শহুরে আগন্তুক

ছাইরাছ হেলাল ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, সোমবার, ০৯:৩৭:২৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২০ মন্তব্য

এসেছিল সে নিশুতির চাঁদ-জ্যোৎস্নায়
গহীন স্তব্ধতার গা বেয়ে বেয়ে,
জোয়ারে উছল-উতল হয়ে, দু’কুল ছুঁয়ে ছুঁয়ে,
ভিজতে-ভিজতে ভেজাতে-ভেজাতে;
কাক-ভেজা-ভেজা হইনি তা-ও-নয়।

সেবারে
দ্বীপানুতে ইলিশের পিঠে চড়ে পার হয়েছি
খরস্রোতা নদী, অদম্য শরীরী সবল সুস্থতায় জেগেছি
অহোরাত্রির নিঘুম-ঘুম-নদীতে,
ভরে উঠেছিল নদ-নদী এমনকি শাখা-প্রশাখা
কানায় কানায় কল-কল-ছল-ছল সশব্দে।

আগন্তুক-বেশে পুরনো ছল ছলা/কলা ঝেড়ে ফেলে
বা নূতনের মত নূতন কোন ছল করে ছল ধরে,
বহুগামিতার কালশিটে লাল-দাগ কপালে পড়ে হলেও
এসো আবার, অন্য কোন রূপে ভিন্ন ভিন্ন সাজে/রূপে;

ঈশ্বরের দোহাই,
একবার হলেও এসো
ভিজতে/ভেজাতে শুধুই একবার, শেষবার
কলকলা জল-জোয়ারের মতো;
তেতো/মিষ্টি পেত্নীর মতো।

হিজল সন্ধ্যায় তোমার আলপথে আজ নূতন নাগর,
চৌহদ্দি পেড়িয়ে বারান্দায় জাঁকিয়ে বসেছে,
তবুও বৃষ্টির অবগুণ্ঠনে এক বার এসো;

৪০৩জন ৪০৩জন
0 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ