মধ্যবিত্ত

নাফিছা সুলতানা ইলমি ১১ মার্চ ২০২০, বুধবার, ১১:৪৬:৪৩পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৭ মন্তব্য

মধ্যবিত্ত মানুষগুলো পৃথিবীতে সবচেয়ে বড় অসহায়। তাদের চেয়ে বড় অসহায় আর কেউ হতেই পারে।হ্যা,রাস্তায় বসা ভিক্ষুকের তুলনায় তার পাশ দিয়ে হেটে যাওয়া মধ্যবিত্ত মানুষটি কয়েকগুণ বেশি অসহায়। কি ভাবছেন?মধ্যবিত্ত মানুষ শুধু সম্পদের দিক থেকেই হয়?না…মানুষ মধ্যবিত্ত হয় লেখাপড়ার দিক দিয়ে।মানুষ মধ্যবিত্ত হয় ভালবাসার দিক দিয়ে।মানুষ মধ্যবিত্ত হয় সম্মানের দিক দিয়ে। মানুষ মধ্যবিত্ত হয় ব্যাবহারের দিক দিয়ে।আর তাই সমাজে তাদের মর্যাদাও হয় মধ্যবিত্ত। তাদের ধনী গরীব উভয় পক্ষের সাথে মিশতে হয়। উভয় পক্ষের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হয়।আর তারপরও একপর্যায়ে তাদের বিরাট এক দোষের বোঝা উভয় পক্ষের থেকেই অর্জন করে নিতে হয়।
আপনি একজন মধ্যবিত্ত স্টুডেন্ট।মুটামুটি রেজাল্ট করেন।কেউ আপনাকে ভাল স্টুডেন্টও বলবে না।আবার খারাপ স্টুডেন্ট ও বলতে পারবে না।আপনি ভাল স্টুডেন্টদের সাথে মিশতে গেলেও আপনাকে তাচ্ছিল্য করা হবে।আবার খারাপদের সাথে মিশতে গেলেও আপনাকে তাচ্ছিল্য কুড়াতে হবে।
আর মধ্যবিত্ত প্রেমিক যদি আপনি হন,তবে অবিশ্যই আপনি কষ্ট ছাড়া বেশি কিছু পাবেন না।মধ্যবিত্ত প্রেমিকরা শুধু দূর থেকে ভালবাসতে জানে।কাছে গিয়ে ভালবাসার কথা বলতে পারে না।
হয়ত মধ্যবিত্তদের সব আশাই একসময় পূরণ হয়।তবে জীবনের শেষ মুহুর্তে এসে।হয়ত অনেক না পাওয়া না পাওয়াই থেকে যায়।হয়ত অনেক ভালবাসা বৃষ্টির পানির সাথে মিশে একাকার হয়ে যায়।সারাটা জীবন ছিড়া জুতা পায়ে দিয়ে ঘুরে টাকা উপার্জন করে শেষ বয়সে মধ্যবিত্তরা বাড়ির স্বপ্ন পূরণ করে।আর সেই বাড়িতে বাস করে গোটা কয়েকবছর।কাচের ওপাশ থেকে পছন্দের পোষাকটি দেখেই তারা বৃদ্ধ হয়।কাড়িকাড়ি স্বপ্নই তারা শুধু দেখতে পারে।আর পূরণ করে কাছের মানুষদের স্বপ্ন।
মানুষের মন রাখার চেষ্টা করতে করতেই তাদের জীবনের অনেকটা সময় তারা শেষ করে।তাও তারা পেরে উঠে না।শেষ বয়সে তাদেরই জায়গা হয় বৃদ্ধাশ্রমে।জীবনের চূড়ায় দাড়িয়ে থাকা কোন গরীব কিংবা ধনীদের কিন্তু বৃদ্ধাশ্রমে পাওয়া যাবে না।
আর তারপর এভাবেই শেষ হয় একজন মধ্যবিত্ত মানুষের জীবনের গল্প।

২৩৫জন ১৫৬জন
11 Shares

১৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য