বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের অবরোধে পেট্রোল বোমায় দগ্ধ শাহিনা আক্তার (৪০) ও ফরিদ মিয়া অবশেষে মারা  গিয়েছেন ।ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার গভীর রাতে শাহিনা ও সকাল ১০টায় ফরিদ মিয়া মারা যান।

কি অপরাধ ছিল বীমা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা শাহিনার ? কি অপরাধ ছিল সাধারন ফল বিক্রেতা ফরিদ মিয়ার ? এনারা দুজন কি বিএনপি জামায়াত জোটের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ? কেন তাদেরকে চলে যেতে হলো এই মায়াময় জগত থেকে ? টিভিতে এনাদের পরিবার পরিজনদের আহাজারি দেখে আমার চোখ ভিজে গিয়েছে কান্নায় । এই সুন্দর শাহিনা আপু তো আমারও বোন হতে পারতেন ।

গত শুক্রবার সকালে একই বাসে শাহিনা ও ফরিদ যাচ্ছিলেন। পরীবাগে অবরোধকারীরা পেট্রোল বোমা ছুঁড়ে মারলে চালকসহ তারা দগ্ধ হন। পরে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তাদের মৃত্যু হয়।

এদেশের সুশীল সমাজ নির্বাক থাকবে এই দুজনের মৃত্যু নিয়ে । সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে মহিলা আইনজীবী প্রহৃত হয়েছেন সরকার দলীয় সমর্থকদের দ্বারা । অবশ্যই এটি নিন্দনীয় । সুশীল গণ টিভির টক শোতে সে ঘটনা নিয়ে মেতেছিলেন খুব । কিন্তু এই যে শাহিনা চলে গেলেন , তাঁকে নিয়ে তেমন কিছুই বলবেন না সুশীলগন । কেন বলবেন না ? মহিলা আইনজীবী কোন দিক দিয়ে শাহিনা আপুর চেয়ে বেশী ? মহিলা আইনজীবি বেঁচে আছেন , তাঁকে নিয়ে এত আলোচনা । শাহিনা আপু মরে গিয়েছেন , একে নিয়ে তো আলোচনা আরো বেশী হবার কথা ।আসলে দেশের সুশীল সমাজ পচে গিয়েছে ।

শাহিনা এবং ফরিদ মিয়ার আত্মার শান্তির জন্য প্রার্থনা করি।

 

১৮৮জন ১৮৮জন
0 Shares

১৯টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

️️ 🍂️️ 💝 ️️ 🌟 🌺 💐 💥 🌻 🍄 🌹 💐 ⭐️ 🎉 🎊