বিভাগ: একান্ত অনুভূতি

হেমন্তর বিরহী ক্রন্দন

ছাইরাছ হেলাল ২৬ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ০৯:২৪:৩৭অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩৫ মন্তব্য
  হেমন্তের আনন্দ-দেহে এ কোন্‌ বিরহ ক্রন্দন! নিমেষে-নিমেষে ক্ষণে-ক্ষণে কেঁদে যাওয়া,কাঁদাকাটা; ব্যথা-লজ্জার অপঘাত অভিঘাতে দুর্বোধ্য বেদনার স্ফুটনে আবেশে ডুবেছো ডুবায়েছো নিদ্রাহীন ছায়া পথের মায়া বিভ্রমে; হিরণ্ময় প্রেম-অমৃত-অভিলাষী হেমন্ত, নিত্য সুন্দরের বার্তা নিয়ে নবান্নের কানে কানে কী বল? পৃথিবীর ঐ শেষ সীমায় রূপকথার রাতে,হঠাৎ-ব্যথায়, ভালোবাসি ভালোবাসি? আদিম রাতের বেণীর-ফাঁদে? নিঃসঙ্গতার ভাঁজ-ভাঁজ ছদ্মবেশে? চাঁদের প্রেত-রাতে? কবিতার উন্মুখ [ বিস্তারিত ]

মন্তব্য অসহায়ত্ব।

মোঃ মজিবর রহমান ২৬ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ০৬:৫১:৪৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩১ মন্তব্য
  আমি একজন অতি নগন্য পাঠক। পাঠক হয়েই আছি। লেখা যতনা কঠিন তার চেয়েও কঠিন মনে হয় মন্তব্য দেওয়া। বা প্রতিউত্তর দেওয়া। সময় সময় পড়তে ভাল লাগলেও মন মত মন্তব্য ইচ্ছা থাকা সত্বেও প্রকাশ করা অতি কঠিন আমার নিকট। মন বা পরিস্থিতি সঠিক ভাব প্রকাশে অনীহা দেখায়। অনেক লেখা প্রচন্ড ভাল লাগে কিন্তু মন্তব্য লিখতে [ বিস্তারিত ]
নরম রৌদ্রের মত ঠোঁটে তুলে নিয়ে কয়েকটা বীজ অন্য কোথাও উড়ে যাও পাখি। এখানে হেমন্তের গান কার্তিকের মাঠে চড়ুইয়ের দল অঘ্রাণের হিমেল হাওয়ায় ফসলের প্রতীক্ষায়। এখানে এখন বীজ বোনার অবকাশ কোথায়? এমনই ভাবনায় আচমকা হানা দেয় কালো মেঘ। ভেঙে যায় ভেতর বাহির। বাইরে বৃষ্টি অবিরাম। অবিচার কিছু হচ্ছে কি মনের ওপর? ভেবে চলেছি হেমন্ত, আরও [ বিস্তারিত ]

চলার পথে-২ (ডাপা)

চাটিগাঁ থেকে বাহার ২৬ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ১২:০৯:১০পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২২ মন্তব্য
(ডায়রীর পাতা থেকে) ১লা জানুয়ারী ১৯৯১ ইংরেজী, মঙ্গলবার। নোয়াখালী জেলার কোম্পানীগঞ্জ থানায় সেজ মামার কাছে বেড়াতে এসেছি। মামা এই থানার ওসি। আমি এসেছি তিন দিন আগে। সকালে বাসায় গরম ভাত খেয়ে গোসল করলাম। তারপর মামির আয়রণ মেশিন নিয়ে আমার দুটি সার্ট স্ত্রী করলাম। অতঃপর বের হয়ে সরকারি মুজিব কলেজ গিয়ে ক্যাম্পাসে কিছুক্ষণ হেটে থানা কোয়ার্টারের [ বিস্তারিত ]
একদিন পাগলের মতো ভালোবাসতে তুমি আমায়! তোমার অমন তুমুল ভালোবাসার ঝড়ে এলোমেলো- হয়েছিলো আমার একরোখা জেদী পৃথিবী। বদমেজাজী আমি হয়ে উঠলাম প্রেমময় নারী। তোমার রক্তিম আভা দু’চোখের দিকে তাকিয়ে, হঠাৎ ফুলে ফেঁপে ওঠা জলোচ্ছ্বাসের মতো- প্রেম আঁছড়ে পড়েছিলো আমার হৃদয়ে । উসকোখুসকো উড়নচণ্ডী আমি হয়ে উঠলাম প্রেয়সী। তোমার উদ্দাম ভালোবাসার স্রোতে ভেসে গিয়েছিলাম, স্রোতস্বিনী নদীর [ বিস্তারিত ]
কি জানি, তোমারে দেখলে আমার নিজেরে গরিব মনে হয় …………… আমি এতো দুঃখে নাই গো মিনা মাঝি……….. আমার কুয়াশা আছে,ঘাসের উপর বিন্দু কণা জল আছে। শীত/বসন্ত আছে সুখের একখান কোকিলও আছে………… ঝাপির ভীতর একখান সোনার নোলক আছে, সাথে আছে লাল পার ডোরের আসমানী রঙের গরদ…………. আমার ঘরের বেড়ায় কাজলের কালি যত্নে রাখা আছে। আমার শরীর [ বিস্তারিত ]

বর্ষা-বিষণ্ণ হেমন্ত

ছাইরাছ হেলাল ২৫ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ০৭:০২:১৫অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩২ মন্তব্য
  হেমন্ত! এ কোন্ ক্রমাগত ঝরে পড়া,অক্লান্ত বিষণ্ণতা,এ-বেলায়,ও-বেলায়,অবেলায়! অহেতুক আটকে পড়া, আটকে যাওয়া, দিনান্তে-ও;হৃদয়ে কাঁপন জাগে হিম-বাতাসে, সান্নিপাতি বা ওলাওঠা না হোক, সামান্য গা-গরম তো হতেই পারে, বুকে নিমুউনিয়ার ডাক না হয় বাদ-ই দিলাম! এ-কী!দিনান্তে একটু তাড়িয়ে/নাড়িয়ে মজা দেখা/মজা নেয়া! দেখ্ এবার,কত বড় ‘ক’! নাকি গভীর কোন ষড়যন্ত্র! ফেলে রাখা ফেলে যাওয়া, কাঁচাপাকা ফসলের মাঠে, [ বিস্তারিত ]

চাদর

জিসান শা ইকরাম ২৫ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ০৬:৩৫:১৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৪২ মন্তব্য
পাখিঃ কেমন আছো জেস? জেসঃ খুব ভালো আছি, পাখিঃ সত্যি? 🙂 জেসঃ হ্যা সত্যি।  এতদিন কোথায় ছিলে? পাখিঃ ছিলাম তো তোমার আশে পাশেই, ডাকোনি তাই আসিনি। জেসঃ আজও তো ডাকিনি, তারপরেও এলে যে? পাখিঃ আজ মনে মনে খুঁজেছ আমায়, আমি তো তোমার মন পড়তে জানি। জেসঃ হু, তা তো জানবেই, মস্ত বড় পণ্ডিত হইছ তুমি। [ বিস্তারিত ]

সপ্ন কন্যাকে পাবো যেদিন

মোহাম্মদ দিদার ২৪ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১১:৫৮:০১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৬ মন্তব্য
দিন ক্ষন কিছুই পরেনা মনে। সেই কবে, কবে থেকেই মনে মনে নিরবে নিভৃতে হৃদয়ের গভীরে ঠাই দিয়েছি সেই সপ্ন কন্যাকে। ক্ষনে ক্ষনে তার ঐশ্বর্য পূর্ণ রুপের পূজায় নিমজ্জিত হয়ে আমি হয়ে পরি ব্যাকুল। নেশা নেশা লাগা চোখ তুলে আকুল আবেদন জড়ানো কন্ঠে, ফিসফিসিয়ে বলে উঠি ভালোবাসি , ভালোবাসি। এ আমার নির্ঘাত বোকামী ছাড়া আর কিছুই [ বিস্তারিত ]

গাছ ভালবাসা//

বন্যা লিপি ২৪ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০১:৫৮:১২অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৬ মন্তব্য
দু’দিন ধরে ট্রমায় আছি একরকম বলা যেতে পারে।আমার ফেসবুক ফ্রেন্ড+এক বড় ভাই আছেন। যথেষ্ঠ জনসচেতনতা মূলক কাজে নিয়োজিত থাকেন সবসময়। তিনি প্রায়ই কোনো না কোনো পোষ্ট আমাকে ট্যাগ করে থাকেন। শতবার নিষেধ করা সত্যেও তিনি অনঢ়। ওনার সবচে বড় পরিচয়, উনি একজন বড়সড় রকম বৃক্ষ প্রেমিক। গতকাল এক মহিলার অন্যায় ভাবে অন্যের বৃক্ষ নিধন বিষয়ক [ বিস্তারিত ]

তিতা কথা-৩

চাটিগাঁ থেকে বাহার ২৪ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০৫:৫৯:২৪পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১০ মন্তব্য
♪♪__তিতা কথা-৩__♪♪ ===>>>^^^^<<<=== দুই বন্ধুর আলাপ হচ্ছিল। আক্কেল আলী বলল, লোকেরা বলে, হুসে-জ্ঞানে মানুষ। অর্থাৎ যার হুস মান-সম্মত তিনিই মানুষ। সবজান্তাঃ ঠিকই তো আছে, তুই কি এর উল্টা বলিস নাকি? আক্কেল আলীঃ অথচ দেখ, অনেক মানুষ আছে যারা হুসে ষোল আনা হলেও জ্ঞানে মাতাল। সবজান্তাঃ বুঝিয়ে বল! আক্কেল আলীঃ ধর, পার্শ্ববর্তী পড়শির সাথে ঝামেলা হল, টাকা-পয়সা, জায়গা-জমি, ব্যবসা-বাণিজ্য [ বিস্তারিত ]

বিশ্বপ্রেমিকের প্রেমকাব্য!

তৌহিদ ২৪ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১২:০১:৩৮পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২২ মন্তব্য
হাজার বছর আগে আজকের এই দিনেই কড়ি ও কোমলের প্রেম আস্বাদন করার লোভে সেদিন বেড়িয়ে পড়েছিলাম দিগন্তের পাণে। আর ঠিক আজকের এই দিনেই আমি প্রেমিকরুপে আবির্ভূত হয়েছিলাম। আমি স্বর্গ দেখেছি, নরক দেখেছি, দেখেছি দেবতা ও মানুষের মেলবন্ধন। তবু পিপাসার্ত মনের ক্ষুধা মেটেনি সেদিনতক। শপথ নিয়েছিলাম- আমার প্রেম চাইই চাই, স্বর্গীয় নিগুড় প্রেম। প্রেম সাধক বলেই [ বিস্তারিত ]

ভালোবাসা

সাখিয়ারা আক্তার তন্নী ২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ১১:১৭:৪১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৬ মন্তব্য
আচ্ছা, আমায় বলবে তুমি ভালবাসা কি? শরীরের বুঝি তার বহিঃপ্রকাশ! তুমি ছুঁয়ে দিলে তাকে ভালোবাসা বলে? তুমি ছুঁয়ে দিলে নাকি জাত ধর্ম চলে যায়। তবে কি সমাজ, সংসার আমায় অচ্ছুৎ ভেবে দূরে ঠেলে দিবে? আমার যে ভয় হয়! ঈশ্বর কি আমায় নরকে দেবেন? আচ্ছা ভালোবাসলে বুঝি হিংসে হয়! তোমার সে নাম না জানা প্রেমিকাকে আমার [ বিস্তারিত ]
১. এটা বড়দের জন্য: বাচ্চারা খেলতে গিয়ে খেলার সাথীর সাথে ঝগড়া করবে, হাতাহাতি করবে। পরে আবার সবকিছু ভুলে একে অপরের কাঁধে হাত রেখে হাঁটবে। একে অপরের ঘরে যাবে। এটা শৈশবের একটা অংশ। বড় হওয়ার পর মানুষ শৈশবের এই স্মৃতিগুলো মনেকরে হাসে, আনন্দ পায়। কিন্তু, এখন আমাদের সো কল্ড গুরুজনরা বাচ্চাদের ঝগড়া করতে দেখলে ডাক দিয়ে [ বিস্তারিত ]
হেমন্তের কাক ডাকা ভোরে, অর্গলিত দূর্বাঘাসে নিমজ্জিত শিশির ঘুমঘোরে। সেজেছে হৈমন্তী নববধূর সাজে, ললাটে টিপ তার কাজল ঢাকা চোখের মাঝে। বেঁধেছে সে আমায় মায়ার আঁচলে, লাল টিপের অন্তরালে। হিমেল পরশে রাতের অভিসারে, ফুটেছে ফুল কত কাননে কাননে। জানো হৈমন্তী তোমাকে দেখার অপেক্ষায় কত কোকিল বসন্ত পেরিয়েছি। কিন্তু আজও দুচোখ ভরে দেখতে পায়নি তোমায়। স্নিগ্ধ শরৎ [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ