লুডু

তৌহিদুল ইসলাম ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, রবিবার, ১০:৫৬:৪২পূর্বাহ্ন রম্য ১৫ মন্তব্য

আজ অফিসে কিছুক্ষণ পরপর মেহেদি যাকেই ফাঁকা পাচ্ছে তার টেবিলে বসে নিজের সদ্য বিবাহিত জীবনের অভিজ্ঞতা শোনাচ্ছিলো। বস জানেন– “উর্বশী চায়ে চিনি দিতে ভুলে গেছে। অবশ্য চিনি ছাড়া চা দারুন টেস্ট তাইনা?”
“বললাম– হুম।”

আবার কিছুক্ষণ পরে– “বস একটা কথা বলি?”
— “হুম বলো।”

“উর্বশীতো সকালে ঘুম থেকে উঠতে পারেনা, তাই আমিই রুটি বানাচ্ছি ক’দিন ধরে। সমস্যা হলো রুটিতো অস্ট্রেলিয়ার ম্যাপ হচ্ছে। কেমন একটা ইজ্জতের বিষয় বলেন? এই কথা ফাস হলে শালীদের কাছে মুখ দেখাবো কি করে?”

— “এটাতো সমস্যাই মেহেদি। তুমি এক কাজ করো অস্ট্রেলিয়ার ম্যাপের উপর মাঝারি সাইজের স্টিলের বাটি বসিয়ে কেটে নিবা তাহলেই রুটি গোল হয়ে যাবে। বউ যেহেতু সকালে ঘুমায়, টের পাবার চান্স নেই।”

আমার এই বুদ্ধিতে সে বিস্মিত। “বস! ইউ আর জিনিয়াস!” মনেমনে বলি, বাবাসোনা এতটুকু টেকনিক না জানলে সিনিয়র হলাম কেমনে!

এদিকে হাসনাত ভাই অফিসের পুরো সময় তার শুকনো মুখটা ফুলিয়ে বসে ছিলো। ঘটনা কি সারাদিনেও আঁচ করতে পারিনি। বিকেলে যাবার সময় বলছে– “আচ্ছা তৌহিদ ভাই, মেহেদির বউ দেখতে কি সুন্দর, বাচ্চাবাচ্চা চেহারা দেখলেই মায়া লাগে।”

এই কথাটা আপনার ভাবি শোনার পর গতরাতে বলেছে– “আমার নাকি আরেকটা বিয়ের শখ জাগছে!” এইটা কোন কথা! সকালে নাস্তা পর্যন্ত বানায় নাই! বলছে বাইরে খেয়ে নিতে।

হাসনাত ভাই, সরল মনের মানুষ। এ জগৎ সংসারে সরলতা খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। বললাম– “ভাই ব্যাপার না, এক বক্স চকলেট নিয়ে ভাবীকে গিফট করেন। আর বলবেন, এ্যাই চলো আজ লুডু খেলি! লুডু দাম্পত্য জীবনে অনেক গুরুত্ববহন করে তা কি জানেন?”

একটু আগে হাসনাত ভাবী ফোন দিয়ে আমার বউকে বলছে– “আচ্ছা ভাবী, আপনারাও কি প্রায়ই লুডু খেলেন?” বউও সরল মনে বলেছে- “হ্যা খেলিতো, অনলাইনে। আমি আর আপনার ভাই একপাশে, অন্যপাশে দু’জন।”

নচ্ছার হাসনাত ভাই! আমার ঘরেও আগুন লাগায় দিলেন। লুডু খেলার বুদ্ধি দিয়েছিলাম সেটাতো অনলাইনে খেলবেন। ভাবী আর আপনি পার্টনার কিন্তু চুপিচাপি লক্ষ্য রাখবেন অপরপক্ষের দিকে। বাজার থেকে কেনা লুডুতে এই অনুভব কই!

শেষ খবর হচ্ছে, আমি নিজেই এখন সাতমিশেলি খিচুড়ি রান্না করছি আর তিনি অনলাইনে লুডু খেলছেন।

[ছবি- নেট থেকে নেয়া]

৩১৫জন ১০৩জন
15 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য