মেঘালয় ভ্রমণ

চাটিগাঁ থেকে বাহার ৩ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০৬:৫৫:০৫অপরাহ্ন কবিতা ২২ মন্তব্য

মেঘালয় ভ্রমণ

মেঘেদের দেশে এসেছি আমরা তাই
খুশিতে ভেসেছে মেঘ,
নিজেকে উজাড় করে দিয়ে মেঘ বলে
দেখরে আমায় দেখ।

মেঘের উদারতায় আমরা
দেখতে পাইনা কিছু,
নতুন কিছু দেখার আশায়
ছুটছি মেঘের পিছু।

অভিমানী Seven Sister
ঘোমটা পড়ে লুকিয়ে আছে,
এত লাজুক বোনগুলো তাই
মেঘি পর্দার আড়ালে নাচে।

রোদের আশায় চলে গেলাম
Mousmai Cave,
সুরঙ্গ বেশ ভয়ংকর হলেও
আমরা ছিলাম সেইভ।

এডভেঞ্চারে সুরঙ্গ জয় করে যাই
Nohkalikai (Falls) ঝর্ণা,
মেঘেরা কয় এসো আবার
আমরা তো আর পর না!

কত আশা ছিলো মনে
মেঘের উপর ভাসবো,
তাই বলে এতো দূরে
কী করে আর আসবো!

কুয়াশা ভরা দৃষ্টি
আহা, কী অপরূপ সৃষ্টি!

Maw-Sa-Wa Water Falls এ যেতে
দূর্গম পাহাড়ি সরু পথ,
সুন্দরতম দৃশ্যাবলী যেন
মন মাতানো রথ।

বন্ধুরা মোর নেচে গেয়ে
কাটছে সারা বেলা,
ঝর্ণার জলে স্নান করেছে
মন করে উজালা।

Dainthlen Falls চোখ ঝলসানো
সুন্দরের ফুলঝুরি,
এতগুলান রূপসী ললনা
আমাদের করলো মনচুরি।

রিভার রূট ব্রীজ হল
গাছের শিকড়ের কারুকাজ,
মিস করলে কেউ সারাটি দিন
নিজের কাছেই পাবেন লাজ।

Mawlynnong village এশিয়ার
পরিস্কার তম গ্রাম,
ইচ্ছে হবে রাস্তায় শুতে, আহা!
সচেতনতার কী দাম!

পুরো গ্রামটাই যেন একটি
সুসজ্জিত নার্সারী,
আসুন সবাই সচেতন হই
এটা যে খুব দরকারী।

সরোয়ার বেশ চঞ্চল বটে
নঈম আছে সাইড,
হাসান কিছুটা বিজ্ঞ হলেও
মঈন করেছে গাইড।

ওরা যদি ডে-লাইট হয়
আমি হলাম নাইট,
যখন ওরা গোসল করে
তখন আমি সাইড!

বিবেক নামের পাইলট ছিলো
শুরু থেকে শেষ,
নেপালী পুলাটি বন্ধুসুলভ
ভাষাও জানে বেশ।

ডাউকি সিলং চেরাপুঞ্জি
মেঘালয়ের তিন কন্যা,
তাদেরও যুবতী কন্যারা আছে
যেন বৃষ্টির পর বন্যা।

Awesome যেমন ডাউকির পয়েন্ট
তেমনি Awesome সিলং,
চেরাপুঞ্জির Awesome এরা মিলে
যেন বাসরে সাজানো পালং।

Krang Suri Water Falls
সবার শেষে দেখা,
ফিরতি পথে সবার কেমন
লাগছে একা একা!

মেঘালয়টা দক্ষিণ এশিয়ার
ডিপ ফ্রিজের বেলকনি,
মহান আল্লাহর সৃষ্টি দেখলে
প্রস্তুতি নাও এক্ষুনি!!

রচনাকাল: (১৭/০৮/২০১৯)

(দেড়মাস আগে ৫ জনের একটি গ্রুপ গিয়েছিলাম মেঘালয় ভ্রমণে, সেখানে লিখেছিলাম ২টি কবিতা, এখানে ১টি দিলাম।)

২৫৫জন ১৩৪জন
5 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য