গুচ্ছানুভূতি

বন্যা লিপি ১৯ মে ২০২০, মঙ্গলবার, ০৩:১২:৫০অপরাহ্ন কবিতা ১৯ মন্তব্য

নির্ভরতা#

প্রতি সেকেন্ডের হিসেব যদি পেতে চাই;
তবে বন্ধ হবে জবাবের দরজা।
নয়তো নাটুকেপনার চারিত্রিক কসরৎ।
যুগান্তর রইলো পরে যোজন যোজন দূর অজানার গন্তব্যে।
বিশ্বাসের দেয়ালে ঠেস্ দিয়ে শীতল পাটি দাঁড়িয়ে থাকার মতো অপেক্ষা।
কখন বিছানো হবে নির্ভরতার পাটি?

 

বোধ#

না চাইতেই
পেয়ে যাই অফুরন্ত
চাইলাম বলেই…
কোষাগার শুন্য!
এপিঠ ওপিঠ উল্টে দেখি
যোগ-বিয়োগের খেলা
অবাক চোখে নাচছে
শুধুই হরেক রকম ধাঁধা।
থাকুক পরে যেথায় যেমন
গনিতসম ধাঁধার সৈন্যদল
শাদা পৃষ্ঠায় রইলো তবে
সমাধানেরই বি-ফল!

 

বায়না#

কতদিন দেখোনা বলোতো
হাতের মুঠো!
তাকিয়ে দেখো মুঠোভর্তি জোছনা
বুলিয়ে নাও
দু’চোখ ভরে
দূর করো যত
আঁধারের বায়না।

 

জল্লাদ#

দেয়াল ভাঙার শর্তেরাও
পাথর হয়ে যায়-
আধেক পৃষ্ঠার গল্পেই
পুড়ে যায় ,বাকি পৃষ্ঠার সারাংশ
অসাধারন চমৎকারিত্বের রোশনাই
চোখের ধাঁধা!
লাইন শুরু না হতেই
গল্প শেষ।
কিছু গল্পের জল্লাদ হয়ে যাই
নৃশংস রকম;
ক্রমশ ফাঁসিকাষ্ঠে ঝোলাতে থাকি স্বপ্নের দেহ।
প্রথম পাতায় শিরোনাম
প্রকাশিত হয় প্রশংসার!

 

ছোবল#

নিশিগন্ধার প্রকট
আদিখ্যেতার যোগসাজসে
রাত্রিগুলো বেহায়াপণায় জ্বলে থাকে
অজস্র ক্যাকটাস ফোটে
একটার একটা;
হিংসের মত বড়
কিছু নেই আসলে, চাঁদটাও ছোটো মনে হয়
পৃথিবীর জন্যে।

১৩৭জন ৩৩জন
0 Shares

১৯টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য