জীবনের চোরাগলি(পর্ব ২)

নীলকন্ঠ জয় ২৬ ডিসেম্বর ২০১৩, বৃহস্পতিবার, ০৭:৫৮:০০অপরাহ্ন গল্প, সাহিত্য ২২ মন্তব্য

(২)

মায়ের উপর অভিমানে জ্যাক কিছুতেই কোন কাজে মন দিতে পারছে না। ওর ভাবনায় শুধু মায়ের অন্যায় সিদ্ধান্তের প্রতি তীব্র ক্ষোভ জমে আছে। আনমনে টিভি চ্যানেলগুলো ঘুরাতে লাগলো। হঠাৎ BBC News এর একটি সংবাদে চোখ আটকে গেলো।
“Cyclone XFiles destroy poor Bangladesh !!!”

জ্যাকের ছোট হৃদয় ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যাচ্ছে মানুষের এতো কষ্ট দেখে। বাকরুদ্ধ হয়ে সে দেখতে লাগলো মানুষের স্বপ্নগুলো কিভাবে নিঃশেষ হয়ে গেছে। স্বর্বস্বহারা মানুষগুলোর প্রলাপ শুনতে পেলো সে। বিধাতা মানুষকে কতোখানি কষ্ট দিতে পারে আজ সে নিজের চোখে দেখলো। সে জানে এই মানুষগুলোর কষ্ট এর চেয়েও অধিক। চোখে জল ধরে রাখতে পারলো না। হঠাৎ মায়ের ডাকে সম্বিত ফিরে পেলো।

~ জ্যাক সোনা কি করছো?
~ নিউজ দেখি মম।
~ মন খারাপ করে বসে কেনো? তোমাকে বলেছিনা এটা নিউজ দেখার বয়স নয়?
~ মম, দেখো সাইক্লোন বাংলাদেশের মানুষগুলোকে কিভাবে নিঃশেষ করে দিয়েছে। আমি ওদের কষ্ট অনুভব করতে পারছি মম। কিন্তু কিছুতেই মেনে নিতে পারছিনা।
~ Stop the channel, stop the news. এটা আমাদের মাথা ব্যাথার বিষয় নয়। ঝটপট তৈরী হও। স্পেস শীপ রাইডিং ট্রেইনিং এ যাবো।

মিসেস জেনিফার জোর করে জ্যাককে ট্রেনিং সেন্টারে নিয়ে গেলেন। আজ জ্যাক শিখলো কিভাবে প্রতিকূল পরিবেশে বেঁচে থাকতে হয়, স্পেস শীপের গতির বিরুদ্ধে কিভাবে খাপ খাইয়ে নিতে হয়, বায়ুশূন্য পরিবেশে কিভাবে কাজ করতে হয়, কিভাবে যোগাযোগ মডিয়ুল দিয়ে যোগাযোগ করতে হয় পৃথিবীর সাথে ইত্যাদি। কিন্তু কোনভাবেই আজ সে মন দিতে পারছেনা। তার চোখে বারবার ভেসে উঠছে হাজার হাজার করুণ মুখের ছবি, তাদের অসহায় মূহুর্তগুলো। কত কষ্টেই না আছে মানুষগুলো।

বাসায় ফিরে খুব করে বাবাকে অনুভব করলো। মায়ের সাথে ছাড়াছাড়ি হওয়ার পর নিজ দেশে ফিরে গেছেন তার বাবা। শুনেছে তার বাবা মস্তবড় মহাকাশ বিজ্ঞানী ছিলো। কিন্তু তার মায়ের হঠকারী সিদ্ধান্তের বলী হয়ে সবকিছু ছেড়ে দিয়ে তিনি নিজ দেশে ফিরে গেছেন। সেই থেকে আজো বাবার খোঁজ পায়নি জ্যাক। প্রতিদিন নিউজ চ্যানেলে ঘুরে বেড়ানোর আরেকটা কারণ তার বাবা। ও খুব করে অপেক্ষায় থাকে হয়তো তার বাবাকে কোন না কোন চ্যানেলে দেখাবেই। কিন্তু মানুষটি আজ খবরেরও আড়াল হয়ে গেছেন। মায়ের প্রতি খুব ঘৃণা হলো ওর। নিজেকে সর্বস্বহারা মানুষগুলোর মতোই অসহায় লাগলো।

সবগুলো নিউজ চ্যানেলেই গতরাতে বাংলাদেশের উপর বয়ে যাওয়া সাইক্লোনের খবর। লাশের উপর লাশ পড়ে আছে,কি গ্রাম কি শহর, সর্বত্রই চলেছে সমান ধ্বংস লীলা। খাবারের জন্য মানুষের হাহাকার। নেই বিশুদ্ধ পানীয়ের ব্যবস্থা। স্বজন হারানো মানুষগুলো যেনো পাথর হয়ে গেছে শোকে। এরই মাঝে কিছু সাদা পোষাকের ছেলে-মেয়েকে দেখলো স্বর্গীয় দূত হয়ে কাজ করছে। নিউজ বলছে স্কুল,কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা অসহায় মানুষদের পাশে ছুটে গিয়েছে। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছে ওরা, সাহস যোগাচ্ছে সংগ্রাম করে বেঁচে থাকার। কেউ কেউ খাবার-পানি পৌঁছে দিচ্ছে। সামান্য তবুও ওদের এই মহত্বে মাথা নত হয়ে গেলো জ্যাকের।

জ্যাকের বারবার মনে হলো যে পৃথিবীর মানুষগুলো এখনও নিজেরাই বেঁচে থাকার জন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে পারে নি, সেই পৃথিবীর বিলাসী মানুষগুলো মহাকাশ যানে চড়ে অন্য পৃথিবী জয়ের নেশায় মত্ত। নিজের এই বিলাসী জীবনের প্রতি ঘৃণা হলো ওর। (চলবে…)

a25_19216565

জীবনের চোরাগলি (পর্ব ১)

২৭৫জন ২৭৫জন
0 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য