মেদ কমানোর উপায়

সোনিয়া হক ৪ অক্টোবর ২০১৩, শুক্রবার, ০১:১৫:৫৩অপরাহ্ন চিকিৎসা ৬ মন্তব্য

শরীরের বাড়তি মেদ কমিয়ে সুস্থ থাকুন ।

মেদ কমানোর উপায়

কোল্ডড্রিংস বাদ দিন :
সব ধরনের কোল্ডড্রিংস বাদ দিন। এর বদলে বিশুদ্ধ পানি, ফলের রস ও শরবত পান করুন।

লবণ বাদ দিন :
খাওয়ার সময় কাঁচা লবণ বাদ দিন। এছাড়া চিপস, পনির, বাদাম, টিনজাত খাবার এড়িয়ে চলুন। কারণ লবণ মুখের রুচি বাড়ায়। ফলে খাবার বেশি গ্রহণের জন্য মেদ বাড়তে থাকে।

চুইংগাম খাবেন না :
চুইংগাম মেদ বাড়াতে সাহায্য করে। চুইংগামে প্রচুর চিনি থাকে। ফলে চিনি খাওয়াতে ওজন বেড়ে যায়। চিনিমুক্ত যেসব গাম পাওয়া যায় তা যতক্ষণ আপনার মুখে থাকে তাতে আপনার অজান্তে অল্প অল্প বাতাস গাল দিয়ে পেটে ঢুকছে তাই পেট আরো বড় লাগে।

কুঁজো হয়ে থাকবেন না :
হাঁটার সময় সোজা হয়ে হাঁটুন। অবশ্যই সোজা হয়ে বসবেন। যদি তা সম্ভব না হয় তাহলে পায়ের নিচে ১০ সেমি/৪ ইঞ্চি পরিমাণ উঁচু টুল রাখুন। চেয়ারে কোমর বরাবর ছোট বালিশ রাখুন।

বেল্ট ব্যবহার করুন :
চওড়া বেল্ট পরুন জামার নিচে। এতে আপাতভাবে ভুঁড়ি কম দেখা যাবে। এছাড়া নিয়মিত বেল্ট ব্যবহার করলে মেদ সহসা বাড়তে পারে না।

কালো জামা-কাপড় পরুন :
যারা মেদবহুল দেহের মানুষ তারা কালো জামা বা শার্টের ব্যবহার বাড়ান। কালো রঙ ব্যবহারে মোটা কম দেখাবে।

খাদ্যাভ্যাস ঠিক রাখুন :
আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী সুষম খাদ্যের তালিকা তৈরি করা অত্যন্ত জরুরি। এজন্য আপনি বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে তালিকা বানান এবং তা ঠিকভাবে মেনে চলুন।

ব্যায়াম করুন :
সপ্তাহে অন্তত কয়েকটা দিন রাখুন আধাঘণ্টা ব্যায়ামের জন্য। ফ্রি হ্যান্ড এঙ্ারসাইজ করতে থাকেন। তবে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে ব্যায়াম করুন। কারণ সবার জন্য সব ব্যায়াম ঠিক হয় না। আপনার শরীরের ধরন বুঝে ব্যায়াম করতে হবে।

নিয়মিত হাঁটা এবং সাঁতার কাটলে মেদ কমে।
লিফটের বদলে সিঁড়ি দিয়ে ওঠা-নামা করুন এবং কাছের জায়গাগুলোতে হেঁটে যান।

বাগান করুন :
বাগান করলে বেশ ভালো ব্যায়াম হয়। কারণ এতে সবদিকে মুভমেন্ট ঘটে। এছাড়া মন ভালো থাকে ও অলসতা কাটে। ফলে মেদ কমে।

দুপুরে ঘুমাবেন না :
আপনি যদি রাতে পর্যাপ্ত ঘুমাতে পারেন তাহলে দুপুরে ঘুমাতে যাবেন না। এতে মোটা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে আপনি জেগে থেকে বিছানায় বিশ্রাম নিতে পারেন।

-জেরিন আকতার রুনা

লেখাটি পূর্বে এখানে প্রকাশিত হয়েছে

২৭৭জন ২৭৭জন
0 Shares

৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য