তোমার ভাঁজ খোলো

প্রিন্স মাহমুদ ৯ অক্টোবর ২০১৩, বুধবার, ০৩:৪৭:৩৫পূর্বাহ্ন গল্প ১৪ মন্তব্য

নাইমুল হোসেন ইদানিং দুঃস্বপ্ন দেখছেন নাকি মজার কোন স্বপ্ন দেখছেন বুঝতে পারছেন না । বুঝতে না পারার কারন আছে । তার বাসার পাশ দিয়ে চট্টগ্রাম শহরের বিখ্যাত চাক্তাই খাল প্রবাহিত হয়ে গেছে । আবর্জনায় ভরা এই খালের দিকে তাকিয়ে তিনি কর্ণফুলী নদীর জোয়ারভাটা বুঝতে পারেন । তিনি প্রায় সময় স্বপ্ন দেখছেন খালের পাশে তার বাসাটি ভুমিকম্পে খালের উপর হেলে পড়ে , তারপর সপ্নের এক পর্যায়ে দেখা যায়

তিনি খালের উপর শুয়ে আছেন তার সিঙ্গেল সিটের খাট নিয়ে ।

 

তিনি ঝাপসাভাবে কোন কিছুর সংজ্ঞা পছন্দ করেন না , কোনকিছুর নির্ণয় করা পছন্দ করেন না । তার সপ্নের ভেতর জীবনের প্রতি অযৌক্তিক কিছু প্রকাশ পায় যা তিনি পছন্দ করেন না । তিনি জীবনবাদী মানুষ । সপ্নের খোঁচা তার পছন্দ না ।

 

কিছুদিন আগে তিনি দিকভ্রান্ত পথিকের “সপ্নের অপার রহস্যময় জগতে সপ্নবাজ – স্বপ্নহীন সবাইকে স্বাগতম ” নামক লেখাটা পরেছেন । লেখক এখানে প্রথমেই জানিয়েছেন- “স্বপ্ন! দুই শব্দের সামান্য এই শব্দটা সামনে এলেই অন্য একটি জগতের কথা মনের পর্দায় ভেসে উঠে !”  আসলেই কি তাই ?

জেগে জেগেতো মানুষ স্বপ্ন দেখেনা , দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ঘুমানোর কিছু রেকর্ড আছে । ঘোড়া তো জেগে জেগেই ঘুমায় । ইতিহাসে জেগে জেগে স্বপ্ন দেখার সত্যতা কি আছে ? এই পর্যায়ে নাইমুলের নিজের প্রতি খুবই বিতৃষ্ণা লাগছে । তার দাদীর খোয়াবনামা বইটা থাকলে ভালো হতো । দাদী প্রায় বলতেন সপ্নে বড় মাছ দেখলে ভাগ্য আসে , টাকা আসে । দাদী বছর কয়েকআগে এক শীতের রাতে পানি খাবো বলে পানির অপেক্ষায় থাকতে থাকতে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন । তিনি স্বপ্ন দেখতেন কিন্তু ঘুম থেকে জেগে সেই স্বপ্ন মনে করতে পারতেন না ।

 

স্বপ্ন কি নিছক অবচেতন মনের কল্পনা ? ব্লগার পথিক লিখেছেন মানুষ তার ৬৫ বছরের প্রায় ২১ বছর ঘুমিয়ে কাটায় ।জীবনের এই ৩৩% অংশ জীবনের পথে পথে প্রভাব ফেলে।

স্বপ্ন দেখার সময় চোখের মনি বন্ধ অবস্থায় নড়াচড়া করতে থাকে । অনেকেই সপ্নের ঘোরে হেঁটে বেড়ান ।

 

প্রাকৃতিকভাবে যাদের ভয়ের কোন দুঃস্মৃতি নেই তারাও ভয়ের স্বপ্ন দেখে কেন ? ব্লগার নানা তত্ত্বউপাত্ত দিয়ে জানিয়েছেন  – স্মৃতিগুলো মুলত আমাদের ডিএনএর মাধ্যমে আদান প্রদন হয়ে আসে । তাই তারা অনেককিছু দেখতে পাড়ে । এই ডিএনএর প্রভাব শুধু আমাদের মাতাপিতা না , মানুষের আদিরুপ থেকেও আসতে পারে । এখানেই বিবর্তনবাদ থিওরি চলে আসে  ।

নাইমুলের ঝাপসা লাগছে ব্যাপারটা । লেখকের প্রতিটি কথা খুবই বাস্তবসম্মত । কিন্তু নাইমুল মেনে নিতে পারছেনা ।

 

কারন তাঁর কথা যদি সত্যি হয় তাহলে অনেক অনেক বছর আগে প্রাচীন কোন সময়ে তাঁর পূর্বপুরুষ কিংবা মহিলার কি এরকম স্মৃতি হয়েছে ? যা ডিএনএর মাধ্যমে তাঁর কাছে চলে এসেছে ?  সত্যি কি তাহলে কেউ কি পৃথিবীতে আবর্জনা ভরা প্রতিকূলতার মধ্যে

কোন বিছানা নিয়ে শুয়ে ছিলেন ? এমন কি হতে পারে ? আচ্ছা ব্লগার দিকভ্রান্ত পথিকের

লেখাটার নাম কি তাঁর এই সন্দেহকে উসকে দিচ্ছেনা ? ব্লগার যে প্রথমেই বলেছেন সপ্নের জগত রহস্যময় ! তোমার ভাঁজ খোলো – আনন্দ দেখাও – করি সপ্নের তর্জমা ।

 

প্রিন্স মাহমুদ

-আমি আসলে একটা গল্প লিখতে চেয়েছিলাম স্বপ্ন নিয়ে । আমার ধারনা আমি গল্পে আতলামি শুরু করেছি । যাদের ক্লিয়ার করতে পারলাম না তারা এই লেখাটি পড়ে

ক্লিয়ার হতে পারেন ।লিঙ্ক www.somewhereinblog.net/blog/olyahmed/29867799 । ভালো থাকবেন।

২২২জন ২২২জন
0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

️️ 🍂️️ 💝 ️️ 🌟 🌺 💐 💥 🌻 🍄 🌹 💐 ⭐️ 🎉 🎊