দূরত্ব তৈরি হবার পরে…

বিষণ্ন সময়ে কেন মনে পড়ে তোমাকে? ভালোবাসার বৃষ্টিতে ভিজিয়ে দিও আমাকে…
-এখন যে বৃষ্টি ঝরছে তা ভালোবাসার নয়। এ বৃষ্টিতে ভিজানো যাবে না তোমায়।
-কিসের বৃষ্টি ঝরে এখন?
-কি লাভ আর কারণ খুঁজে? মূল্যবান সময়ের অপচয় হবে শুধু‌। তার চেয়ে এই ভালো যা ঝরছে ঝরতে দাও।
-ভালোবাসতেই চেয়েছিলাম তোমাকে কেবল
দু’চোখে ঝরে পড়ে বিরহ অনল!
-ভালোবাসায় বিরহ থাকবে না তাই কি কখনো হয়? বিরহের অনলে জ্বলবো বলেই তো ভালোবেসেছিলাম তোমায়!
-অনেকদিন পর আজ তোমাকে দেখতে মনটা বেশ ছটফট করছিল। শহরের আনাচে কানাচে ঘুরেছি, তবু দেখা মিলেনি!
-এখন আর আমার শহরে যাবার খুব একটা দরকার পরে না। আগে একটা কারণ ছিলো, কাউকে দেখার ব্যকুল বাসনা ছিলো। এখন আর নেই।

-ভেবেছিলাম ফোন দিব, দিইনি পাছে ইগনর করো সে ভয়ে!
-ভালো করেছো ফোন দাওনি।

-এতটাই পর করে দিয়েছ?
-পর তাকেই করা যায় যে আপন থাকে। তুমি তো কখনও আপন ছিলেই না আমার তবে পর করবো কি করে?

সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পরে…..

-কেমন আছো?
-এই তো আছি
-ফোন নম্বর চেঞ্জ করেছো? কয়দিন থেকে কল দিচ্ছি  বন্ধ পাচ্ছি। নম্বর চেঞ্জ করলে নতুন নম্বর দিতে হয়।

-হঠাৎ আমার ফোন নম্বর দরকার পড়ছে কেনো?
-না এমনিই একটু খোঁজ খবর নিতাম।
-কী দরকার বলুন তো?
-আচ্ছা না দিতে চাইলে থাক।
-আমি আর ফোন ব্যবহার করি না।
-তোমার মতো করে আর কেউ ভালোবাসতে পারেনি আমায়।
-তাই বুঝি! আমি ভালোবাসতে পারি?
-হুম পারো। তবে খুব বেশি অহংকার তোমার। বড্ড বেশি উপেক্ষা করেছো আমাকে।
-আমি এখন আরো বেশি অহংকারী। আর বলেই তো ছিলাম আমি সব সইতে পারি, কিন্তু অবজ্ঞা নয়। কিন্তু আপনি সেটাই করেছেন প্রতিনিয়ত। ব্যস্ততার অজুহাতে খুব অবজ্ঞা করেছেন আমাকে।
-আমি কখনো ভাবতে পারিনি তুমি এভাবে আমাকে সবার কাছে ছোট করবে।
-সেজন্য আমি সত্যিই দুঃখিত। তবে দোষ আমার একার ছিলো না নিশ্চয়ই? প্রতিনিয়ত আপনার অবজ্ঞা আমাকে বাধ্য করেছে এমন নৃশংস আচরণ করতে।

-দোষ আমরা কেউ করিনি। সময়ের কাছে হেরে গেছি আমরা দুজনেই।

-হ্যাঁ আমরা এটা করতে ওস্তাদ। নিজেদের কৃতকর্মের দায় সময়ের কাঁধে চেপে দিয়ে আমরা হই ধোঁয়া তুলশী পাতা।
-অবশ্য তোমার উপর আমার আর কোনো রাগ নেই। তবে মায়াটা এখনও আছে। আর তা আজীবন হয়তো থাকবে।
-হুম।
-আমি ভাবিনি তুমি বদলে যাবে। তোমাকে নিয়ে কত গর্ব করে বন্ধুদের বলেছিলাম ও সব মেয়েদের মতো নয়। সবার সাথে কথা বলে না।

-আপনি চলে যাবার পর নীল বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল। ওর কেয়ারিং আমাকে মুগ্ধ করেছিল। আমি ওকে উপেক্ষা করতে পারিনি বরং আকড়ে ধরেছি শক্ত করে।

-তুমি/তোমরা ভালো আছো জেনেই এতো দিন দূরে থেকেছি। হঠাৎ মনটা ক্যামন যেনো করে উঠলো। মনে হচ্ছিল তুমি ভালো নেই। তাই…
-বাহ্ আপনার মন আমার জন্য ক্যামন করে উঠে? জানতাম না তো।
-সে যা হোক। তোমার নীল কই?
-আছে,ছিলো আর থাকবেও।
-আচ্ছা ভালো থেকো তোমার।
-আপনিও ভালো থাকবেন।

২৮৩জন ১৭৭জন
0 Shares

১৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য