আমি অনেক দিন ধরে লক্ষ্য করছি, বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ উদার ও প্রগতিশীল রাজনিতির কথা বললেও বাস্তবে তা নয়। আমার এলেখার পক্ষে ও বিপক্ষে অনেক ঝড় ও মত পার্থক্য উঠবে। তা স্বত্ত্বেও লেখলাম।

আমি বেশি রাজনিতি বুঝিও না। এক সময় অর্থাৎ ১৯৭৫ পরবর্তী দুরসময়ে আওয়ামিলীগের যারা কাণ্ডারি ছিল তাদের প্রতি এক ধরনের অবিচার করা হয় এবং ধামাধরা চামচারা সুর সুর করে উপরে উঠে যায়। যারা ত্যাগী ও নিঃস্বার্থ তাঁরা অতর গভীরে হারিয়ে যান আবার দুষ সময়ে তাদের দাকা হয়।

আব্দুর রাজ্জাক সাহেব মারা গেল তাঁকে দেখতে পর্যন্ত যাওয়া হয়নি এবং খোঁজ খবরও নেয়া হয়নি, ঠিক তেমনি আব্দুল জলিল ও তাই। সাবেক মেয়র মোহাম্মদ হানিফের ক্ষেত্রেও তাই। বর্তমানে বর্ষীয়ান দুই নেতা সরকারে বিগত মন্ত্রী সভায় ঠায় না দিলেও দলের স্বার্থে অতিত বঙ্গবন্ধুর জন্যেই মনে হয় নিজেদের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে কলংগ হলেও নিরবাচনিন সরকারে যুক্ত হয়েছেন! তাঁরা মহৎ মনের অধিকারী এটা নিদিধায় বোলা যায়।

১১ নং সেক্টর কমান্ডার ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট এম হামিদুল্লাহ খান (২ নভেম্বর,১৯৭১-১৪ ফেব্রুয়ারি,১৯৭২) সাহেব মারা গেলে সরকারী ভাবে তাঁকে দেখতে যাওয়া হয়নি। যা খুবই দুঃখজনক।এরকম অনেক আছে।

অথচ মানান ভুইয়া সাহেব মারা গেলে বা হাস্পাতালে অসুস্থআবস্থায় বিএনপির অনেক নেতা তাঁকে দেখতে গেছেন।

বিএনপির দুরনিতি আর আওয়ামিলীগের দুর্নীতির পার্থক্য অনেক।

বিএনপি দুর্নীতির সঙ্গে কর্মী ও সমর্থকের আয়ের ও ভবিষ্যৎ এর জীবন ও পরিবারের আর্থিক উন্নয়নের একটি সুপথ থাকে। যার ফলে কর্মী ও সমর্থক বেশি।যার ফলে অনৈতিক হলেও বিএনপি সমর্থকের স্বচ্ছল থাকত , যা সাধারন মানুষের মাঝে বিরুপ থাক্লেও স্বাভাবিক ভাবে অনেকে মেনে নেয়।

পক্ষান্তরে আওয়ামিলীগ নেতা ও উপরের কয়েকজন অর্থ উপারজন করে কিন্তু সমর্থক দুরের কথা কর্মীর চিন্তায় করেনা। এক্ষেত্রে আওয়ামিলীগের চেয়ে বিএনপি উদার মনের অধিকারী। বিএনপির অনেক নেতা আছে তাঁরা ভোট ও জনগনের আস্থা পাওয়ার জন্য টাকা না কামিয়ে নিজ নিজ অঞ্চলে বিনা টাকায় সরকারী ও বেসরকারী চাকরি দেয় অপরদিকে আওয়ামিলীগ দলমত নিবিশেসে টাকার বিনিময়ে চাকরি দেয় তানা হলে হয় না।

এক্ষেত্রে বিএনপির কর্মীর টাকা আছে চাকরী হয় আর আওয়ামিলীগ ডিলেট। আমি যখন টাকা দিয়েই চাকরি নেব দল কে কেন উপরে দিকে তুলতে যাওয়ার চেষ্টা করব? দল্কে কেন ওত গুরুত্ব দেব? টাকাই যখন দেব।

 

 

 

২৪৯জন ২৪৯জন
0 Shares

১৯টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য