মন্দ সত্য

মোহাম্মদ দিদার ১ নভেম্বর ২০২১, সোমবার, ১০:২২:৪৫পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১১ মন্তব্য

বাল্য বিবাহ অনুচিত” না বুঝে, বে হিসেবী ভাবে  সব মেয়ের ক্ষত্রে এ কথায় সায় দিয়ে লাফানো মানুস গুলো হলো বেকুবের প্রধান নিদর্শন!

 

রগরগে চোখ তুলে তাকিয়ে সেদিন আমার কথায় প্রতিবাদ করে বিশাল মাপের চেতনাধারী এবং আধুনিকতায় বিশ্বাসি উকিল ম্যাডাম বললো

কেনো?  নারী এগিয়ে যাচ্ছে সেটা সৈর্য হচ্ছে না বুঝি?

 

কিছুক্ষণ স্তব্দ হয়ে রইলাম এই ভেবে যে অল্প বয়সে বিয়ে হলে কি নারী আর এগিয়ে যেতে পারে না। অল্প বয়সে বিয়ের সাথে নারী এগিয়ে যাওয়া আটকে থাকার  সংযোগ পেলো কোথায় সে?

কোনো বিবাহিত নারী কি ভালো চাকরী করছে না?

বিবাহিত নারী কি আজো বিশ্ববিদ্যালয়ে নেই?

 

তরপর খেই ফিরিয়ে বললাম  আপু এগিয়ে নারী কেথায় যাচ্ছে? লিটনের ফ্লাটে? একটি অষ্টম শ্রেণীর মেয়েকে বিয়ে দেওয়া পাপ আপনার মতে, কারণ তাকে আরো অনেক   উপরে উঠতে হবে  ভার্সিটি টপকে আরো অনেক উপরে!

 

অথচ তাকিয়ে দেখুন  চারপাশে,  ষষ্ট শ্রেনীর অনেক মেয়েই পার্কে, শুধু তাই নয় লিটনের ফ্লাটের রাস্তা সহো রুমের অভ্যান্তরীর  সুখের পাঠ মুখস্ত!

 

এখন বলতে পারেন সব মেয়ে এক নয়!

আমিও বলতে পারি সব ছেলে এক নয়, সব ছেলের বউয়েরা অতিষ্ট হয় না, সব স্বামী ওয়ালা নারীর এগিয়ে যাওয়া বন্ধ হয় না!

 

কিছু ছেলেও আছে বেহায়া বারোচোদা

কিছু মেয়েও আছে বারো ভাতারী

 

চোখ পাকিয়ে আবার বললো, আজব চিন্তাভাবনা আপনার! বিবাহিত নারী কি যায় না পাপের কাজে আপনি কয়টা খেয়াল রেখেছন!

 

এবার না হেসে পারলাম না, তবে অট্টহাসিতে হালকা ব্রেককষিয়ে ঠোটের কোনে একটু ফিক করে হেসে নিয়ে বললাম

আপনি ঠিকি ধরছেন ম্যাম, বিবাহিত নারীই নয় অনেক বিবাহিত পুরুষও!

 

আমার হেয়ালিতে বিষ্ময় ভাসা চোখ তুলে বললো  তবে”!

 

আমি বললাম

ম্যাম অভাবের চোর আর স্বভাবের চোর কথাটা শুনেছেন নিশ্চয়ই!

কিছু নারী স্বভাবই বারোঘাটে হাটা  সে স্বামী থাকুক না থাকুক।

কিছু মেয়ে আছ যার অভাবে পরে থাকে,নিজ থেকে বাবা মাকে বলতেও পারে না, তখন নিজের চাহিদাটা মেটাতে তাদের কে জড়াতে হয় অপকর্মে!

 

বিবাহিত হলে সে হয়তো থাকতে পারতো পবিত্র। নষ্ট হতে চাইলেও আর কিছু বলার থাকতো না!

১২৭জন ৪৭জন
0 Shares

১১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য