সৌরনিনাদ

সৌবর্ণ বাঁধন ২৪ জুলাই ২০২২, রবিবার, ০৮:১৩:৫৪অপরাহ্ন কবিতা ১২ মন্তব্য

আকাশ যখন ছুঁয়ে দেয় বিকালের ছাদ,
শব্দেরা ধীরগতি শামুকের মতো নুয়ে পড়ে
হাতে! আমি তখনো খুঁজেছি তোমাকে!
চুপ ছিল কোলাহলে তীব্র সন্ধ্যাকাল,
হাসি হাসি মুখে বিজ্ঞাপনে ব্যস্ত ছিল চাঁদ,
খুঁজেছি জলোচ্ছাসের উন্মত্ত দিনে,
তীব্র বেগে মার্বেল গুলি অন্ধ গর্তে হারালে!
এখানে তোমার ভাষা বাতাসের ফিসফাস,
মরণোন্মুখ খরগোশের উড়ছে লোম সাদা,
পায়ের তলার কূপে মৃত্যুর ফাঁদ পাতা!
ভাসছে পাশের ঘরে নকশী কাঁথার মেয়ে,
মানুষ এমনি হয়! কিছুটা কিম্ভূত,
ঝাঁপ দেয় অগ্নিকুন্ডে অবারিত প্রেম চেয়ে!

বুঁদ হয়ে থাকা নিদ্রাতুর টেবিলল্যাম্প
ফিক করে জ্বলে উঠে! শর্টসার্কিটে পুড়ে মন!
মাঝে মাঝে ভাবি শ্বাপদেরা ডাকছে কেন,  
ঘরের অপর নাম বুঝি সর্বগ্রাসী বন!
মৃদু পায়ে উড়ে যায় চঞ্চলা নারী,
পুবের জানালা ঘেঁষে পোষা মোরগেরা আসে,
মন কেন কিনে নিল ভেজা লাল শাড়ি!
তোমাকে দেখেছি মাঠে ভালোবাস বনফুল, 
বুকের ভেতর সুবিল হ্রদ বলে ভালোবাসি,
নীল রোদে কথাগুলো হলোনা কখনো বলা,
মধ্যবয়সেও জীবন কি অদ্ভুত আনাড়ি!
গলিত পিচের মতো লেপটে আছে দূরে
উত্তাপে বহমান পৌরাণিক অন্দর,
হয়ত সুবিস্তীর্ণ শস্যক্ষেত দেয়া হবে পাড়ি,  
ঘড়ির কাঁটার দম শেষ হলে পর!

যদি কোন এক বিচ্ছুরিত ভোরে,
জেগে যাও সৌরমণ্ডলের তীব্র নিনাদে,
হুট করে!
জেনো স্বর্গোদ্যানে ময়ূর এখনো কাঁদে, 
শ্বাসরোধ হয়ে গেলে শূন্যের কাছাকাছি,
তোমাকেই ভেবে শ্বাস নেয় জোরে!
ভাবে আছ গ্রহান্তরের অসাধ্য সংগ্রামে,
আছ আত্মায় মিলেমিশে!

ফটোক্রেডিটঃ নিজস্ব

২৪৬জন ৩৬জন
0 Shares

১২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ