জীবন্ত লাশ

রেজওয়ানা কবির ৯ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ০৮:৩৭:৫৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৪ মন্তব্য

আজকাল আর আমাকে তোমার মনে পড়ে না,তোমার মনে পড়ে আমার মুখোশধারী আপনজনদের।

আজ আমার মোবাইলে আগের মত মেসেঞ্জারের টুং টাং আওয়াজ পাই না, টুং টাং আওয়াজ হয় অন্যখানে।

ভাবতে অবাক লাগলেও সত্যি এটাই যে,আজ আমি তোমার কাছে ঘৃনিত অথচ আমার কাছের মানুষ তোমার ক্রাশ!

আজকাল চুম্বকের ভৌত ধর্ম মেনেই  চলছে তোমার এখানে ওখানে ক্রাশ খাওয়া।

স্বৈরতন্ত্রের চাপেই বলো আর আমার ছদ্ববেশী আপনজনের সাঁয় দেয়াতেই বলো, চুক্তি করে একদম এক নিমিষেই নিভিয়ে দিলে সামাজিক জীবন।

তোমাদের হাসি ঠাট্টায়, এস এম এসের নীলনকশা কনভারশেসনে,দুষ্টু ভয়েস কলে, সিগারেট আর চায়ের ধোঁয়ায় মিলিয়ে দিলে আমার এতদিনের ভালোবাসা।

তোমাদের আলোচনার মুখরোচক বিষয়ই হলো আমার এতদিনের গচ্ছিত ভালোবাসা নাকি আজ  প্রতারনা ! আমি নাকি বেহায়া ! অভিনেত্রী আরও কত রং বাহারী নাম আর ভন্ডামী !

মনুষ্যত্বের বাকল খুলে  দুর্নীতির দুষ্ট চক্রের মত পায়ে আমার শিকল পড়িয়ে দিলে !

জলাঞ্জলী দিলে আমার অস্তিত্বকে,প্রমান করে দিলে তুমিইই সত্যি !

জানিয়ে দিলে গোঁধূলিতে আমার কপালে একরাশ চুমুর গল্পটা মিথ্যে,

তোমাতে আমাতে মিশে থাকার গল্পটা মিথ্যে,

তোমার ছেড়ে যাওয়ার গল্পটাও মিথ্যে,

বুক ফুলিয়ে নিজের মত করে বাক্যাবলী বানিয়ে রংবাহারী পেখম মেলে মহান সাজলে।

গনসমাবেশে ছড়িয়ে দিলে নিজের আওড়ানো বুলির মিছিল।

অনুভূতির বোধ প্রাচীরে হারানোর দাগ তীব্রভাবে কেটে গেলে !

মাকড়ঁসার জালের মত ঝুলিয়ে দিলে আমার সমস্ত মানসিক যন্ত্রনা ঐ রংচটা দেয়ালে।

অথচ তুমি কিন্তু ঠিকই জানো সত্যিটা কি?

এর আগেও বহুবার অলিখিত হিসেব নিকেশে  আমাকে মারতে গিয়েও ফিরে এসেছিলে !

এবার একেবারে থার্ড পারসনের সহযোগীতায় ভালোবাসার বদৌলতে উপহারস্বরুপ লিখিত মৃত্যু লিখে দিলে।

পাথরচাপা দিয়ে বরফ দেয়া কফিনে চায়ের পাতা,আতর লোবান ছাড়াই চুপিসারে শুইয়ে দিলে।

নিস্তব্ধ আমি বাকরুদ্ধ হয়ে নিজের এই লিখিত মৃত্যুর পোস্টমর্টেম দেখছিলাম আমার অন্ধকার ছোট্ট ঘরটায়,,

দেখছি হাতুড়ির আঘাতে খাঁচা কেটে হৃদপিণ্ড খুলে ফেলার নির্মম দৃশ্য,,

এ দৃশ্যপট আমার একেবারে অপরিচিত একেবারে অচেনা।

কালসিটে দাগগুলো দেখে এবার আমি ভয়ে নিজেই গগনবিদারী চিৎকারে আকাশ পাতাল ভাঙ্গলাম তবুও  কোথাও তার প্রতিধ্বনি শুনতে পেলাম না।

অনূভুতিহীন শূণ্য শরীরে আজকাল আর কোনো ব্যাথা বেদনা, সুখ দুঃখের আলাপন,ভালোবাসার কথোপোকথনের আওয়াজ  পাই না।

বেঁচে আছি খাদ্য শৃঙ্খলে  রক্ত মাংসের এক তাঁজা শরীর নিয়ে, যা নীল শাড়ীতে আজও আচ্ছাদিত।

তবে হৃদপিন্ডটা এখন ও পড়ে আছে  ঐ ধুলোবালিতে ভরা  পোস্টমর্টেম ঘরে।

তবুও আমি কল্পনায়, স্বপ্নে তোমায় বাহু-ডোরে বাঁধি,

কাছে পাওয়ার ব্যাকুলতায় অধীর হয়ে বসে থাকি।

ভালোবাসা অমলিন সেই আগের মত,একই সুর একই তালে বেঁজে ওঠে আমার অন্তঃরীক্ষ দ্বীপে।

শুধু তুমি কাছে নেই দূরে- বহুদূরে,

এখন শুধু স্মৃতিগুলোকে পানির দরে বেঁচতে পারার অপেক্ষায়।

নিজের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ ! বেঁচে আছি কী???

আছিইইই তো !!!

জীবনের তাগিদেই একটা জীবন্ত লাশ হয়ে।।।।

ছবিঃ নেট থেকে।

৩৪২জন ৪০জন
0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ