আমার কিছু স্নেহময়ী সমস্যা

মিসু ১৯ আগস্ট ২০১৩, সোমবার, ১২:০৫:৩৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৬ মন্তব্য

আমার কিছু স্নেহময়ী সমস্যা আছে যেগুলো অসাধরণ ভাবে ভোগায় আমাকে।

বাম এবং ডান দিকজনিত মস্যাটা প্রচন্ড ভোগায় আমায়। হয়ত রিক্সায় উঠেছি যেতে হবে ডান দিকে কিন্তু আমি রিক্সাওয়ালাকে দুম করে বলে দিলাম বামে যেতে, রিক্সা বামে যেতেই খেয়াল করলাম ভুল বলে ফেলেছি সাথে সাথে আবার ডানে যেতে বলি এবং দ্রুত দিক চেন্জ করতে গিয়ে মাঝেই মাঝেই আমি অনেক বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়ে যাই।

উত্তর, দক্ষিন নিয়েও আমার সমস্যাটা প্রকট। নামাজ পড়ার কারনে পশ্চিম দিকটা বুঝতে পারি আর পশ্চিমের বিপরিত পূর্ব বলে সেটাও মনে থাকে কিন্তু উত্তর দক্ষিন একদম মাথায় ঢোকেনা। কেউ যদি আমাকে বলে, ‘তোমাদের স্কুলের উত্তর পাশেই আমার বাড়ি’ আমার সাধ্য নেই সেই বাড়ি খুঁজে বের করা। কি এক আজব সমস্যা।

পোনে এবং সোয়া দুটো শব্দ কখনো মগজে স্হায়ি হলোনা। পোনে পাঁচটা, পোনে চারশ, সোয়া সেড়, সোয়া কেজি এই শব্দগুলো আমার কাছে হিব্রু ভাষার মতই কঠীন লাগে।

আমি কাঁটাওয়ালা ঘড়ি দেখে কখনো সময় বুঝতে পারিনা, যদিও বুঝতে পারি তাও অনেক সময় লাগে। এখন অবশ্য মোবাইল থাকাতে এই সমস্যাটা খুব একটা ভোগায় না।

অক্ষর ভুলে যাওয়াটা আমার জন্য আরেকটা বড় সমস্যা। এটা স্টুডেন্ট লাইফে বেশি ভোগাত। পরীক্ষার হলে একমনে লিখতে লিখতে হঠাত্ করেই দেখা গেল আমি কিছুতেই ‘স’ অক্ষরটা কেমন তা মনে করতে পারছিনা।
শত চেষ্টাতেও যখন মনে আসত না তখন পাশের জনের সাহায্য নিয়ে “স” কে মনে করেছি।

খুব পরিচিত মানুষের নাম ভুলে যাওয়াটাও আমার জন্য একটা বিব্রতকর সমস্যা। রাস্তায় হয়ত অনেকদিন পর কোন পরিচিত কারো সাথে দেখা হয়েছে, অনেক গল্প হলো কিন্তু আমার স্মৃতিশক্তি আমার সাথে বিটলামি করল,
আমি কিছুতেই তার নাম মনে করতে পারছিনা। লজ্জায় তাকেও আর তার নাম জিজ্ঞাসা করতে পারলাম না।

কাছের মানুষেরা বেশ চেষ্টা করেছেন আমাকে উত্তর, দক্ষিন, বাম, ডান, সোয়া, পোনের সমস্যা থেকে মুক্ত করতে কিন্তু সমস্যাগুলো বড় মমতায় আমাকে কখনো ছেড়ে যায়নি।

১৭৩জন ১৭৩জন
0 Shares

১৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য