Just I Don’t Care

প্রদীপ চক্রবর্তী ৯ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার, ০৯:৩৮:৫৭অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৮ মন্তব্য

দুহাজার তিনশত আটচল্লিশ ঘন্টা তোমার আমার সম্পর্কের ঘনঘটা।
কেউ কাউকে ছেড়ে যাওয়ার সম্ভাষণ ছিলো না। একজন আরেকজনের পাশে থাকবে।
থাকবে ভালোবাসার নির্যাস ছোঁয়া।
আর স্বপ্ন ছোঁয়া হৃদয়ে হৃদয়ে ভালোবাসার আলিঙ্গন।
যেখানে মৃত্যুের হাত থেকে ফিরে আসা আকুলতা আর কান্নায় ভেঙ্গে পড়া তোমার আমার অশ্রুজল সকল যাতনা ভুলে যাওয়ার যে উপক্রম।
তা তুমি নিশ্চয় জানতে।
এতটা দিন এতটা রাত যেথায় কত দিবস রজনী আর পূর্ণিমারাত্রির ষোড়শীতে তুমি যে ছিলে আমার হেমবর্ণা অষ্টাদশী।
নিশ্চয় তুমি জানতে।
বসন্তের ক্ষত এখনি শুকায় নি তোমার দেওয়া কত আঘাত তোমারি ভালোবাসাতে শুকিয়েছে!
আজও পর্যন্ত কেউ কাউকে দেখে নি।
দূরত্বতার সাথে দুজন দুজনকে মানিয়ে নিয়ে চলছে ভালোবাসার আদানপ্রদান।
চলছে বেশ যাবৎ কাল থেকে দুজনার অন্তর্বেক্ষণ।
যদি ভালোবাসা নামক তোমার আমার প্রাপ্তি কোনকিছু দ্বারা পরিমাপ করা হয়। হয়তো তোমার প্রতি আমার ভালোবাসার প্রাপ্তিটা বেশি।
দিবস রজনী যতবার বলেছি ভালোবাসি,হয়তো কোন বাগানে ফোটেনি আজও এত কলি।
কোন একদিন দূরত্বটা অতিক্রম করে বসেছিলাম পাশাপাশি! আর সেদিন দেখেছিলাম তোমার মুখের নিষ্পাপ মিষ্টি হাসি। এই হাসি দেখে আমি দুহাত ভরে ঈশ্বরের নিকট প্রার্থনা করেছিলাম তুমি যেন হও আমার আলোকিত পূর্ণিমারাত্রির ষোড়শী।

তোমার কন্ঠে রোজ সকালে রবীন্দ্রসংগীত,বনলতা আর প্রকৃতি কবি জীবনানন্দের কবিতা আবৃত্তি।
আর রোজনামচা চায়ের কাপে চুমু এসব ছিলো দুজনের নিত্যদিনের জীবনসাথী।
জলের তিয়াসা আর নক্ষত্রবোনা চাঁদের নিষ্পলক হাসি তুমি যে ছিলে আমার ভালোবাসার কাদম্বরী।
শীতের সকালে আর আদ্রতার ছোঁয়াতে ভোরে সন্ধিকোণে ঝরে পড়া প্রিয় শিউলি ফুল কুড়াতে কুড়াতে দুজন কাটিয়ে দিতাম শিশিরজলের মগ্ন বিলাসে।
তারপর দুজন দুজনার নামের আদ্যক্ষর লিখে সেথায় বুলিয়ে দিতাম হৃদয় ছোঁয়া ভালোবাসার প্রলেপ।
কত শীত বসন্ত কাটিয়েছি দুজন।
পূর্ণলগ্নের অভিসারে দেখা হয়েছিল কোন এক ঝলমল রাতের স্নিগ্ধ আবরণে।
আর এই রাতের পূর্ণলগ্নে কেটেছিলো তোমার আর আমার দুহাজার তিনশত আটচল্লিশ ঘন্টার সম্পর্কের ঘনঘটা।
আর তুমি বলেছিলে পাশে থাকিস দীপ ভালোবাসিস আমায় জন্মভর।
ইদানীং তোমার বাস্তবতার অহমিকা আর ইয়া ইয়া জ্ঞানের পাহাড়ের অহংকার দিয়ে তুমি আমায় দূরে সরিয়ে দিচ্ছ।
কেন কেন
এমন তো কোন কথা ছিলো না?
তুমি না বলেছিলে দূরত্ব বাড়লে ভালোবাসা বাড়বে।
ইদানীং আর বলো না দীপ ভালোবাসি তোমায় অনেকটা।
.
কেন ভালোবাসি বলে হৃদয়ে ডান জায়গাটা দখল করেছিলে?
কেন পাশাপাশি বসে নামের আদ্যক্ষর লিখেছিলে?
.
দেবী তোমাকে ভালোবেসে যে আমার অজস্র কবিতা।
আর কাব্যরসের উপসংহারের শেষ নির্যাসটুকু ছিলো তোমাকে নিয়ে।

হয়তো দিনশেষে আমি তোমার ভালোবাসার যোগ্য হতে পারি নি তাই আজ আমায় বিদায় দিয়েছ।
হয়তে তোমার ভালোবাসার যোগ্যতাটুকু কেউ দিতে পেরেছে।
আমি তোমার কাছে ভুলেভরা ছন্দ থেকে গেলাম
কবে বা তোমার প্রিয় হলাম।
.
দেবী-
যোগ্যতা মেপে প্রেম হয়,
ভালোবাসা নয়।

আজ হতে থাকো তুমি তোমার বাস্তবতার অহমিকা আর অহংকারের পাহাড় নিয়ে।
Just I don’t care…

তোমার নামে ফুটবে না আর আমার বাগানে জবা।রাতের আঁধারে ফুটবে না আর প্রিয় ফুল শিউলি।
আর বইবে না তোমার প্রতি আমার ভালোবাসার অশ্রুদ্বার।
..

১৯৬জন ৫৬জন
24 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য