অয়নাংশ

পাগলা জাঈদ ২৪ নভেম্বর ২০১৩, রবিবার, ১২:৪৩:৩২পূর্বাহ্ন কবিতা ২০ মন্তব্য

আপনাদের ভালবাসায় ফিরতে বাধ্য হলাম :)…………

কোন এক মায়া বিকেলে বুকের বাম পাশটা ছুঁয়েছিল এক পশলা বৃষ্টি
তারও আগে সোনা রোদে ভিজেছি একচোট। একা ছিলাম না,
রোদেলা কাঁকের বন্য অবগাহন ছিল ছায়া সঙ্গী।
প্রকৃতির খেয়ালি ইন্টেরিয়র দেখে যখন দেহ মিশে গেছে মলিন পথশিশুতে
স্রষ্টা তার সৌন্দর্য্যের অহমিকা সাক্ষী করতে পাঠাল বৃষ্টি কণা ,
একা আসেনি, সাথে করে নিয়ে এল হিমাদ্র অনুভূতি,
যেভাবে গ্রাম-বালিকার কান্নায় সিক্ত হয় অসুস্থ ছাগল ছানা
সেভাবেই বৃষ্টি-জল আমায় ভেজালো,
ভালবাসার পিঠে ভালবাসা, পবিত্রতার গর্ভে পবিত্রতা,
আজ তারা বৃষ্টি নয়, আজ তারা সত্ত্বাধিকারী ।

শুক্রাণু বিন্যাসে কৃপন ছিল কেউ একজন ,
বৃষ্টিরা বশ মানেনি
মিলিয়ে গেল অজানায়, ভালবাসার নিদর্শন দিয়ে গেল দিগন্তে,
রাঙা গোধূলির লালিমাতে আলপনা এঁকে আমন্ত্রণ ওপারে যাবার,
আমি দ্বিধাগ্রস্থ, সাতটি রঙয়ের কোনটি আমার ?
বৃষ্টিরা ইশারায় কথা কয়, আমি যে প্রেমিক নই,
প্রিয়তাদের বুঝি কি করে ?
হৃদয় লন্ডভন্ড ভালবাসার সাইক্লোনে প্রেমিকার বদলে বুকে ঝর-জলের সঙ্গম
অভিলাষী মাটির সোঁদা গন্ধে পরিপুর্ণ কবিতার পঙতি,
অথচ বর্ণজালে বিষাক্ত মাকড়শা,
বৃষ্টিরা কথা শোনে না – বড্ড একঘেয়ে টাইপ একরোখা।

সন্যাসি ভাবনারা শব্দজটে আটকা পরেছে ততক্ষণে
মহুয়ার রসে মাতাল দিকভোলা মরীচিকা বুনোপথ
সন্ধ্যা পেড়িয়ে সোডিয়াম আলোয় কিশোরী রাতের ডামাডোল,
অস্থির পেঁচারা সঙ্গী নির্বাচনে ব্যাস্ত কোন এক দুরের গাঁয়,
বুভূক্ষ সভ্যতার বেড়াজালে শতচ্ছিন্ন ক্যানভাস
তার মাঝেই এঁকে চলছি বৃষ্টি ও তোমার হৃদয়ের অয়নাংশ সাতকাহন।

১৬১জন ১৬১জন
0 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য