‘রাঁধা’ বেশ্যা

পাগলা জাঈদ ২৪ নভেম্বর ২০১৩, রবিবার, ১১:৫৮:৫৩অপরাহ্ন কবিতা ১৪ মন্তব্য

রাত তিন’টে, সাবেক রেসকোর্সে হঠাৎ রমনী,
জিজ্ঞেস করলাম, কে তুমি ?
বললো, আমি রাঁধা বেশ্যা,

আমি তথাকথিত আঁতেলদের মত,
বলে বসলাম, বেশ্যা বলছো কেন ? পতিতা বলো।
সে’ত আর আঁতেল নয়,
রোজ হাজার ওয়াটের কষ্ট সহ্য করে টাকা কামায়,
হেসে বললো, আমি’ত পতিত নই,
রোজ যদি পাঁচ জন খরিদ্দার পাই, তো মাসে দের’শ জন আসে,
বোতাম খোলা ব্লাউজের ফাঁকে উঁকি মারার জন্যে,
পতিত হলে তারা আসতো ?
আমি পতিত নই সাহেব, আমি বেশ্যা।

আমি অবাক ,কথা ঠিক বলেছে রাঁধা বেশ্যা,
জানতে চাইলাম, কষ্ট হয় না ?
রাঁধা বেশ্যার মুখে আবার হাসি,
আমাকে ও আমাদের সভ্যতাকে কাপিয়ে দিয়ে উত্তর,

সাহেব, আমার এ কষ্ট যে আমার সন্তানের ক্ষুধার চেয়ে বড় নয়,
দেশে বুড়ো বাপ, অন্ধ মা, তারা দিন গোনে,
এইটুক কষ্ট না করলে কি চলে ?
ও সাহেব, আমার বুকটা কিন্তু রঙ্গীন,
একটু হাত রাখবা নাকি ? মাত্র বিশ টাকা।

কিছু না বুঝে আমার আবার ভুল করা,
বিশ টাকা তার হাতে গুঁজে হাটা শুরু করলাম,
হঠাৎ পিঠে কি যেন লাগলো, বোধ হয় ওই বিশ টাকার নোট টি,
পেছন ফেরার সাহস হয়নি তখন,
কিন্তু কান দুটো সজাগ ছিল, শুনলাম ,
শুনলাম, রাঁধা বেশ্যা বলে চলছে,

তোদের মত কুকুরদের ভিক্ষা আমার না হলেও চলে,
নে তোর বিশ টাকা, আমি গতর বেচে খাই,
তোদের মত নতুন কৌশলে ভিক্ষা করে খাই না,
নিজেকে নিংড়ে দিয়ে টাকা কামাই,
বিশ টাকা দিয়ে সাধু সাঁজিস কেন ?
পারলে এমন কিছু কর যাতে,
খুন হয়ে যাওয়া ছেলের জন্যে কেঁদে আমার মায়ের মত কেউ অন্ধ না হয়,
পারলে এমন কিছু কর যাতে,
আমার সন্তান্দের মুখে আমি খাবার দিতে পারি,
পারলে এমন কিছু কর, যাতে রাঁধা কে আর বেশ্যা হতে না হয়।

৪০৪জন ৪০৪জন
0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ