কাৎস্য কন্ঠের বিষ

রিতু জাহান ১৭ এপ্রিল ২০১৭, সোমবার, ০৮:২৬:২৪অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৫ মন্তব্য

গ্রীষ্মের খরতাপের তপ্ত দুপুরেও
কারো কাৎস্য কন্ঠের বিষ আমাকে আর স্পর্শ করে না।
কারণ, আজ আমার ভিতরে বাস করে
হাওয়ায় ভেসে আসা এক সমধুর সুরের ভান্ডার।
তাই চেয়ে দেখ, নিরুদ্ধিগ্ন ও নির্বিকার এ মুখ আমার।
ব্যাথায় কুঁকড়ে থাকা যে মুখটি দেখে তোমার পুরুষালী ইগো গর্বে ফুলে উঠতো,
সে মুখেই আজ দ্বীপ্ত দেখ।
তাই আজ বড় বেশি উতলা তুমি।
ফেলে আসা যতো শতো বিষ তোমাদের,
তা আজ পানির মতো স্বচ্ছ টলটলে।
সে সুরের অমৃতময় অনুভূতি আমার অন্তর ও শরীরে ময়ূরের পালকের মতো পরশ বুলিয়ে যায়।
জীবনের সব রুক্ষতাকে আজ আমি বৃদ্ধাঙ্গুষ্ঠ দেখিয়ে চলে যাব সম্মুখপানে।
তপ্ততার বুকের উপর এক অশ্বত্থ বৃক্ষ দেখ রোপণ করেছি।
এর শীতলতায় বিচরণ করে এক স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলব আমি।
সব তিক্ততার ছুরিকে আজ মলিন করব আমার অমলিন হাসিতে।
সর্বকালের বিষে ভরা ঈর্ষার পাত্র পান করব।
আমার সমবেত আক্রমনে তপ্ত এ সূর্যদেবও আশ্রয় নিবে মেঘের আড়ালে।
,,,,,,,,,,,,,,মৌনতা রিতু,,,,,,,,,১৭/৪/১৭.

৩২১জন ৩২১জন
0 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ