উপরই রাগ করা যায় যার উপর অধিকার থাকে।

-তুমি খুব মিষ্টি করে কথা বলো রূপা। এতোই মিষ্টি যে কথা গুলো সারাসরি কলিজায় লাগছে। হৃৎপিণ্ড ছেদ করে বেড়িয়ে যাচ্ছে।
-কি আর করা যাবে বলুন? আমি এমনই

৩৩৯জন ২২৯জন
0 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ